Logo
আজঃ Wednesday ২৫ May ২০২২
শিরোনাম
বাংলাদেশের ফুটবলের প্রমো বানিয়েছেন ফুটবল প্রেমী আমির হামজা

বাংলাদেশের ফুটবলের প্রমো বানিয়েছেন ফুটবল প্রেমী আমির হামজা

প্রকাশিত:Sunday ২৩ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ৩০৭জন দেখেছেন
Image


আজাদ হোসেনঃ 

কাতার বিশ্বকাপের সূচী চূড়ান্ত হয়েছে। ২১ নভেম্বর ৬০ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতা সম্পন্ন আল বায়েত স্টেডিয়ামে স্থানীয় সময় দুপুর একটায় উদ্বোধনী ম্যাচের মধ্য দিয়ে আসরটি মাঠে গড়াবে হবে বলে জানিয়েছে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রন সংস্থা ফিফা।ফুটবল বিশ্বকাপের সেই উম্মাদনা বিস্তারের জন্য বাংলাদেশের ফুটবল প্রেমিরা ইতোমধ্যে প্রস্তুতি গ্রহণ করেছ।


এরই মাঝে খুশির বার্তা নিয়ে ফুটবলভক্তদের মাঝে হাজির হয়েছে বাংলাদেশের একটি বেসরকারি টেলিভিশনের ভিডিও গ্রাফার আমির হামজা। আমির হামজা বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সম্মতিক্রমে ২০২২ কাতার ফুটবল বিশ্বকাপ উপলক্ষ্যে বাংলাদেশের ফুটবল নিয়ে প্রোমো তৈরি করেছেন।বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের প্রাক্তন খেলোয়াড়দের সোনালী স্মৃতিময় দিনের ছবি সংযুক্তির মাধ্যমে ২০২২ ফুটবল বিশ্বকাপের থিম সংয়ের মাধ্যমে প্রোমোটি তৈরী করছেন তিনি।ফুটবলের প্রতি গভীর ভালোবাসা নিয়ে এই প্রমো তৈরী করেছেন আমির হামজা। প্রোমো তৈরিতে তাকে সহযোগিতা করায় আমির হামজা বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।


আমির হামজা মনে করেন, ফুটবলকে এগিয়ে নিতে হলে গভীরভাবে ভালোবেসে প্রাক্তন খেলোয়াড়দের সন্মান ও শ্রদ্ধা করতে হবে। দেশের সোনালী দিনের ফুটবল ইতিহাসকে মনে করিয়ে দিতেই এমন উদ্যোগ হাতে নিয়েছেন তিনি।আমির হামজার এই মহতী উদ্যোগকে স্বাগত জানায় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনসহ বিভিন্ন ক্রীড়া সংগঠন। বিশ্ব ফুটবল যখন খেলার মাঠ কাঁপাতে ব্যস্ত থাকবে ঠিক তখনই প্রোমোর ছন্দে-তালে নেচে গেয়ে উল্লাস করবে বাংলাদেশের ফুটবল প্রেমীরা।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



আমিরাতের আল আইন প্রবাসীদের সাথে মান্যবর রাষ্ট্রদূতের ইফতার মাহফিল

প্রকাশিত:Sunday ০১ May ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ১৪৬জন দেখেছেন
Image

মোঃ শাজাহান খান,(আরব আমিরাত)

বাংলাদেশ দূতাবাস আবুধাবি  কর্তৃক  শুক্রবার মাহে পবিত্র রমজান উপলক্ষে    প্রবাসী বাংলাদেশীদের সম্মানে গ্রীন সিটি আল আইনে ৫ নম্বর সানাইয়া   আল আইন বঙ্গবন্ধু পরিষদের প্রধান উপদেষ্টা আলহাজ্ব মোহাম্মদ শফিক সাহেবর বিল্ডিং এ  ইফতার ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। 


উক্ত  অনুষ্ঠানের  সভাপতিত্ব করেন উক্ত অনুষ্ঠানের আহ্বায়ক বঙ্গবন্ধু পরিষদ আল আইন কেন্দ্রীয় কমিটির    সভাপতি  মোহাম্মদ আলতাফ হোসেনের। পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত ও মোনাজাত করেন আল আইন বঙ্গবন্ধু পরিষদের যুগ্ম  সম্পাদক জনাব ফজলুল করিম মাসুদ হাজারী। ইফতার উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব আল আইন বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আইয়ুবের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত ইফতার ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আবুধাবির বাংলাদেশ দূতাবাসের মান্যবর রাষ্ট্রদূত জনাব মোহাম্মদ আবু  জাফর সাহেব।

 

বিশেষ অতিথি উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত সংযুক্ত আরব আমিরাতের মান্যবর রাষ্ট্রদূত জনাব মোহাম্মদ সালেহ আল কাসেমী,লেবার কাউন্সিলর আব্দুল আলীম মিয়া , লুৎফুন নাহার নাজিম (সচিব) মাজহারুল ইসলাম (তৃতীয় সচিব), বঙ্গবন্ধু পরিষদ আল আইন কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা  মোহাম্মদ শেখ ফরিদ আহমেদ সি,আই,পি।

 উত্তম কুমার হাওলাদার  সহ-সভাপতি জনাব জহিরুল ইসলাম,মোহাম্মদ রফিক 

, মোহাম্মদ আব্দুল কাদের সিদ্দিকী, মোহাম্মদ মনির হক টুটুল, 


হাফেজ শফিকুল আলম মানিক,মোহাম্মদ করিম,

আল আইন আওয়ামীলীগ এর সম্মানিত সভাপতি জনাব কাসাউদ্দিন,বি,সি,সি,আল আইনের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার এ আর  মাকসুদ, ডাক্তার খান সি আই পি,  মোহাম্মদ ইউনুছ মিয়া সিআইপি, মোহাম্মদ আবু মনছুর,মোহাম্মদ সোলেয়মান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম, মোহাম্মদ শেখ আহম্মদ,আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইউসুফ,মোহাম্মদ মোরশেদ মোহাম্মদ ফরিদ তালুকদার, 

এতে সার্বিক তথ্যাবধানে  মোহাম্মদ ইয়াকুব,সেকান্দর সান,মোহাম্মদ ফজলুল করিম মাসুদ হাজারী, মোহাম্মদ ইসমাইল হোসেন, আবুল খায়ের মিলন,

মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ টিপু, 

মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন। 

মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম নয়ন।, মোহাম্মদ সাহাজান,মোহাম্মদ হারুন,

মোহাম্মদ ইসলাম,মোহাম্মদ আলম, মোহাম্মদ আকবর,মোহাম্মদ নিজাম, 

মোহাম্মদ জুয়েল, মোহাম্মদ আব্দুল মান্নান, মোহাম্মদ মহিউদ্দন 

মোহাম্মদ আলমগীর, মোহাম্মদ সেলিম, মোহাম্মদ মুসা, মোহাম্মদ ইব্রাহিম,  মোহাম্মদ ফরিদ ও মোহাম্মদ জাহেদ সহ অনেকে।



আরও খবর



জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ

হাজী সেলিম কে জেলেই যেতেহলো

প্রকাশিত:Sunday ২২ May 20২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ৫৩জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় সাজা ভোগের জন্য আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য হাজী মোহাম্মদ সেলিমকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। এরপর বিকেল ৫টা ৫ মিনিটে আদালত থেকে পিকআপ ভ্যানে করে তাকে নিয়ে কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয় পুলিশ।


এর আগে রোববার (২২ মে) বিকেল ৩টা ১০ মিনিটে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৭ এর বিচারক শহিদুল ইসলামের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন হাজী সেলিম। শুনানি শেষে বিচারক তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।


বিচারক আদেশে উল্লেখ করেন, সাজাপ্রাপ্ত আসামি হাজী মোহাম্মদ সেলিম হাইকোর্টের নির্দেশে আজ আত্মসমর্পণ করিয়া জামিনের দরখাস্ত দাখিলপূর্বক আপিল দায়েরের শর্তে জামিনের প্রার্থনা করেছেন। পৃথক দরখাস্ত দাখিল করিয়া কারাগারে ১ম শ্রেণির মর্যাদা প্রদানের ও কারাগারের তত্ত্বাবধানে দেশের উন্নতমানের হাসপাতালে বেটার ট্রিটমেন্টের আদেশের প্রার্থনা করেছেন।


যেহেতু আসামি দশ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত, সেহেতু আসামিকে জামিন প্রদান সঙ্গত মনে করি না। ফলে আসামির জামিনের প্রার্থনা নামঞ্জুর করা হইল। সাজা ভোগের নিমিত্তে সাজা পরোয়ানা মূলে আসামিকে কারাগারে প্রেরণ করা হোক।


আসামিকে কারাগারে ১ম শ্রেণির মর্যাদা প্রদান ও কারাগারের তত্ত্বাবধানে দেশের উন্নতমানের হাসপাতালে বেটার ট্রিটমেন্ট প্রদানের দরখাস্ত বিষয়ের পক্ষে বিজ্ঞ কৌঁসুলি ও বিপক্ষে বিজ্ঞ পাবলিক প্রসিকিউটরের বক্তব্য শ্রবণ করিলাম। দাবি মতে দরখাস্তকারী আসামি একজন সংসদ সদস্য এবং ভালো চরিত্রের অধিকারী। তাহার সামাজিক মর্যাদা, আসামি যে অপরাধে সাজাপ্রাপ্ত হইয়াছেন তাহার ধরন ইত্যাদি বিবেচনায় তাহাকে জেলকোড অনুযায়ী ডিভিশন প্রদান কিংবা উন্নতমানের চিকিৎসা প্রদানের প্রয়োজনীয়তা থাকিলে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ প্রদান করা হইল।


এদিন বিকেল ৩টা ১০ মিনিটে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৭ এর বিচারক শহিদুল ইসলামের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন হাজী সেলিম। এরপর তার সঙ্গে আসা সমর্থকরা আদালতে প্রবেশ করেন। হাজী সেলিম তাদের কোর্ট থেকে বের হতে হাত ও মুখ দিয়ে ইশারা করেন। এরপর তারা কোর্ট থেকে বের হয়ে যায়। বিকেল ৩টা ১৯ মিনিটে বিচারক এজলাসে ওঠেন। এরপর আসামিকে কাঠগড়ায় উঠতে বলেন। ৩টা ২৩ মিনিটে কাঠগড়ায় ওঠেন হাজী সেলিম। এরপর তার আইনজীবী সাইদ আহম্মেদ রাজা জামিন চেয়ে শুনানি করেন।


এছাড়া কারাগারে উন্নত চিকিৎসা ও প্রথম শ্রেণির ডিভিশন চেয়েও শুনানি করেন আইনজীবী। অন্যদিকে দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল তার জামিনের বিরোধিতা করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন। একই সঙ্গে কারাবিধি অনুসারে কারাগারে উন্নত চিকিৎসা ও প্রথম শ্রেণির ডিভিশন দিতে কারা কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন। বিকেল ৩টা ৩৬ মিনিটে কাঠগড়া থেকে নেমে এজলাসে বসেন হাজী সেলিম।


এর আগে আদালতে আত্মসমর্পণ করে যে কোনো শর্তে জামিনের আবেদন করেন হাজী মোহাম্মদ সেলিম।



আরও খবর



পুলিশ ইন্সপেক্টর রুহুল কুদ্দুছ মারা গেছেন

প্রকাশিত:Tuesday ১০ May ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ২০৩জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলার কৃতি সন্তান নেত্রকোনা সমিতি ময়মনসিংহ এর সদস্য ময়মনসিংহ জেলার ইন-সার্ভিস ট্রেনিং সেন্টারে কর্মরত পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) মোহাম্মদ রুহুল কুদ্দুছ খান  আর নেই( ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। গতকাল  রাত ১.২০ মিনিটে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ইহকাল এর মায়া ত্যাগ করেছেন। 


তিনি কর্মজীবনে ছিলেন একজন নিষ্ঠাবান সৎ সাদা মনের পুলিশ অফিসার। কর্মজীবনে তিনি ময়মনসিংহ ডিবি, ওসি তদন্ত নান্দাইল, অফিসার ইনচার্জ, ১নং পুলিশ ফাঁড়িতে সততা দক্ষতা সাথে দায়িত্ব পালন করে গেছেন।তাঁর কর্মদক্ষতা প্রজন্মের কাছে অনুকরণীয় হয়ে থাকবে।


কৃতিমান এই সৎ দক্ষ কর্মবীরের মৃত্যুতে নেত্রকোনা সমিতি, ময়মনসিংহ এর পক্ষ থেকে সভাপতি আলহাজ্ব অধ্যক্ষ মোঃ আব্দুল হক, সহ-সভাপতি সিনিয়র সাংবাদিক মোঃ আব্দুল হাফিজ, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুল আজিজ, বাবু জ্যোর্তিরময় সাহা,সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জহিরুল ইসলাম খান জামাল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ আনিসুর রহমান খান  গভীর শোক প্রকাশ করে শোকাভিভূত পরিবার বর্গের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। 


রাইটার্স ইউনিটি ময়মনসিংহ এরপক্ষ থেকে সভাপতি লেখক ও সাংবাদিক মোঃ আব্দুল হাফিজ শোক প্রকাশ করে শোকাভিভূত পরিবার বর্গের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।


মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন তাকে জান্নাতুল ফেরদৌস নসিব করুন ও কবরকে সহজ করে দাও, আমিন।


আরও খবর



ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের তদন্ত কমিটির উপস্থিতিতে যাত্রাবাড়ীর বর্ণমালা স্কুলে অভিভাবকদের মিছিলে হামলা : আহত ২

প্রকাশিত:Thursday ১৯ May ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ১৬৪জন দেখেছেন
Image


নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর বর্ণমালা আদর্শ উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে জালিয়াতির মাধ্যমে গঠিত পরিচালনা কমিটির বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড।  বৃহস্পতিবার  বেলা ১১টার দিকে তদন্তকারী  কর্মকর্তারা স্কুল পরিদর্শনে এলে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা কমিটির সভাপতি আব্দুস সালাম বাবুর অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করে।


এ সময় সালাম বাবুর লোকজন মিছিলকারীদের উপর হামলা চালালে মাহফুজ নানে একজনসহ দুজন গুরুতর আহত হয়। এ ছাড়া তদন্ত কর্মকর্তাদের সামনেই সভাপতির লোকজন তার বিরুদ্ধে সাক্ষ্যদানকারীদের সাথে বিবাদে লিপ্ত হয়। পরিস্থিতি অস্বাভাবিক পর্যায়ে গেলে যাত্রাবাড়ী থানা পুলিশ এসে তা নিয়ন্ত্রণ করে।


এদিকে, বর্নমালা স্কুলের অধ্যক্ষ ও সভাপতির দুর্নীতি, অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ তদন্ত কমিটি গঠন করে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, ঢাকা। বোর্ডের চেয়ারম্যানের আদেশক্রমে কলেজ পরিদর্শক প্রফেসর আবু তালেব মো. মোয়াজ্জেম হোসেন স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে (স্মারক নং ৬১৮/ক/স্বী:/৯৫/(অংশ-১)৩৩৪) এ তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। এর আগে স্কুলটির অধ্যক্ষ ও পরিচালনা কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে ব্যাপক দুর্নীতি, অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ করেন সহকারি সিনিয়র শিক্ষক ফরিদা ইয়াসমিন।


অভিযোগে জানা যায়, বর্ণমালা স্কুলে অবৈধভাবে পরিচালনা কমিটি গঠন, ঘুষের বিনিময়ে শিক্ষক নিয়োগ, পদোন্নতি, জামায়াত সমর্থিত শিক্ষকদের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে পদায়ন, কোচিং বাণিজ্য, উন্নয়নের নামে লাখ লাখ টাকা লোপাট, ভূয়া ভাউচারে লাখ লাখ টাকা লোপাট, পরীক্ষা ও কোচিং বাণিজ্যসহ অধ্যক্ষ ও সভাপতির স্বেচ্ছাচারিতায় সাধারণ শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা অতিষ্ঠ। বিদ্যালয়ের ফান্ডের কোটি কোটি লোপট করে ইতোমধ্যে অধ্যক্ষসহ তার অনুসারীরা কোটি কোটি টাকা সম্পদের মালিক এবং সভাপতি শত কোটি টাকার মালিক হয়েছেন।


এসব বিষয়ে প্রতিবাদ করতে গেলেই শিক্ষকদের উপর নানাভাবে নির্যাতন চালানো হয়। কয়েকজন অভিভাবক বলেন, এক যুগেরও বেশি সময় ধরে একজন ব্যক্তিই সভাপতির দায়িত্ব পাওয়ায় দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতা মাত্রা ছাড়িয়ে গেছে। শিক্ষকরা নির্যাতিত হচ্ছে। অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। আমরা নির্বাচিত প্রতিনিধি চাই।


আরও খবর



কর্তৃপক্ষের দাবি লাফিয়ে আত্মহত্যা

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাদ থেকে পড়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু

প্রকাশিত:Thursday ১৯ May ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ৭৯জন দেখেছেন
Image

নাজমুল হাসানঃ

রাজধানীর গ্রিনরোডে এশিয়া প্যাসিফিক ইউনিভার্সিটির সাততলা থেকে পড়ে ইমাম হোসেন (২৩) নামে এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। 


সে লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে দাবি কর্তৃপক্ষের।


বৃহস্পতিবার (১৯ মে) সকাল আটটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।  


মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ইমাম হোসেনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে চিকিৎসক সকাল দশটায় তাকে মৃত ঘোষণা করেন।


নিহত শিক্ষার্থীর বাড়ি ভোলা লালমোহন উপজেলায়। নিহতের বাবার নাম আক্তার হোসেন।


কয়েকজন শিক্ষার্থীর সঙ্গে ৯৮নং পূর্ব রাজাবাজারে একটি মেসে থাকতেন। ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন তিনি।


 বৃহস্পতিবার সকালে তার তৃতীয় বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষা ছিল।


বিশ্ববিদ্যালয়টির এ্যাসিস্টেন্ট অ্যাডমিন অফিসার ফয়সেলুজ্জামান জানান, সকালে তিনি যখন ভার্সিটিতে ঢুকছিলেন তখন শুনতে পান ভবন থেকে এক শিক্ষার্থী নিচে পড়ে গেছেন। সঙ্গে সঙ্গে তিনি তাকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতাল, পরে দ্রুত ঢাকা মেডিক্যাল নিয়ে যান। সেখানেই তার মৃত্যু হয়।


তিনি দাবি করেন, ভার্সিটির সিসিটিভি ক্যামেরায় দেখা গেছে ওই শিক্ষার্থী নয়তলা ভবনটির সাত তলা থেকে লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করেছেন।


 ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) মো. বাচ্চু মিয়ার মৃত্যু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।



আরও খবর