Logo
আজঃ Wednesday ০৫ October ২০২২
শিরোনাম

আওয়ামী লীগকে নিলামে তুললে কেউ কিনবে না: গয়েশ্বর

প্রকাশিত:Friday ১৯ August ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ০৫ October ২০২২ | ৪০জন দেখেছেন
Image

দেশের সবকিছুর দাম বাড়লেও আওয়ামী লীগের দাম কমেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

তিনি বলেন, দিন যতই যাচ্ছে ততই আওয়ামী লীগের দাম কমছে। বর্তমান আওয়ামী লীগকে নিলামে তুললে কেউ কিনতে চাইবে না।

শুক্রবার (১৯ আগস্ট) জাতীয় প্রেস ক্লাবের মাওলানা আকরম খাঁ হলে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ‘বিদ্যুৎ-জ্বালানি সংকটে বাংলাদেশ: নিয়ন্ত্রণহীন দ্রব্যমূল্য’ শীর্ষক আলোচনা সভার আয়োজন করে বাংলাদেশ ইয়ুথ ফোরাম।

আলোচনা সভায় গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, দেশের জনগণ এক যুগ ধরে অধিকারবিহীন। জনগণ আজ শোষিত। এই শোষণ কীভাবে হচ্ছে? জনগণের টাকা লুটপাট করে। এই যে ১০ লাখ কোটি টাকা বিদেশে পাচার হয়েছে, এসব টাকা জনগণের।

সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, গণতন্ত্রের সঙ্গে তাদের সম্পর্ক নেই। যারা গণতন্ত্র বিশ্বাস করে না, আইনের শাসন বিশ্বাস করে না, তারা মত প্রকাশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না। সরকার বলছে, আমরা ষড়যন্ত্র করছি। সরকারকে বিদায় দেওয়া ষড়যন্ত্র নয়, এটি দেশের মানুষের নৈতিক দায়িত্ব।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য বলেন, দেশটা কোনো সেমিনারে স্বাধীন হয়নি, আদালতের রায়ে স্বাধীন হয়নি। দেশ স্বাধীন হয়েছে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে। সুতরাং, রাজনৈতিক যত সিদ্ধান্ত, সেটা জনগণ নেবে। সেটা আদালত নিতে পারে না। মানুষ কখন সংগ্রাম করে শাসনব্যবস্থা পরিবর্তন করে? যখন তারা বুঝতে পারে, তারা শোষিত হচ্ছে।

তিনি বলেন, বর্তমান অর্থমন্ত্রী আইন করেছেন বিদেশ থেকে অবৈধ টাকা আনার জন্য৷ আইন করে কখনো টাকা আনা যায়, এটা আমি শুনিনি। যে কোনো দেশের ব্যাংক, সরকার চাইলে টাকা ফেরত আনা সম্ভব।

গয়েশ্বর আরও বলেন, ধনী হওয়া অপরাধ না। সৎ পথে ধনী হলে সমস্যা নেই। কিন্তু, এই টাকা অবৈধ। এই টাকা যদি দেশে বিনিয়োগ হতো, কর্মসংস্থান হতো। আমরা যদি নির্বাচন না করি, এই সরকারকে কে রাখবে? ভারত? কোয়াইট ইম্পসিবল। আওয়ামী লীগ যা বলে, তা করে না।

তিনি বলেন, বিনা অপরাধে আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আর কী করার বাকী আছে! তাহলে আমাদের কি গা বাঁচিয়ে কথা বললে চলবে? সুতরাং ভাগ্য যেহেতু আমাদের সবার সমান, ভাগ্য পরিবর্তনেও সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

বাংলাদেশ ইয়ুথ ফোরামের সভাপতি মুহাম্মাদ সাইদুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের উপদেষ্টা সাঈদ আহমেদ আসলাম। এতে আরও বক্তব্য দেন বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মো. রহমতুল্লাহ।


আরও খবর