Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

বাবা মার কবর জিয়ারত করে মনোনয়ন কিনতে ঢাকায়! গোলাম রাব্বানী

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ২৪৭জন দেখেছেন

Image

আব্দুস সবুর তানোর থেকে:বাবা মার কবরসহ গ্রামের কবরস্থান  জিয়ারত  করে মনোনয়ন কিনতে গেলেন ঢাকায় গোলাম রাব্বানী। তিনি রাজশাহী -১ ( তানোর-গোদাগাড়ী) আসনের মনোনয়ন কিনতে শনিবার  ঢাকার উদ্দেশ্য রওনা দিবেন বলে নিশ্চিত করেন রাব্বানী  । এর আগে গত শুক্রবার  রাব্বানী তার নিজ গ্রাম তানোর উপজেলার প্রকাশ নগর জামে মসজিদে জুম্মার নামাজ আদায় করে বাবা মায়ের কবরসহ গ্রামের প্রয়াত ব্যক্তিদের গোরস্থান  জিয়ারত করেন । এসময় মুন্ডুমালা পৌর মেয়র সাইদুর রহমান, উপজেলা আ"লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক রাকিবুল সরকার পাপুল, কামারগাঁ ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপির)  সাবেক চেয়ারম্যান মুসলেম উদ্দিন প্রামাণিক, তানোর পৌর যুবলীগের সাবেক সভাপতি রাজিব সরকার হিরোসহ বিপুল সংখ্যাক দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। 

জানা গেছে, গোলাম  রাব্বানী তানোর উপজেলা আ"লীগের সাবেক সভাপতি ও মুন্ডুমালা পৌরসভার দুবারের মেয়র এবং পাঁচন্দর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপির)  দুবারের চেয়ারম্যান ছিলেন। বিগত ২০১৮ সালে প্রথমবারের মত জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য মনোনয়ন  চেয়েছিলেন। কিন্তু পান নি। গত ২০২১ সালে রাব্বানী এমপি ভোট করার জন্য পৌরসভার নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেননি। রাব্বানীর পিতা প্রয়াত আলহাজ্ব  মাহাম পাঁচন্দর ইউপির চেয়ারম্যান ছিলেন। তাদের পরিবার আ"লীগের পরিবার। তার দাদাও ছিলেন পঞ্চায়েত প্রধান। ছাত্র জীবন থেকেই গোলাম রাব্বানী ছাত্র লীগ থেকে রাজনীতি শুরু করেন। প্রায় শত বছরের রাজনৈতিক পরিবার হিসেবে পরিচিত ও উপজেলার সম্ভ্রান্ত আ"লীগ পরিবারের সন্তান তিনি।দলীয় সুত্র জানায়, তৃনমুল থেকে উঠে আসা জনপ্রতিনিধি গোলাম রাব্বানী। বিগত ২০১৮ সালে তিনি মনোনায়ন চাইলেও মেয়র থাকার কারনে তাকে এমপি টিকিট দেয়া হয়নি বলে রাজনীতির মাঠে প্রচার রয়েছে। 

সিনিয়র নেতারা জানান,  উপজেলার প্রায় প্রতিটি ইউনিটের নেতাকর্মীরা গত শুক্রবার রাব্বানীর নিজ গ্রাম প্রকাশনগরে আসেন। জুম্মার নামাজ পর গ্রামবাসী ও দলীয় নেতাকর্মী থেকে শুরু করে আপামর জনগণের কাছে দোয়া চান।সাবেক কামারগাঁ ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপির)  চেয়ারম্যান মসলেম উদ্দিন প্রামাণিক বলেন, রাব্বানী একেবারেই তৃনমুল থেকে উঠে আসা একজন পরিক্ষিত বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক। দীর্ঘ দিন ধরে রাজনীতি করে আসছেন। গত ২০১৮ সালে জাতীয় নির্বাচনে এমপির টিকিট চেয়েছিলেন। কিন্তু মুন্ডুমালা পৌরসভার মেয়র থাকার কারনে তাকে টিকিট দেয়া হয়নি। শুধু মাত্র এমপির টিকিটের জন্য রাব্বানী পৌরসভার ভোট করেননি। তৃনমুল নেতাকর্মী থেকে শুরু করে আপামর তানোর গোদাগাড়ী বাসীর একটাই চাওয়া আগামী নির্বাচনে যেন ক্লীন ইমেজের এই নেতাকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়। কারন রাব্বানী পৌর ও ইউনিয়ন পরিষদের দুবার করে চারবারের জনপ্রতিনিধি ছিলেন। যেহেতু পরিক্ষিত ক্লীন ইমেজের নেতাদের মনোনায়ন দিবেন, সেদিক বিবেচনা করলে রাব্বানীর বিকল্প নাই বলে তিনি মনে করেন। তারপরও দেশরত্ন যাকেই নৌকা প্রতীক দিবেন তার হয়ে সবাই কাজ করবে।

সাবেক ছাত্র লীগ নেতা পাপুল সরকার বলেন, রাজনীতিতে শেষ কথা বলে কিছুই নেই। সবারই উপরে উঠার একটা ইচ্ছে থাকে। রাব্বানী তৃনমুল থেকে উঠে আসা একজন নেতা। তিনি যখন কোন সভা করেন শোনা মাত্রই শতশত নেতাকর্মী হাজির হন। দুই উপজেলায় রাব্বানীর ব্যাপক জনপ্রিয়তা রয়েছে। আমার দৃঢ় বিশ্বাস সবদিক বিবেচনা করলে রাব্বানীই যোগ্য প্রার্থী। তবে দেশরত্ন যাকেই নৌকা প্রতীক দিবেন আমরা সবাই তার হয়েই কাজ করব।

গোলাম রাব্বানী বলেন, শনিবার ঢাকার উদ্দেশ্য রওনা দিব। এর আগে গত শুক্রবার আমার নিজ গ্রামে দলীয় নেতাকর্মী থেকে শুরু করে আশপাশের কয়েক গ্রামের মানুষ কে নিয়ে মতবিনিময় ও দোয়া মাহফিল করা হয়। সেখানে উপজেলার আ"লীগ ও সহযোগী সংগঠনের প্রায় সব ইউনিটের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। আপনি মনোনয়নের ব্যাপারে কতটা আশাবাদী জানতে চাইলে তিনি জানান, বিগত ২০১৮ সালের নির্বাচনে মেয়র থাকার কারনে মনোনয়ন পায়নি। হাই কমান্ডের নির্দেশনায় মেয়রের ভোট করিনি। শুধু মাত্র এমপি ভোট করার জন্য। আমি মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে ৯৫% আশাবাদী। কোন কারনে যদি না পান সেক্ষেত্রে কি করবেন জানতে চাইলে তিনি জানান, দেশরত্ন যাকে নৌকা প্রতীক দিবেন তার হয়েই কাজ করব। কারন রক্তে লিখা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, সেখান থেকে ফিরে আসার উপায় নাই। তবে আমি খুবই আশাবাদী আমাকেই দলীয় মনোনয়ন দেয়া হবে বলেও দৃঢ় বিশ্বাস তার।

আরও খবর



দলদলিয়া গ্রামে খেলার মাঠ সংস্কারের জন্য সরকারের বিশেষ বরাদ্দর দাবি

প্রকাশিত:রবিবার ৩০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১১২জন দেখেছেন

Image

আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি:ফুলবাড়ী উপজেলা সংলগ্ন পার্বতীপুর উপজেলার হামিদপুর ইউনিয়নের দলদলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠটি খেলার উপযোগী করতে সরকারের বিশেষ বরাদ্দের দাবী জানান এলাকার যুব সমাজ।

এলাকার যুব সমাজের পক্ষে দলদলিয়া নাগরিক ফোরাম পার্বতীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর একটি আবেদন দেন।

আবেদনে তারা উল্লেখ করে বলেন এই ইউনিয়নের একমাত্র খেলার মাঠ দলদলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এর এই মাঠটি। পার্বতীপুর উপজেলার শেষ সীমানা ও ফুলবাড়ী উপজেলার শেষ সীমানা সংলগ্ন দলদলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি। অল্প বৃষ্টিতেই মাটিতে পানি জমা হয়ে খেলার অনুপোযোগী হয়ে যায়, এছাড়াও এলাকার লোকজন মাঠটি ধানের খড় রাখার চাতাল এবং উঠান হিসেবে ব্যবহার করে, মাঠের সাইড দিয়ে চলাচলের রাস্তা থাকলেও অনেকেই মাঠের মাঝখান দিয়ে চলাচলের রাস্তাও সৃষ্টি করেছে, যার ফলে মাঠটি দিন দিন খেলার অনুপোযোগী হয়ে যাচ্ছে। 

মাঠটি কে খেলার অনুপযোগী না করলে দিন দিন এলাকার যুব সমাজ খেলা থেকে বিমুখ হয়ে মাদক এবং বিভিন্ন রকম অপরাধের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়ে যাবে। দলদলিয়া নাগরিক ফোরামের পক্ষে মোঃ নুর আলম গত ২৭ জুন পার্বতীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর মাঠ সংস্করণের দাবিতে একটি আবেদন করেন ।

এলাকার বয়স জোষ্ঠরা জানান এটি একটি ঐতিহ্যবাহী মাঠ দীর্ঘ কয়েক যুগ ধরে এই মাঠে খেলাধুলা করে আসছে এলাকার যুবসমাজ, আস্তে আস্তে মাঠটি খেলার অনুপযোগী হয়ে যাচ্ছে, আমরা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি মাঠটি কে খেলার উপযোগী করে তুলতে সংস্কারের জন্য বিশেষ বরাদ্দ দেওয়া হোক। এ ব্যাপারে ঐ বিদ্যালয়ের সভাপতি মোঃ আশরাফুল আলমের সাথে কথা বললে তিনি জানান এই বিদ্যালয়টি শেষ সীমানায় হওয়ায় এখানকার স্থানীয় জনগণ কোন সুযোগ সুবিধা পাচ্ছে না। স্কুলের খেলার মাঠটি সরকারি অনুদান না পাওয়ায় খেলা ধুলার পরিবেশ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এমনকি রাস্তাটিও পাকা করা হচ্ছে না। বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা ও এলাকাবাসী বর্ষাকালে কাদার মধ্যে যাতায়াত করছে। একই কথা বলেন ঐ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মোছাঃ নাছিমা খাতুন। তিনি জানান, বিদ্যালয়ের মাঠটি সংস্কার করা হলে এলাকার যুব সমাজ খেলায় মেতে থাকবে। মাদক থেকে দূরে থাকবে। কিন্তু কেউ এই এলাকার উন্নয়নকল্পে কোন খোঁজ রাখেননা।  

এ বিষয়ে এলাকার যুবক মোঃ পাপ্পু জানান আমরা নিজ উদ্যোগে মাঠটি কে সংস্কার করছি এখনো মাঠের অনেক কাজ বাকি রয়েছে। বাকি কাজগুলো করতে আমরা জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও অত্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের সুদৃষ্টি কামনা করছি।


আরও খবর



সিরাজগঞ্জে ন্যায়কুঞ্জের উদ্বোধন করলেন প্রধান বিচারপতি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | ১৩৮জন দেখেছেন

Image
রাকিব সিরাজগঞ্জ থেকে:সিরাজগঞ্জ আদালতের বিচারপ্রার্থীদের জন্য নবনির্মিত ন্যায়কুঞ্জের উদ্বোধন করলেন প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান।সোমবার (২৪ জুন) দুপুর ১ টায় সিরাজগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালত প্রাঙ্গণে প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান এ ন্যায়কুঞ্জ উদ্বোধনে তিনি বলেন, আদালতের বিচারপ্রার্থীদের পানি পান, টয়লেটে যাওয়াসহ দুগ্ধপোষ্য মায়ের তাদের সন্তানদের দুধ খাওয়ানোর কোনো স্থান নেই। এ বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর কাছে উপস্থাপন করা হলে দেশের প্রত্যেক আদালত চত্বরে এক হাজার বর্গফুটের 'ন্যায়কুঞ্জ' স্থাপনের নির্দেশ দেন। এতে বিচার প্রার্থীদের বসার ব্যবস্থাসহ ব্রেস্ট ফিডিং কর্ণার, পুরুষ ও মহিলাদের জন্য আলাদা টয়লেট এবং মুদিখানা দোকানের ব্যবস্থা রয়েছে। আগত বিচারপ্রার্থীদের আধুনিক নাগরিক সুবিধা সম্বলিত নিরাপদ অবস্থান নিশ্চিতের লক্ষ্যে প্রত্যেক জেলার ন্যায় আজ সিরাজগঞ্জে 'ন্যায়কুঞ্জ' উদ্বোধন করা হয়।

এ সময় হাইকোর্ট বিভাগের রেজিস্ট্রার (সিনিয়র জেলা জজ) মুন্সী মশিয়ার রহমান, সিরাজগঞ্জের বিজ্ঞ সিনিয়র, জেলা ও দায়রা জজ এম আলী আহমেদ, আপীল বিভাগের রেজিস্ট্রার (জেলা জজ) মোহাম্মদ সাইফুর রহমান ও  আদালতের বিভিন্ন স্তরের বিচারক, আইন কর্মকর্তা, আইনজীবী সমিতির নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

আরও খবর



কোটা আন্দোলনকারীদের নতুন কর্মসূচি ঘোষণা

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৫৯জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন সরকারি চাকরিতে কোটা বাতিলের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে মঙ্গলবার বিকেল ৩টায় দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিক্ষোভ মিছিল এবং সমাবেশ করার ঘোষণা দিয়েছেন তারা।

সোমবার (১৫ জুলাই) রাত সাড়ে ৯টার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দোয়েল চত্বরে কোটাবিরোধী আন্দোলনের অন্যতম সমন্বয়ক নাহিদুল ইসলাম এই কর্মসূচির ঘোষণা দেন।

নাহিদুল ইসলাম বলেন, শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা হামলা, প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য প্রত্যাহার ও কোটা বাতিলের এক দফা দাবিতে সারাদেশে মঙ্গলবার বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। এরপরও যদি কোটা বাতিল করা না হয় তবে পরে সারাদেশে অবরোধ কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

তিনি বলেন, আজ পরিকল্পিতভাবে বহিরাগতদের এনে আমাদের ওপর হামলা চালানো হয়েছে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর থাকার পরও বহিরাগতরা কীভাবে হামলা করে?

নাহিদুল ইসলাম আরও বলেন, সরকার সহিংসভাবে এই আন্দোলনকে দমন করতে চাইছে। কোটা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী যে বক্তব্য দিয়েছেন আমরা তার তীব্র নিন্দা জানাই। আমরা বলতে চাই অবিলম্বে এই বক্তব্য প্রত্যাহার করতে হবে। প্রধানমন্ত্রীকে ছাত্র সমাজের কাছে দুঃখ প্রকাশ করতে হবে।

এ সময় কোটা আন্দোলনের আরেক সমন্বয়ক আসিফ মাহমুদ বলেন, সারাদেশে মর্মান্তিকভাবে আমাদের ওপর হামলা চালানো হলো। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি এবং প্রক্টর আমাদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



রৌমারীতে কলেজের বিলসিট ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৫৯জন দেখেছেন

Image

মাজহারুল ইসলাম,রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:যাদুরচর ডিগ্রি কলেজের শিক্ষকদের বেতনের বিলসিটের কাগজপত্র ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে মুরাদুল ইসলাম মুরাদ নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে। রবিবার দপুরের দিকে কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার যাদুর চর ডিগ্রি কলেজে এ ঘটনাটি ঘটে। 

কলেজ সংশ্লিষ্ট ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, যাদুর চর ডিগ্রি কলেজের সকল শিক্ষক ও কর্মচারীবৃন্দ জুন মাস ২০২৪ ইং বিলসিটে স্বাক্ষর করে চলে যান। কলেজের অধ্যক্ষ রফিকুল ইসলাম অনুপস্থিত থাকায় ওই কলেজের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী হাসেন আলী (এমএল্সএস) কম্পিউটার ল্যাবষ্টার আতিকুর রহমান ও আয়া মাসুদা খাতুন অফিসিয়ালি সকল কাগজপত্র কোর্ট ফাইলে রাখতে ছিলেন। এসময় ওই কলেজের দাতা ও প্রতিষ্ঠাতা মজিবুর রহমান বঙ্গবাসির ছেলে মুরাদুল ইসলাম মুরাদ কলেজের অফিসকক্ষে প্রবেশ করেন এবং উপস্থিত কর্মচারীরা কিছু বুঝে উঠার আগেই শিক্ষকদের বিলসিটের কাগজপত্র ছিনিয়ে নিয়ে বাহিরে চলে যান। এ ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে চ্যাঞ্চলের সৃষ্টি হয়। যাদুর চর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ ও প্রতিষ্ঠাতার সাথে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলে আসছিল। এনিয়ে বিভিন্ন দপ্তরে উভয় পক্ষের একাধীক অভিযোগও রয়েছে।   

অভিযুক্ত মুরাদুল ইসলাম মুরাদ শিক্ষকদের বিলসিটের কাগজপত্র ছিনিয়ে নেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, আমার বাবা যাদুর চর কলেজের দাতা ও প্রতিষ্ঠাতা হওয়া সত্বেও তাকে কলেজ থেকে নাম বাদ দেওয়া হয়েছে। এনিয়ে কয়েকবার বৈঠকে বসার চেষ্টা করেও কোন সমাধান হয়নি। ফলে আমি রেগে ক্ষোভে এ কাজ করেছি 

যাদুর চর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ রফিকুল ইসলাম জানান, আমার অনুপস্থিতে সুযোগবুঝে মুরাদুল ইসলাম কলেজের অফিসকক্ষে প্রবেশ করে জোরপূর্বক বিভিন্ন কাগজগত্র ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এটা দুঃথজনক ঘটনা। আমি বাহিরে থাকায় আইনের আশ্রয় নিতে বিলম্ব হচ্ছে। তবে রৌমারী এসেই আইনের আশ্রয় নিবো। 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাহিদ হাসান খান বলেন, এবিষয়ে এখনও কোন অভিযোগ পাইনি। তবে অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



পোরশায় পুনর্ভবা নদী থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির ভাসমান লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৪৪জন দেখেছেন

Image

ডিএম রাশেদ,পোরশা (নওগাঁ) প্রতিনিধি:নওগাঁর পোরশা সীমান্তের পুনর্ভবা নদী থেকে এক অজ্ঞাত ব্যক্তির ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার সন্ধায় নদীর টেকঠা ঘাট নামক এলাকা থেকে ঐ লাশ উদ্ধার করে পোরশা থানা পুলিশ।

জানা গেছে, শুক্রবার সন্ধার আগে স্থানীয়রা নদীতে ভাসমান অবস্থায় এক ব্যক্তির লাশ দেখতে পেয়ে থানায় খবর দিলে সন্ধায় থানা পুলিশ এসে লাশটি উদ্ধার করেন।

আনুমানিক ৪০ বছর বয়সের ওই ব্যক্তির শরীরে কাল চেক শার্ট ও কাল প্যান্ট পরা ছিলেন। 

পোরশা থানার অফিসার ইনচার্জ আতিয়ার রহমান জানান, উদ্ধার করা অজ্ঞাত ঐ ব্যক্তির পরিচয় পাওয়া যায়নি। লাশটি মর্গে প্রেরন করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর