Logo
আজঃ বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

বাংলাদেশের বাজারে রিয়েলমির সি৬৭ স্মার্টফোন, চলছে ফ্ল্যাশ সেল অফার

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৩০জন দেখেছেন

Image

প্রযুক্তি ডেস্ক:সাময়িক বিরতির পর স্মার্টফোনের বাজারে নতুন এক চমক নিয়ে হাজির হলো স্মার্টফোন ব্র্যান্ড রিয়েলমি। সি-সিরিজের নতুন সি৬৭ ডিভাইস বাজারে এনে স্মার্টফোনের গুণমানকেই বদলে দিয়েছে তরুণদের জনপ্রিয় এ স্মার্টফোন ব্র্যান্ড। এই ডিভাইসটিতে রয়েছে ১০৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা ও স্ন্যাপড্রাগন ৬৮৫ ৬এনএম চিপসেট। মাত্র ২২,৯৯৯ টাকার আকর্ষণীয় মূল্যের রিয়েলমি’র এ মুঠোফোনটি সিরিজের সবচেয়ে উন্নত প্রযুক্তির স্মার্টফোন।

বিশ্বজুড়ে সি-সিরিজের ১০০ মিলিয়নেরও বেশি ফোন বাজারে ছাড়ার পর এই নতুন মডেলটি চালু করেছে রিয়েলমি। এর ক্যামেরায় রয়েছে সেগমেন্টের প্রথম শক্তিশালী ইন-সেন্সর জুম এবং শক্তিশালী স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসর, যা একটি মানসম্মত ইউজার এক্সপেরিয়েন্স প্রদানের মাধ্যমে স্মার্টফোন ইন্ডাস্ট্রিতে একটি মাইলফলক স্থাপন করবে।

সেগমেন্টের প্রথম ১০৮ মেগাপিক্সেল কোয়ালিটি ক্যামেরার রিয়েলমি সি৬৭ সিরিজটি স্মার্টফোন ফটোগ্রাফির ক্ষেত্রে এক নতুন মানদণ্ড স্থাপন করেছে। ডিভাইসটির মাধ্যমে চমৎকার ছবি তোলা বা ভিডিও করা সম্ভব, যা প্রতিযোগী স্মার্টফোনগুলোর ৫০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার তুলনায় স্পষ্টতই উন্নতমানের। এ সেগমেন্টের ক্যামেরায় সর্বোচ্চ পিক্সেল ব্যবহার করা হয়েছে, যেখানে প্রতিটি পিক্সেল ছবি প্রসেসিংয়ের পাশাপাশি ক্রিস্টালের মতো স্বচ্ছ ছবি তোলারও কাজ করে।

ফটোগ্রাফিক দক্ষতার পাশাপাশি রিয়েলমি সি৬৭ সিরিজে রয়েছে ৩এক্স ইন-সেন্সর জুম। সি-সিরিজে এই প্রথমবারের মতো এমন উন্নত ক্যামেরা প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। বৈচিত্র্যময় ছবি তোলার ক্ষেত্রে এ সেন্সর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

রিয়েলমি সি৬৭ ডিভাইসের মাধ্যমে সি-সিরিজের ক্ষেত্রে এবারই প্রথম স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসরের অসাধারণ পারফরম্যান্সের সাক্ষী হবেন রিয়েলমি প্রেমীরা। গ্রাহকদের নেক্সট-লেভেলের পাওয়ারসহ দক্ষতা ও নির্ভরযোগ্যতার অনন্য অভিজ্ঞতা দিতে এ ফোনে রয়েছে স্ন্যাপড্রাগন ৬৮৫ ৬এনএম চিপসেট। এর ৩৩০কে এরও বেশি শক্তিশালী স্কোর সমৃদ্ধ চিপসেট দারুণ অভিজ্ঞতার পাশাপাশি স্মার্টফোন ব্যবহারকারীকে দিচ্ছে নির্ভরযোগ্য পারফরম্যান্সের গ্যারান্টি! সিপিইউ-তে ১৫ শতাংশ বুস্টিং পারফরম্যান্স, জিপিইউ এর ক্ষেত্রে বাড়তি ১০ শতাংশ পারফরম্যান্স এবং মূল ফ্রিকোয়েন্সিতে ২.৮ গিগা হার্টজের অনন্য সমন্বয় ফোনপ্রেমীদের দেয় মাল্টি-টাস্কিং ও গেমিংয়ের জন্য নির্ভরযোগ্যতার প্রতিশ্রুতি।

রিয়েলমি’র সি৬৭ সিরিজটিতে রয়েছে সেগমেন্টের সবচেয়ে উজ্জ্বল ৯৫০ নিট ডিসপ্লে, যা যে কোনো ছবি বা ভিডিও দেখার ক্ষেত্রে অত্যাশ্চর্য ভিজ্যুয়াল প্রদান করে। এমনকি সরাসরি সূর্যের আলোতেও স্পষ্টভাবে কন্টেন্ট দেখার গ্যারান্টি দেয় এই ডিসপ্লে। স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের একটি গুণগত অভিজ্ঞতা প্রদানে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ রিয়েলমি। এই প্রতিশ্রুতি প্রদর্শনের অংশ হিসেবে, ডায়নামিক নচ ‘মিনি ক্যাপসুল ২.০’ তরুণ স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের সুবিধার্থে যোগ করেছে ইন্টারেক্টিভ সফটওয়্যার ফাংশন।

এ সেগমেন্টের মধ্যে রিয়েলমি সি৬৭ ডিভাইসটিই প্রথম, যা এর স্ক্রিন প্লাস্টিক ব্র্যাকেট সরাতে সক্ষম। এতে এমন একটি ডিজাইন করা ফিচার ব্যবহার করা হয়েছে, যা কাঠামোগতভাবে জটিল হওয়ায় সাধারণত হাই-এন্ড ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইসগুলোর জন্য সংরক্ষণ করা হয়। এছাড়াও, এ স্মার্টফোনে রয়েছে ৮ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি রমের অনন্য সুবিধা। একদিকে ফোনের কার্যক্রম সুন্দরভাবে সম্পন্ন করতে সেরা পারফরম্যান্স দেবে এই ৮ জিবি র‌্যাম, অন্যদিকে দুশ্চিন্তার হাত থেকে রেহাই দিয়ে স্মার্টফোনপ্রেমীদের প্রচুর স্টোরেজ সুবিধা প্রদান করবে ১২৮ জিবি রম। 

সানি ওয়েসিস ও ব্ল্যাক রক- দুটি অসাধারণ রঙে পাওয়া যাচ্ছে রিয়েলমি সি৬৭ সিরিজটি। পাশাপাশি এর বডি মাত্র ৭.৫৯ মিলিমিটারের, যা সেগমেন্টের সবচেয়ে পাতলা বডির ফোন।

(https://cutt.ly/PreBookC67) -এই লিঙ্কটি ব্যবহার করে প্রি-বুকিং দিয়ে গ্রাহকরা রিয়েলমি সি৬৭ স্মার্টফোনটি কেনার অনন্য সুযোগ লুফে নিতে পারেন। অথবা আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ পর্যন্ত রিয়েলমি’র যে কোনো অনুমোদিত স্টোরেও এ স্মার্টফোনের প্রি-বুকিং দিতে পারেন। এছাড়া, গ্রাহকরা তাদের প্রিয়জনকেও উপহার দিতে পারেন এ অসাধারণ ফিচার সমৃদ্ধ স্মার্টফোনটি। তাই গ্রাহকদের এ অনন্য সুযোগ প্রদান করতে অনলাইনে পণ্য কেনাকাটার প্ল্যাটফর্ম দারাজে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টা থেকে দিনব্যাপী একটি স্পেশাল ফ্ল্যাশ সেল অফার দিচ্ছে এ স্মার্টফোন প্রযুক্তি ব্র্যান্ড। এই ফ্ল্যাশ সেলের মাধ্যমে রিয়েলমি সি৬৭ সিরিজটিকে ভ্যালেন্টাইন’স ডে’র সেরা উপহার হিসেবে উপস্থাপন করা হয়েছে যেখানে মূল্যছাড়সহ ২১,৬৯৯ টাকায় পাওয়া যাবে এ ফোনটি। এছাড়াও ০% ইএমআই সুবিধা, এক্সপ্রেস ডেলিভারি এবং অরিজিনাল ব্র্যান্ড ওয়ারেন্টি সুবিধাতো থাকছেই।


আরও খবর



মজুত রেখে রেখে দাম বাড়িয়ে দেওয়া লোকদের গণধোলাই দেওয়া উচিত: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৭১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মন্তব্য করেছেন, জিনিস মজুত রেখে বা লুকিয়ে রেখে দাম বাড়িয়ে দেওয়া লোকদের গণধোলাই দেওয়া উচিত বলে । শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) গণভবনে জার্মানি সফর পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

সকাল ১০টার পর প্রধানমন্ত্রীর স্পিচ রাইটার নজরুল ইসলামের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলন শুরু হয়। এতে দেশি বিদেশি গণমাধ্যমের প্রতিনিধিরা অংশ নিয়েছেন। যথারীতি লিখিত বক্তব্যের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দেন প্রধানমন্ত্রী।

লিখিত বক্তব্যের পর প্রথমে প্রশ্ন করেন সাংবাদিক মনজুরুল ইসলাম বুলবুল। তিনি টানা চতুর্থ ও পঞ্চমবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হওয়ায় অভিনন্দন জানান। পাশাপাশি ১১জন গণমাধ্যম সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে সংসদ সদস্য পদে মনোনয়ন দেওয়ায় ধন্যবাদ জানান।

পরে আরেক উত্তরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, যেহেতু সংসদ সদস্য করার সুযোগ পেয়েছি। সব শ্রেণিপেশার মানুষকে আনার চেষ্টা করেছি। সংসদে কী হয়, সেগুলো সবার জানা ও দেখা দরকার।

দুর্ভিক্ষ নিয়ে প্রশ্নোত্তরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ষড়যন্ত্র ছিল। ষড়যন্ত্র তো আছেই। ষড়যন্ত্র প্রত্যেকবারই হচ্ছে। বার বার করেছে। নির্বাচন যাতে না হয়, বিরাট চক্রান্ত ছিল। ২৮ অক্টোবরের ঘটনা আপনারা জানেন। এগুলো হঠাৎ করে নয়, পরিকল্পিতভাবে করেছে। নির্বাচন যখন বানচাল করতে পারবে না, বুঝে গেছে। মানুষের স্বতঃস্ফূর্ততা ছিল। তাই তারা পরিকল্পনা করেছে, দ্রব্যমূল্য বাড়বে আর তারা আন্দোলন করবে।

তিনি বলেন, ডিম লুকিয়ে রেখে দাম বাড়ানোর কথা তো আপনিই বললেন। আপনার কি মনে হয় না, যারা সরকার উৎখাতে আন্দোলন করে তাদেরও এখানে কারসাজি আছে? এর আগে দেখলাম পেঁয়াজের খুব অভাব। পরে দেখা গেলো বস্তাকে বস্তা পেঁয়াজ পানিতে ফেলে দিচ্ছে। এ লোকগুলোকে কী করা উচিত, সেটা আপনারাই বলেন। এদের-তো গণধোলাই দেওয়া উচিত। কারণ আমরা সরকার কিছু করলে বলবে, সরকার করেছে। পাবলিক যদি প্রতিকার করে, তাহলে সব থেকে ভালো, কেউ কিছু বলবে না।


আরও খবর



সোনার খনি ধসে ভেনেজুয়েলায় নিহত ২৩

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৫৩জন দেখেছেন

Image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:সোনার খনি ধসে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ভেনেজুয়েলায় অন্তত ২৩ জন নিহত হয়েছেন। দুর্ঘটনার সময় সেখানে ২০০ জন শ্রমিক কাজ করছিল।

বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভেনেজুয়েলার মধ্যাঞ্চলে বেআইনিভাবে পরিচালিত একটি সোনার খনিতে মাটির দেয়াল ধসে পড়ার পর অন্তত ২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। দুর্ঘটনার সময় সেখানে বহু মানুষ কাজ করছিলেন।

স্থানীয় কর্মকর্তা ইওরগি আর্কিনিগা বুধবার বার্তাসংস্থা এএফপিকে বলেছেন, দেশের বলিভার প্রদেশের জঙ্গলে বুল্লা লোকা নামে পরিচিত খোলা গর্ত থেকে প্রায় ২৩টি মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার এই দুর্ঘটনা ঘটে।

বেসামরিক নিরাপত্তা উপমন্ত্রী কার্লোস পেরেজ অ্যাম্পুয়েদা সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এক্সে এই ঘটনার একটি ভিডিও প্রকাশ করেছেন এবং ধসের ঘটনায় নিহতের সংখ্যাকে ‘বিশাল’ বলে উল্লেখ করেছেন। যদিও তিনি নিহতের কোনও সংখ্যা উল্লেখ করেননি।

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, একটি উন্মুক্ত খনির অগভীর পানিতে কর্মরত লোকদের ওপর ধীরে ধীরে মাটির একটি প্রাচীর ভেঙে পড়ছে। কেউ কেউ ঘটনার সময় সেথান থেকে পালাতে সক্ষম হলেও অনেকে আবার তাতে চাপা পড়েন।

কর্মকর্তাদের মতে, প্রায় ২০০ জন লোক সেসময় খনিতে কাজ করছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। যেখানে এই খনিটি অবস্থিত সেখানে পৌঁছাতে হলে নিকটতম শহর লা প্যারাগুয়া থেকে সাত ঘণ্টার নৌকায় ভ্রমণ করতে হয়।

বলিভার প্রদেশের নাগরিক নিরাপত্তা বিষয়ক সেক্রেটারি এডগার কোলিনা রেয়েস বলেছেন, আহতদের আঞ্চলিক রাজধানী সিউদাদ বলিভারের একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এই অঞ্চলটি লা প্যারাগুয়া থেকে চার ঘণ্টা দূরত্বে এবং রাজধানী কারাকাসের ৭৫০ কিলোমিটার (৪৬০ মাইল) দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত।

রেয়েস বলেছেন, পরিস্থিতি বিবেচনা করে সামরিক, দমকল বাহিনী এবং অন্যান্য সংস্থাগুলো ‘আকাশপথে ওই এলাকায় চলে যাচ্ছে’। তিনি বলেন, অনুসন্ধানে সহায়তার জন্য কারাকাস থেকে উদ্ধারকারী দলও পাঠানো হচ্ছে।

আল জাজিরা বলছে, বলিভার অঞ্চল সোনা, হীরা, লোহা, বক্সাইট, কোয়ার্টজ এবং কোল্টান সমৃদ্ধ। রাষ্ট্রীয় খনি ছাড়াও এই অঞ্চলে অবৈধভাবে এসব মূল্যবান ধাতু উত্তোলনের বিকাশমান শিল্পও রয়েছে।

এর আগে গত বছরের ডিসেম্বরে একই অঞ্চলের ইকাবারুর আদিবাসী সম্প্রদায়ের একটি খনি ধসে কমপক্ষে ১২ জন নিহত হয়েছিল।


আরও খবর



মাগুরা আওয়ামী লীগের শান্তি উন্নয়ন ও গনতন্ত্র শোভা যাত্রা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৯৬জন দেখেছেন

Image

স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:মাগুরা জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে মঙ্গলবার সকালে শহরে শান্তি উন্নয়ন ও গনতন্ত্র শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। শহরে শোভাযাত্রা শেষে স্থানীয় সেগুন বাগিচায় সমাবেশে সভাপতিত্ব করেণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আফম আব্দুল ফাত্তাহ। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ কুমার কুন্ডু, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আবু নাসির বাবলু, যুগ্ম সম্পাদক রানা আমীর ওসমান, মকবুল হোসেন মাকুল, আব্দুল মান্নান, সংসদ সদস্য সাকিব আল হাসানের পিতা খোন্দকার মাশরুর রেজা কুটিল প্রমুখ।  


আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




জয়পুরহাটে মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশ সুপার কাপ ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতা

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৮৭জন দেখেছেন

Image
এস এম শফিকুল ইসলাম,জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃমাদকের বিরুদ্ধে  জয়পুরহাটে পুলিশ সুপার কাপ ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারী) সকালে ক্ষেতলাল উপজেলার বটতলি ব্রিজ থেকে দৌড় শুরু হয়ে কালেক্টরেট মাঠে এসে শেষ হয়। প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক  মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মামুন খান চিশতি। জেলা পুলিশের আয়োজনে এবং জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহযোগিতায় কিং কুইন জিম এই প্রতিযোগিতা বাস্তবায়ন করে। 
 
দৌড় শেষে পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন সংসদ সদস্য এড সামছুল আলম দুদু। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মামুন খান চিশতির সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য দেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম সোলায়মান আলী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আরিফুর রহমান রকেট, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সম্পাদক মাহবুব মোরশেদ লেবু প্রমুখ।

পাবনা জেলার ইমরান হোসেন, জয়পুরহাটের আহসান হাবিব ও নীলফামারী জেলার শ্যামল চন্দ্র রায় যথাক্রমে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় হয়েছে। খেলায় দেশের বিভিন্ন জেলায মোট ১৫০ জন দৌড়বিদ অংশ নেন।

আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ডোমার আইডিয়াল একাডেমীতে নতুন ছাত্র/ছাত্রী ও অবিভাবক নিয়ে সমাবেশ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৭০জন দেখেছেন

Image

ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি:নীলফামারীর ডোমারে দীর্ঘ ২১ বছরের সফল সুনামধণ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আইডিয়াল একাডেমীতে নতুন ছাত্র/ছাত্রী ও অবিভাবকদের নিয়ে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৮ফেব্রুয়ারী) সকাল ১০টায় বিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সহকারী শিক্ষক মাহবুব আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপত্বি করেন উক্ত প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ মাওঃ মোসলেহুদ্দীন শাহ্ধসঢ়;।এসময় অভিভাবক আব্দুল কাইয়ুম, নাসরিন সুলতানা, সহকারী অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ, সহকারী শিক্ষক ইসমো তারা, হাসমিন আরা হাসি, জয়নুল আবেদীন, সিদ্দিকুর রহমান, মাসুমা আক্তার প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ে সকল শিক্ষক, ছাত্র/ছাত্রী ও অভিভাবকগণ উপস্থিত ছিলেন। উল্ল্যেখ- ২০০৩ সালে ডোমার আইডিয়াল একাডেমী নামক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি প্লে-থেকে পঞ্চম শ্রেনী পর্যন্ত পাঠদান শুরু করে। হাটি হাটি পা-পা করে বর্তমানে প্লে-থেকে দশম শ্রেনী পর্যন্ত বাংলা, ইংরেজী, অংকের পাশাপাশী আরবী শিক্ষা প্রদান করে বিদ্যালয়টি এলাকায় ব্যপক সুনাম অর্জন করেছে। শিক্ষার্থীদের মেধাবী হিসাবে গড়ে তুলতে অভিভাবকদের পাশাপাশী সকল শিক্ষকদের পরামর্শ প্রদান করেন প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ মাওঃ মোসলেহুদ্দীন শাহ্ধসঢ়;।


আরও খবর