Logo
আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪
শিরোনাম

বাংলাদেশ ১০ উইকেটে জিতে হোয়াইটওয়াশ এড়াল

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১২৩জন দেখেছেন

Image

স্পোর্টস ডেস্ক:বাংলাদেশ ১০ উইকেটের দাপুটে জয় পেয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে। এ জয়ে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার হাত থেকেও বাঁচলো টাইগাররা।

আজ শনিবার হিউস্টনে বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় ম্যাচটি শুরু হয়। যেখানে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন টাইগার অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। প্রথমে ব্যাট করা যুক্তরাষ্ট্রকে ১০৪ রানে গুটিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। মোস্তাফিজুর রহমান একাই ৬ উইকেট নিয়েছেন। জবাবে তানজিদ হাসান ও সৌম্য সরকারের অন্যবদ্য ব্যাটিংয়ে বিনা উইকেটে ১১.৪ ওভারে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় সফরকারীরা।

১০৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে তানজিদের ফিফটি ও সৌম্যর ঝড়ো ব্যাটিংয়ে সহজ জয় পায় বাংলাদেশ। তানজিদ ৪২ বলে ৫টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৫৮ রান করে অপরাজিত থাকেন। সৌম্য ২৮ বলে ৪টি চার ও ২টি ছক্কায় ৪৩ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেন।

এর আগে প্রথমে ব্যাট করা যুক্তরাষ্ট্র অবশ্য শুরুটা ভালো করে। ৫ ওভারে দুই ওপেনার শায়ান জাহাঙ্গির ও আন্ড্রিয়াস গোউস ৪৬ রান তোলেন। তবে এরপর মোস্তাফিজের তোপে আসা-যাওয়ার মিছিলে ব্যস্ত হয় স্বাগতিকরা। গোউস সর্বোচ্চ ১৫ বলে ২৭ রান করেন। ১৮ রান করে করেন শায়ান ও কোরে অ্যান্ডারসন।

বাংলাদেশ বোলারদের মধ্যে মোস্তাফিজ মাত্র ৪ ওভারে ১০ রানের বিনিময়ে ৬টি উইকেট নেন। একটি করে উইকেট পান তানজিম সাকিব, সাকিব আল হাসান ও রিশাদ হোসেন।

এর আগে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৫ উইকেটে হারার পর দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ৬ রানে হেরে যায় বাংলাদেশ।


আরও খবর

মেট্রোরেল ঈদের দিন বন্ধ থাকবে

বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪




বাকেরগঞ্জে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী ২৮ বছর পর গ্রেফতার

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১০৪জন দেখেছেন

Image
রবিউল ইসলাম বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি:বরিশালের বাকেরগঞ্জে হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত এক আসামিকে প্রায় ২৮ বছর পর গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ।

সোমবার (১৪ মে) রাতে পটুয়াখালী জেলার রাঙ্গাবালি উপজেলার বড়বাসদিয়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত আনোয়ার হোসেন খান উপজেলার ভরপাশা ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের কৃষ্ণকাঠী গ্রামের মৃত গিয়াস খানের ছেলে।

বাকেরগঞ্জে থানার ওসি মোঃ আফজাল হোসেন জানান, গ্রেফতারকৃত আনোয়ার ১৯৯৬ সালে উপজেলার এক‌ই গ্রামের বাসিন্দা আসমান খান নামে এক ব্যক্তিকে হত্যা করে। এ ঘটনায় আসমান খানের ছেলে হানিফ খান বাদী হয়ে বাকেরগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই হত্যা মামলার প্রধান আসামি আনোয়ার হোসেন ছিলেন। ২০০১ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর বরিশাল অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ আদালতে তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়। হত্যার পর থেকেই আসামি আনোয়ার হোসেন পলাতক ছিলেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে গ্রেপ্তার করে মঙ্গলবার সকালে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আরও খবর



সৈয়দপুরে ভ্যাপসা গরমে কদর বেড়েছে তাল শাসের

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১০২জন দেখেছেন

Image

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:ভ্যাপসা গরমে সৈয়দপুরের জনজীবন অতিষ্ট হয়ে পড়েছে। একারনে গ্রীষ্মের গরমে অতিষ্ঠ মানুষের কাছে তাল শাঁসের কদর ক্রমেই বাড়ছে। এ তাল শাসের কদর শুধু শহরেই নয়, গ্রামগন্জের হাটবাজারেও ব্যাপক কদর বাড়ার চিত্র চোখে পড়ে।

উপজেলা শহরের জিআরপি মোড়,রেলওয়ে স্টেশন, পোষ্ট অফিসের সামনে ১ নং রেলগেট,সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে এ তালের শাঁস বিক্রি হতে দেখা যায় । এছাড়া উপজেলার গ্রামগন্জে সহ বিভিন্ন স্থানে এ তালের শাঁস বিক্রি হচ্ছে।

সৈয়দপুর শহরে তালের শাঁস বিক্রি করতে আশা পার্বতীপুরের আলী হোসেন জানান, ৩/৪ দিন ধরে আবারো প্রচন্ড গরমের প্রভাব পড়েছে। শহর ও গ্রামগন্জের সব শ্রেনীর মানুষ  গরমে অতিষ্ট হয়ে পড়েছে।তারা ভ্যাপসা গরম নিবারণে তালের শাঁস ও বিভিন্ন রকমের শরবতসহ ঠান্ডা জাতীয় খাদ্য সামগ্রীর খাচ্ছেন ।  ক্লান্ত শরীরে তালের শাঁসসহ ঠান্ডা জাতীয় খাদ্য সামগ্রী পান করছে পথচারীরাও। বিশেষ করে তালের শাঁসের কদর বাড়ছে অনেক বেশি।

তিনি বলেন জয়পুরহাট ও যশোর সহ বিভিন্ন অঞ্চল থেকে পাইকারি দরে কচি তাল কিনে আনছি এবং সেগুলি শহর ও গ্রামঞ্চলের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করছি। গাছিদের কাছ থেকে নিয়ে আসা প্রতিটি তালের দাম পড়ে ১৬ টাকা। একেকটি তালের  শাস হয় ৪ টি। ৪ টি শাস বিক্রি করছি ৩০ থেকে ৪০ টাকায় ।তাল শাঁস বিক্রয়ের লাভ বেশি হলেও ২ মাসের বেশি এ ব্যবসা চলে না। তাছাড়া গরম না পড়লে এ তাল শাঁস কেউই খেতে চায় না। 

এ বিষয়ে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ওয়াসিম বারি জয় বলেন তালের শাঁস শুধু সুস্বাদুই নয়, তাল শাসে অবিশ্বাস্য পুষ্টিগুণ রয়েছে। উপকারীতাও রয়েছে পর্যাপ্ত । তালশাঁস মানবদেহকে শিথিল রাখে। একই সাথে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় বলে জানান তিনি। 


আরও খবর



কোরবানির পশু কাটার জন্য সৈয়দপুরের কসাই ঢাকা যাওয়ার প্রস্তুতি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৩৮জন দেখেছেন

Image

জহুরুল ইসলাম খোকন সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:ঈদ উল আজহায় কোরবানির পশু কাটার জন্য সৈয়দপুর থেকে শতাধিক কসাই ঢাকা যাওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছেন।ট্রেন ও বাসে করে এযাবৎ অর্ধশতাধিক কসাই ঢাকা পৌঁছেছেন। কোরবানির তিন দিনে অন্তত ২০ লাখ টাকাও বেশি আয় করবেন বলে জানিয়েছেন তারা।

কসাইরা জানান, কুরবানী ঈদ এর মাস খানিক আগেই ঢাকার অনেকেই সৈয়দপুরের কসাই বুকিং দিয়ে রেখেছেন। একারনে ঈদের ২/৩ দিন আগেই ঢাকায় সব কসাইকে পৌঁছাতে হবে।কন্ট্রাক হয়েছে হাজারে ৩০০ টাকা দিতে হবে কসাইদের। সে হিসেবে এক লাখ টাকার একটি গরুতে কসাইকে দিতে হবে ৩০ হাজার টাকা।

কাল্লু নামের এক কসাই জানান, এবারে শতাধিক কসাই ঈদে ঢাকায় গিয়ে কোরবানির পশুর মাংস কাটার কাজ করবেন। চারজন  করে একটি গ্রুপে পশু কাটার  কাজটি করবেন তারা। তিনদিনে একেকটি গ্রুপ কমপক্ষে ১৬টি গরু কাটতে পারবেন। এতে করে একেকটি গ্রুপ ৪ লাখ টাকা আয় করতে পারবেন।

মজ্নু নামের অপর এক কসাই জানান,১৫ জুন রাতে বাসে করে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিবেন। অনেকে  আবার ১৬ জুন সকালে যাবেন ঢাকায়। কেউ কেউ ঈদের আগের দিন রাতে বিমানে ঢাকায় পৌঁছাবেন।

নাদের এন্টারপ্রাইজ এর সুপারভাইজার আলমগীর বলেন, আমার কাছে ১৫-২০ জন কসাই ঢাকা যাওয়ার জন্য টিকেট চেয়েছেন। এদের মধ্যে কেউ কেউ টিকেট নিয়ে গেছেন। সৈয়দপুর থেকে অনেক কসাই ঈদের আগের দিন বিমানযোগে ঢাকায় যাবেন বলে জানান বিমানের টিকেট বিক্রেতারা ।

রাজধানীর উত্তরায় থাকেন তারেক নামের এক অবসর প্রাপ্ত বিমান কর্মকর্তা। চাকরির সুবাদে তিনি সৈয়দপুরে ছিলেন দীর্ঘদিন। একারনে এশহরের অনেকেই তাঁর পরিচিত। ঈদে কুরবানির মাংস কাটতে মোবাইলে সৈয়দপুরের একজন কসাইয়ের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে তার। ঈদের দিন সকালে উত্তরার বাসায় গিয়ে কোরবানির গরুর মাংস কাটতে হবে। বিনিময়ে ২০ হাজার টাকা নিবেন কসাইকে।

সৈয়দপুর কসাই সমিতির সভাপতি মোঃ নাদিম ওরফে ছোটুয়া বলেন, ঢাকার মানুষরা তাদের কুরবানির পশু কাটাতে হাজারে ৩০০ টাকা দেয়ার কারনে ঈদের আগে কসাই শুন্য হয়ে যাবে সৈয়দপুর। এশহরের মানুষ তাদের পশু কার দ্বারা কাটবেন বুঝতে পারছি না। সৈয়দপুরের মানুষ যদি হাজারে ১৫০ টাকা মাংস কাটা বাবদ দিতেন তাহলে অর্ধেক কসাই ঢাকায় যেতো না। তিনি আরো বলেন, কসাইদের ও উচিত ঈদের শুধু নিজের স্বার্থ না দেখে সৈয়দপুর বাসীর পাশে থাকা। নিজের স্বার্থ হাসিল করতে সৈয়দপুর বাসীকে বিপদে ফেলে ঢাকায় যাওয়া ঠিক হচ্ছে না বলে জানান তিনি। 


আরও খবর



মাগুরায় মহানবী (সাঃ)কে কুটুক্তি করায় দুটি বাড়িতে আগুন সংঘর্ষে পুলিশ ও সাংবাদিকসহ আহত অর্ধশতাধিক

প্রকাশিত:সোমবার ২০ মে ২০24 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১৩০জন দেখেছেন

Image
স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:ফেসবুকে বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ সাঃকে নিয়ে কটুক্তি করায় মাগুরা শ্রীপুরের রামচন্দ্রপুর গ্রামে দুটি হিন্দু পরিবারের বসতঘরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে স্থানীয় বিক্ষুব্ধ জনতা। এ সময় পুলিশের সঙ্গে বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসীর সঙ্গে দফায় দফায় ধাওয়া পালটা ধাওয়া এবং গুলি বর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এতে  পুলিশ ও সাংবাদিকসহ অর্ধশতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছে বলে জানা গেছে 

এলাকাবাসী জানায়, শ্রীপুর উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের রবীন্দ্রনাথ মণ্ডলের ছেলে জয়ন্ত কুমার মণ্ডল শনিবার সকালে নিজের ব্যবহৃত ফেসবুক একাউন্ট থেকে তার এক বন্ধুর ওয়ালে বিশ্ব নবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে কটুক্তি করে একটি কমেন্ট পোস্ট করে। এ ঘটনার পর ১৯ মে  রবিবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে ওই গ্রামের কয়েকজন যুবক জয়ন্ত মন্ডলকে বাড়ি থেকে ধরে মারধর করে কোদলা গ্রামে আটকে রাখে। বিষয়টি জানতে পেরে শ্রীপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে জয়ন্ত মন্ডলকে উদ্ধারের চেষ্টা চালায়। এ সময় গ্রামের বিক্ষুব্ধ জনতা জড়ো হয়ে পুলিশকে ঘেরাও করে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে। পুলিশও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে হামলাকারীদের লক্ষ করে রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। উভয় পক্ষের মধ্যে চলা সংঘর্ষে পুলিশের পাশাপাশি রামচন্দ্রপুর গ্রামের শিশু ও নারী পুরুষ সাংবাদিকসহ অর্ধ শতাধিক কমবেশি আহত হয়। তাদেরকে মাগুরা ও ফরিদপুরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে মাগুরা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ কলিমুল্লাহ। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ক্রাইম মোবাশ্বের হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সার্কেল দেবাশীষ কর্মকার,  শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছাঃ মমতাজ মহল, উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত  চেয়ারম্যান শরিয়াত উল্লাহ হোসেন মিয়া রাজন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে শান্ত করে কটুক্তিকারী যুবক জয়ন্ত মন্ডলকে উদ্ধার করে থানায় পাঠিয়ে দেয়। এসময় আবার উত্তেজিত এলাকাবাসী জয়ন্ত মন্ডলের বাড়ি এবং প্রতিবেশী মহিন্দ্রি মন্ডলের বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

এ ব্যাপারে মাগুরার পুলিশ সুপার মশিউদ্দৌলা রেজা বলেন, ফেসবুকে কটুক্তিকারী যুবককে গ্রামের মধ্যে আটক করে মারধর করা হচ্ছে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে উত্তেজিত এলাকাবাসী পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশের পক্ষ থেকে ফাঁকা কয়েক রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করা হয়েছে। পরে ওই যুবককে আটক করে থানায় নেওয়া হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

আরও খবর



৫% মুক্তিযোদ্ধা কোটা/বিনাবেতনে অধ্যয়নে সব বেসরকারি কলেজে চিঠি দিলেন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রজন্ম সভাপতি তুষার

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১৩৩জন দেখেছেন

Image

কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধিঃনটরডেম, আদমজী ও ভিকারুননিসা-সহ সব বেসরকারি কলেজে মুক্তিযোদ্ধা কোটা অনুসরণ করাতে চায় মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রজন্ম, কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের সভাপতি অহিদুল ইসলাম তুষার। এজন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি নীতিমালা-২০২৪ অনুযায়ী চলতি শিক্ষাবর্ষ থেকে যথাযথ ভাবে ৫% মুক্তিযোদ্ধা কোটা অনুসরণ এবং শিক্ষা ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পরিপত্র বা আদেশ অনুযায়ী ভর্তিকৃত মুক্তিযোদ্ধা কোটার প্রার্থীদের বিনাবেতনে অধ্যয়নের বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে প্রাথমিক ভাবে দেশসেরা নিম্নোক্ত ১৫ বেসরকারি নটরডেম কলেজ,আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজ, ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজ,হলি ক্রস কলেজ, সেন্ট যোসেফ হায়ার সেকেন্ডারি স্কুল, রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ, মাইলস্টোন কলেজ, আইডিয়াল কলেজ,নৌবাহিনী কলেজ, ন্যাশনাল আইডিয়াল কলেজ,ঢাকা সিটি কলেজ,বিএএফ শাহীন কলেজ,নটরডেম কলেজ ময়মনসিংহ, শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজ,ময়মনসিংহকে ২৩ মে ২০২৪ ইং বৃহস্পতিবার চিঠি দেন “মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রজন্ম, কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের সভাপতি অহিদুল ইসলাম তুষার”।

 তিনি সাংবাদিকদের বলেন, চলতি শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ৫% মুক্তিযোদ্ধা কোটা অনুসরণ এবং বিনা বেতনে অধ্যয়নের সুবিধা দিতে প্রাথমিক ভাবে ১৫টি বেসরকারি কলেজকে চিঠি দিয়ে অবহিত করেছি এবং পর্যায়ক্রমে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে দেওয়া হবে। যদি কর্তৃপক্ষ যথাযথ ভাবে ৫% মুক্তিযোদ্ধা কোটা অনুসরণ এবং বিনাবেতন অধ্যয়নের সুযোগ প্রদান না করে থাকে তাহলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে উক্ত প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে নিবন্ধন বাতিলের জন্য আবেদন করবো। অপর এক প্রশ্নের জবাবে অহিদুল ইসলাম তুষার বলেন, একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি নীতিমালা-২০২৪ এর ৩.২ অনুচ্ছেদে যথাযথ ভাবে সরকারি ও বেসরকারি কলেজে ৫% মুক্তিযোদ্ধা কোটা অনুসরণের কথা বলা হয়েছে এবং ২০০৫ সালে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ২০০৮/ ২০২৩ সালে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের একাদিক আদেশে ৫% কোটা ও বিনা বেতনে অধ্যয়নের কথা বলা হয়েছে কিন্তু দীর্ঘদিন ধরেই বেসরকারি স্কুল ও কলেজ কর্তৃপক্ষ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে সুযোগ সুবিধা দিতে অনিহা, তারা এ সংস্কৃতি থেকে অনেক দূরে। চলতি শিক্ষাবর্ষ থেকে একাদশ শ্রেণিতে ৫% মুক্তিযোদ্ধা কোটা যথাযথ ভাবে অনুসরণ করছে কিনা দেশের প্রতিটি জেলা - উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা / সন্তান ও প্রজন্মকে খোঁজ খবর রাখার অনুরোধ করেন অহিদুল ইসলাম তুষার এবং কোথাও যদি তার ব্যত্যয় ঘটে তাহলে মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী এবং শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মহোদয় বরাবর কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করার অনুরোধ করেন তিনি ।নিশ্চিত মৃত্যু জেনেও মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেওয়া বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের রাষ্ট্র প্রদত্ত সুবিধা দিতে অনিহা দুঃখজনক এবং রাষ্ট্রের আইনকানুন নীতিমালা না মেনে যেসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চলছে তাদের বিরুদ্ধে এবার লিখিত অভিযোগ দিবো , মি. অহিদুল ইসলাম তুষার যোগ করেন।

আরও খবর