Logo
আজঃ Monday ০৮ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড নিখোঁজ সংবাদ প্রধানমন্ত্রীর এপিএসের আত্মীয় পরিচয়ে বদলীর নামে ঘুষ বানিজ্য

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ধর্মবিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য হলেন এফ রহমান রূপক

প্রকাশিত:Saturday ২৩ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ১০৬জন দেখেছেন
Image

বজলুর রহমানঃ

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ধর্মবিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য হলেন, ঢাকা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের সাবেক ছাত্রনেতা, শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের সাবেক আহ্বায়ক ও গণমাধ্যম কর্মী এফ রহমান রূপক। 


সম্প্রতি একটি চিঠি ইস্যুর মাধ্যমে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও কেন্দ্রীয় ধর্মবিষয়ক উপ-কমিটির চেয়ারম্যান খন্দকার গোলাম মওলা নকশবন্দী এ সদস্য মনোনীত করেন। 


এফ রহমান রূপকের গ্রামের বাড়ী, শরীয়তপুর জেলার, ডামুড্যা উপজেলার ধানকাটি ইউনিয়নে।


এ বিষয়ে এফ রহমান রূপক তার অনুভূতি ব্যাক্ত করে বলেন, সর্ব প্রথম শ্রদ্ধাভরে স্বরণ করছি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে এবং ৭৫ এর ১৫ আগস্টে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিবসহ সকল শহীদদের। আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি প্রিয় নেত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনাকে, আমাকে একজন ক্ষুদ্র কর্মী হিসেবে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ধর্মবিষয়ক উপ-কমিটিতে স্থান দিয়ে দলের জন্য কাজ করার সুযোগ করে দিয়েছেন। আমি আরও কৃতজ্ঞতা জানাই আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও কেন্দ্রীয় ধর্মবিষয়ক উপ-কমিটির চেয়ারম্যান খন্দকার গোলাম মওলা নকশবন্দীকে।


তিনি বলেন, জন্মের পর থেকেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও জয় বাংলা শ্লোগান শুনেই বড় হয়েছি। আমি যেন আমার উপর অর্পিত দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করতে পারি সেই প্রার্থনা করছি।


আরও খবর



মেহজাবীন-সাবিলার দুই নাটক দিয়ে প্রশংসিত অনন্য ইমন

প্রকাশিত:Sunday ২৪ July ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | ৮১জন দেখেছেন
Image

জনপ্রিয় পরিচালক অনন্য ইমন বিভিন্ন চ্যানেলের জন্য এবার ঈদে চারটি একক নাটক এবং একটি টেলিফিল্ম নির্মাণ করেন। নাটকগুলোর মধ্যে ‘আ্যম্বুলেন্স গার্ল’ এবং ‘নিজস্ব প্রতিবেদন’- এবারের ঈদে প্রচারিত নাটকগুলোর মধ্যে আলোচনার শীর্ষে।

নারীপ্রধান গল্প অবলম্বনে নাটক ‘আ্যম্বুলেন্স গার্ল’ -এ অভিনয় করেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী মেহজাবীন চৌধুরী এবং ‘নিজস্ব প্রতিবেদন’ -এ অভিনয় করেন আরেক জনপ্রিয় অভিনেত্রী সাবিলা নূর।

ইতিমধ্যেই ‘আ্যম্বুলেন্স গার্ল’ এবং ‘নিজস্ব প্রতিবেদন’ নাটক দুটি দর্শকমনে ব্যাপক আগ্রহের জন্ম দিয়েছে। বিভিন্ন গ্রুপে নাটকগুলো নিয়ে চলছে তুমুল আলোচনা। ইউটিউবে নাটক দুটি দেখে দর্শকরা তাদের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে ভুয়সী প্রশংসা করছেন মেহজাবীন চৌধুরী এবং সাবিলা নূরের অনবদ্য অভিনয়ের। নাটক দুটির পরিচালক অনন্য ইমনকেও অভিনন্দিত করছেন দর্শক, উপভোগ্য দুটি নির্মাণের জন্য।

‘আ্যম্বুলেন্স গার্ল’ নাটকে মেহজাবীনের অভিনয়ে মুগ্ধ হয়ে দর্শকরা নানাবিধ মন্তব্য করছেন। এক দর্শক মন্তব্যের ঘরে লেখেন, ‘মেহজাবীনই একমাত্র অভিনেত্রী যাকে দিয়ে যেকোনো চরিত্রই পরিপূর্ণভাবে ফুটিয়ে তোলা সম্ভব।’

আরেকজন লেখেন, ‘এবারের ঈদের বেস্ট নাটকটি দেখলাম।কি নিখুঁত অভিনয়।সত্যি অসাধারণ,অতুলনীয় ।সিংহভাগ দর্শকের দাবী-নাটকের শেষ দৃশ্য দেখে চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি।বাবা মেয়ের সম্পর্কের গভীরতা এবং আবেগ নাড়া দিয়েছে সব শ্রেণীর দর্শকের মনে।কেঁদেও খুশি দর্শক এমন একটি চমৎকার গল্পের অসাধারণ নির্মাণ দেখে।পরিচালক অনন্য ইমনের নির্মাণশৈলীতে মুগ্ধ হয়ে সবাই প্রশংসা করে বলছেন এবারের ঈদের সেরা নাটক ‘আ্যম্বুলেন্স গার্ল’।’

গৃহকর্মী হিসেবে মধ্যপ্রাচ্যে গিয়ে নির্যাতনের শিকার হয়ে বিদেশ ফেরত সংগ্রামী নারীর গল্প নিয়ে অনন্য ইমন নির্মাণ করেছেন নাটক ‘নিজস্ব প্রতিবেদন’। এ নাটকটিও এবারের ঈদে আলোচনার শীর্ষে রয়েছে। নাটকে নির্যাতিত নারীর চরিত্রে সাবিলা নূরের অভিনয়ের ভূয়সী প্রশংসা করেন অনেক দর্শক। ইউটিউবে নাটকটি দেখে সিংহভাগ দর্শক মন্তব্য করেন, ‘এ নাটকে সাবিলা নূর তার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে ভালো অভিনয় করেছেন।’

নাটক দুটি নির্মাণ প্রসঙ্গে পরিচালক অনন্য ইমন বলেন, ‘আমি সবসময়ই জীবন ঘনিষ্ট গল্প নিয়ে কাজ করতে পছন্দ করি। এ কারণেই গল্প দুটি বেছে নিয়েছি। নাটক দুটি ইউটিউবে আসার পর থেকেই দর্শকরা যেভাবে আমার নির্মাণের প্রশংসা করছেন এবং ভালোবাসা জানাচ্ছেন তা দেখে আমি নির্বাক,মুগ্ধ এবং বিমোহিত।’

অনন্য ইমন পরিচালনার পাশাপাশি নাটক প্রযোজনার সাথেও যুক্ত আছেন। শুরুতে শখের বশে প্রযোজনা শুরু করলেও পরবর্তীতে পেশাগতভাবেই নাটক প্রযোজনার সাথে যুক্ত হয়ে পড়েন।ইতিমধ্যেই ৬০টিরও বেশি নাটক প্রযোজনা করেছেন।

এবার টেলিভিশন প্রোগ্রাম প্রডিউসারস আ্যসোসিয়েশন নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে তিনি সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন।


আরও খবর



মদনে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার কিশোরী, গ্রেফতার ২

প্রকাশিত:Wednesday ২৭ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ০৩ August ২০২২ | ৩৬জন দেখেছেন
Image

নেত্রকোনার মদনে আত্মীয় বাড়ি থেকে ফেরার পথে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক কিশোরী (১৪)। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী কিশোরীর বাবা মঙ্গলবার রাতে ৫ জনের নাম উল্লেখ করে মদন থানায় একটি মামলা করেছেন। মামলার পর রাতেই অভিযান চালিয়ে রাব্বি মিয়া (২৫) ও অন্তর মিয়া (২৩) নামের দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে মদন থানার পুলিশ।

গ্রেফতার রাব্বি মিয়া বাশরী (বাফলা) গ্রামের নূর মিয়ার ছেলে ও অন্তর (২৩) একই গ্রামের মঞ্জিল হকের ছেলে। বাকি আসামিরা হলো- একই গ্রামের মৃত আব্দুল কুদ্দুছের ছেলে সারু মিয়া (২৫), কাঞ্চন বাবুর্চির ছেলে বাছির মিয়া (২৭) ও শাহানুর মিয়া (৩৮)। এর আগে বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) রাতে কাইটাইল বাজারের পাশে মদন-কেন্দুয়া সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ওই কিশোরী তার মায়ের সঙ্গে আত্মীয় বাড়ি থেকে নিজ বাড়িতে রওনা হয়। ওই উপজেলার তিয়শ্রী বাজারে আসলে অন্ধকার ঘনিয়ে আসে। সেখান থেকে একটি অটোরিকশায় করে কাইটাইল বাজারের পাশে এসে তারা নেমে যায়। কিশোরীকে রাস্তার এক পাশে রেখে অন্য পাশে অটোচালককে ভাড়া দিতে যায় তার মা। কিছু বুঝে ওঠার আগেই আরেকটি অটোরিকশায় ৫ যুবক উচ্চ শব্দে সাউন্ড বক্স বাজিয়ে কিশোরীকে তুলে নিয়ে যায়। ভাড়া দিয়ে রাস্তার পাশে মেয়েকে না পেয়ে ডাক চিৎকার শুরু করে কিশোরীর মা। মেয়েকে না পেয়ে বাড়ির লোকজন নিয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করে।

এদিকে ৫ বখাটে ওই কিশোরীকে চেতনানাশক ঔষধ খাইয়ে বাররী গ্রামের সেলিম মিয়া ঘরে আটকে রাখে। পরে রাতভর ওই কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে তারা। পরদিন সকালে হত্যার ভয় দেখিয়ে আরেক দফা ধর্ষণ করার সময় প্রতিবেশীরা বিষয়টি জানতে পারে। এ সময় বখাটেরা পালিয়ে গেলে কিশোরীর পরিবারের লোকজনকে খবর দেয় প্রতিবেশীরা। পরে তাকে উদ্ধার করে বাড়ি নিয়ে আসা হয়। এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা বাদি হয়ে মঙ্গলবার রাতে থানায় একটি মামলা করেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাতেই দুইজনকে গ্রেফতার করেন।

মদন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ফেরদৌস আলম জাগো নিউজকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার কিশোরীকে উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। ওই ঘটনায় অভিযুক্ত দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকী আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। গ্রেফতারদের বুধবার নেত্রকোনা আদালতে পাঠানো হবে। এর সঙ্গে ভুক্তভোগী কিশোরীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করার জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে।


আরও খবর



যুদ্ধের পর রেকর্ড দাবদাহে জ্বালানি সংকট বাড়ছে ইউরোপে

প্রকাশিত:Tuesday ১৯ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ৪৩জন দেখেছেন
Image

ইউরোপের পশ্চিমাঞ্চলে গত কয়েকদিন থেকে চলছে তীব্র দাবদাহ। এই অতিউষ্ণ আবহাওয়া ‘হিট অ্যাপোক্যালিপস’-এ রূপ নিতে পারে বলে সতর্ক করেছে ফরাসি কর্তৃপক্ষ। দাবদাহের সঙ্গে দাবানল ক্রমাগত বাড়তে থাকায় ফ্রান্সে এরই মধ্যে অন্তত দেড় হাজার মানুষ ঘরবাড়ি ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন। যুক্তরাজ্যে বিমানবন্দরের রানওয়ে গলে ফ্লাইট চলাচল বন্ধ, লোহার রেললাইন গলে যেতে পারে আশঙ্কায় ধীরে চালানো হচ্ছে ট্রেনগুলো। আবহাওয়াবিদরা সতর্ক করেছেন, মঙ্গলবারই (১৯ জুলাই) দেখা যেতে পারে ব্রিটিশ দ্বীপপুঞ্জের ইতিহাসে রেকর্ড সর্বোচ্চ তাপমাত্রা।

দ্য ওয়াশিংটন পোস্টের খবরে জানা যায়, আইবেরিয়ান দ্বীপপুঞ্জের (স্পেন-পর্তুগাল) কিছু এলাকায় তাপমাত্রা বেড়ে ৪৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছেছে, যার ফলে কয়েক ডজন জায়গায় দাবানল শুরু হয়েছে। গত এক সপ্তাহে স্পেন ও পর্তুগালে এক হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন দাবদাহ সম্পর্কিত কারণে। হাসপাতালগুলোতে বেড়েই চলেছে রোগীর চাপ। এমন আবহাওয়ায় বিস্তৃত খরা, পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়া এবং ক্ষতিগ্রস্ত ফসলের ভয়ংকর প্রভাব সম্পর্কে সতর্ক করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

তবে ইউরোপীয় সরকারগুলোকে এই মুহূর্তে আরও একটি গুরুতর চাপ সামলাতে হচ্ছে, তা হলো ক্রমবর্ধমান জ্বালানি সংকট। ইউক্রেন যুদ্ধের জেরে বৈশ্বিক জ্বালানি বাজারে যে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে, তাতে গোটা ইউরোপেই বেড়েছে বিদ্যুতের দাম। সবচেয়ে বেশি বিপদে পড়েছে রাশিয়ার তেল-গ্যাসের ওপর ব্যাপকভাবে নির্ভরশীল দেশগুলো, বিশেষ করে জার্মানি।

jagonews24

চলমান দাবদাহের কারণে ইউরোপে এয়ারকন্ডিশনারের (এসি) ব্যবহার বাড়ছে হু হু করে। স্প্যানিশ ইউটিলিটি কোম্পানি এনাগ্যাস গত সপ্তাহে এক বিবৃতিতে বলেছে, দাবদাহে রেকর্ড তাপমাত্রার কারণেই মূলত বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য প্রাকৃতিক গ্যাসের চাহিদা ব্যাপকভাবে বেড়েছে।

আসন্ন শীতকালের জন্যেও পর্যাপ্ত গ্যাস মজুত করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে ইউরোপ। তবে মেরামতের কথা বলে এ অঞ্চলের প্রধান পাইপলাইন নর্ড স্ট্রিম ১ দিয়ে আগের চেয়ে কম গ্যাস সরবরাহ করছে রাশিয়া। আন্তর্জাতিক জ্বালানি সংস্থার নির্বাহী পরিচালক ফাতিহ বিরলের ভাষ্যমতে, আগামী কয়েক মাস খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ইউরোপের স্টোরেজ লেভেল ৯০ শতাংশে পৌঁছানোর আগেই যদি রাশিয়া গ্যাস সরবরাহ পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়, তাহলে পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ ও চ্যালেঞ্জিং হবে।

জার্মান অর্থনীতি মন্ত্রী রবার্ট হ্যাবেক এক রেডিও সাক্ষাৎকারে বলেন, যেকোনো কিছুই ঘটতে পারে। হতে পারে গ্যাস আবার প্রবাহিত হবে, হয়তো আগের চেয়েও বেশি। আবার এটাও হতে পারে, কিছুই আসবে না।

jagonews24

দ্য গার্ডিয়ানের কলামিস্ট সাইমন টিসডাল লিখেছেন, ইউরোপে বিদ্যুতের ঘাটতি ও বিপর্যয়ে ভরা অশান্তির এক দীর্ঘ, ঠাণ্ডা শীতকাল আসন্ন।

কী করছে ইউরোপ
ইউক্রেন যুদ্ধের কারণ ছাড়াও রুশ জ্বালানির ওপর নির্ভরতা কমাতে জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন ইউরোপীয় নেতারা। তবে এর জন্য নিকট ভবিষ্যতে বড় ঘাটতির মুখে পড়তে হতে পারে তাদের। রাশিয়া গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়ার আশঙ্কা এরই মধ্যে ইউরোপকে সমস্যার পথে ঠেলে দিয়েছে।

ইউরোপের সবচেয়ে প্রভাবশালী সবুজ রাজনীতিবিদদের একজন হ্যাবেক। চাপের মুখে তিনিও এমন পদক্ষেপ নিয়েছেন, যা ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সদস্য দেশগুলোর কার্বন নির্গমন নিরোধক প্রতিশ্রুতির সঙ্গে সাংঘর্ষিক। তার চেয়ে বড় কথা, এই পথে তিনি একা চলছেন না।

jagonews24

জার্মান সাংবাদিক কনস্ট্যানজে স্টেলজেনমুলার দ্য ফিন্যান্সিয়াল টাইমসে লিখেছেন, জার্মানির বিকল্পগুলো সংখ্যায় কম, অসম্পূর্ণ ও অপ্রীতিকর। হ্যাবেক কয়লা প্ল্যান্টগুলোকে ফের সচল করছেন এবং লোকদের অল্প সময়ে গোসল সারতে বলছেন। তিনি তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) টার্মিনাল নির্মাণের জন্য কেনাকাটা সহজতর ও পরিবেশগত বিধিনিষেধ শিথিল করছেন; পাশাপাশি, ভাসমান টার্মিনাল ভাড়া করছেন। এছাড়া বিকল্প এলএনজি সরবরাহের সন্ধানে কর্তৃত্ববাদী উপসাগরীয় নেতাদের প্ররোচিত করছেন।

নবায়নযোগ্য জ্বালানি রূপান্তরে বিশ্বকে নেতৃত্ব দিচ্ছে ইউরোপ। তবে সেখানে উল্লেখযোগ্য হারে কার্বন নিঃসরণ বাড়তে দেখছেন বিশ্লেষকেরা। বহু ইউরোপীয় দেশ কয়লার ব্যবহার বাড়িয়েছে; পাশাপাশি, দীর্ঘমেয়াদী জীবাশ্ম জ্বালানি নিষ্কাশন ও সঞ্চয়স্থানে নতুন বিনিয়োগকে উৎসাহিত করছে।

বার্লিনভিত্তিক পরামর্শক ক্লাইমেট অ্যানালিটিক্সের বিল হেয়ার নিউইয়র্ক টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, এটি ২০১৫ সালের প্যারিস জলবায়ু চুক্তির ইতি টানতে তেল-গ্যাস শিল্পের প্রচেষ্টা বলে মনে হচ্ছে এবং আমি খুবই চিন্তিত যে, তারা এতে সফল হতে পারে।

jagonews24

তবে এর বিপরীতে একটি ভালো দিকও রয়েছে। ইউরোপীয় সরকারগুলো ইইউর সৌরবিদ্যুৎ সক্ষমতা বাড়ানোসহ নবায়নযোগ্য জ্বালানি খাতে বিনিয়োগ দ্বিগুণ করছে। থিংকট্যাংক এমবার এবং সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ক্লিন এয়ারের এক বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, বর্তমান ধারা চলতে থাকলে ২০৩০ সালের মধ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়নের ৬৩ শতাংশ বিদ্যুৎ হবে নবায়নযোগ্য।

এমবারের ইউরোপীয় কর্মসূচির প্রধান চার্লস মুর ব্লুমবার্গকে বলেন, উচ্চহারে কার্বন নিঃসরণের অনুমতি দেওয়া সবসময়ই ঝুঁকিপূর্ণ। তবে এটি যদি বায়ু ও সৌর স্থাপনার ওপর ক্ষুরধার নজরের সঙ্গে মিলিত হয়, তাহলে সম্ভবত অর্থ দাঁড়াবে- দ্রুত জ্বালানি রূপান্তর। আপনার হাতে অন্য বিকল্প থাকলে এটি ঝুঁকিপূর্ণ কৌশল হবে, কিন্তু এখন তা নেই।


আরও খবর



মা-বাবার কবরের পাশে চিরশায়িত ফজলে রাব্বী মিয়া

প্রকাশিত:Monday ২৫ July ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ০৪ August ২০২২ | ২১জন দেখেছেন
Image

নিজ বাড়ির উঠানে তৃতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন গাইবান্ধা-৫ আসনের টানা সাতবারের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া। বাবা, মা ও দুই ছেলের কবরের পাশে তাকে দাফন করা হয়েছে।

সোমবার (২৫ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে গাইবান্ধার সাঘাটার হেলেনচা গ্রামে তার তৃতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা তার রাজনৈতিক সহচর, শুভাকাঙ্ক্ষীসহ হাজারো মুসল্লি অংশ নেন।

এর আগে দুপুর দেড়টায় হেলিকপ্টারে করে নিজ গ্রামে ফজলে রাব্বী মিয়ার মরদেহ এসে পৌঁছায়। এরপর মরদেহ স্বজন ও দলীয় নেতাকর্মীরা নিয়ে যান ভরতখালী উচ্চবিদ্যালয় মাঠে। সেখানে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের পর দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার হাজারো মানুষ অংশ নেন।

গত ২২ জুলাই দিনগত রাতে যুক্তরাষ্ট্রের একটি হাসপাতালে মারা যান ফজলে রাব্বী মিয়া। দীর্ঘ ৯ মাস ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

পেশায় আইনজীবী ফজলে রাব্বী মিয়া গাইবান্ধা-৫ আসনের সাতবারের সংসদ সদস্য ছিলেন। এছাড়া তিনি জাতীয় সংসদের পরপর দুবারের ডেপুটি স্পিকারের দায়িত্ব পালন করেন। মুক্তিযুদ্ধে ১১ নং সেক্টরে যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন তিনি। বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ ও সফল জনপ্রতিনিধি ফজলে রাব্বীর মৃত্যুতে শোক বিরাজ করছে সাঘাটা-ফুলছড়িসহ গোটা গাইবান্ধায়।


আরও খবর



এশিয়া কাপেই মাঠে ফিরতে চান সোহান

প্রকাশিত:Wednesday ০৩ August ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | ১৪জন দেখেছেন
Image

আঙ্গুলের ফ্র্যাকচারটাই যত সর্বনাশের মূল। নুরুল হাসান সোহান আঙ্গুলে ব্যাথা পেয়ে মাঠের বাইরে ছিটকে না পড়লে হয়ত শেষ ম্যাচ খেলতেন নুরুল হাসান সোহান। কে জানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ বিজয়ীও হতে পারতেন এ উইকেটকিপার কাম ব্যাটার; কিন্তু ইনজুরি বাঁধা হয়ে দাঁড়ানোয় পুরো জিম্বাবুয়ে সফর থেকেই ছিটকে পড়তে হয়েছে তাকে।

টি-টোয়েন্টির সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচ খেলতে পারেননি। আর ওয়ানডে সিরিজ খেলাও সম্ভব নয়। ফলে দেশে ফিরে আসতে হলো টি-টোয়েন্টি অধিনায়ককে। মঙ্গলবার রাতে জিম্বাবুয়ে থেকে দেশে ফিরে এসেছেন সোহান।

ইনজুরি কী অবস্থা? কবে নাগাদ মাঠে ফিরতে পারেন? এ প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন তিনি। জানিয়েছেন, এশিয়া কাপেই মাঠে ফেরার আশায় আছেন। সোহান বলেন, ‘ইনশাআল্লাহ, আশা করি এশিয়া কাপের আগে সেরে উঠব। কাল একটা এপয়েন্টমেন্ট আছে (ডাক্তারের সাথে)। এটার ওপর নির্ভর করছে। ইনশাআল্লাহ ৩ সপ্তাহের মধ্যে সেরে উঠব। ফ্র্যাকচার আছে, হাঁড় একটু সরে গেছে। আজ গতকালের (সোমবার) চেয়ে একটু ভালো।’

ইনজুরির কারণে সিরিজ নিশ্চিতের ম্যাচ খেলা হয়নি। জিম্বাবুয়ের কাছে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ পরাজয় সম্পর্কে তার মূল্যায়ন কি? এ হারকে কিভাবে দেখছেন? জানতে চাওয়া হলে সোহানের জবাব, ‘অবশ্যই খারাপ তো লাগবেই। হারলে তো খারাপ লাগবেই। আমিও থাকতে পারিনি, নিজের কাছে খারাপ লাগছে।’

তবে যেহেতু তিনি বিমান ভ্রমণে ছিলেন, তাই ম্যাচ দেখা হয়নি। এ কারণেই খেলা নিয়ে একটি কথাও বলতে নারাজ প্রথম দুই টোয়েন্টি ম্যাচের ক্যাপ্টেন, ‘আমি শেষ ম্যাচ দেখিনি। তাই কোনো মন্তব্য করতে পারছি না। তবে নিজের জায়গা থেকে সবাই খুব চেষ্টা করেছে।

জিম্বাবুয়ের কাছে টি টোয়েন্টি সিরিজ পরাজয় কি এশিয়া কাপে কোন নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া ফেলবে? সোহান তা মনে করেন না। তার ব্যাখ্যা, ‘এশিয়া কাপের এখনও সময় আছে। ভিন্ন একটা টুর্নামেন্ট। মনে হয় না ওরকম প্রভাব ফেলবে না।’

এশিয়া কাপে টিম বাংলাদেশের সম্ভাবনা কতটা? তার আগে কি করনীয়? জানতে চাওয়া হলে সোহানের উত্তর, ‘টি-টোয়েন্টিতে আমাদের উন্নতির অনেক জায়গা আছে। শ্রীলঙ্কা-আফগানিস্তান দুটো দলই খুব ভালো প্রতিপক্ষ। আমরা নিজেদের শতভাগ দিয়ে ঘাটতির জায়গাগুলোয় কিছুটা উন্নতি করলেও ইনশাআল্লাহ ভালো ফলাফল হবে। উন্নতির জায়গায় মনোযোগ দিতে হবে যাতে এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপে ভালো করতে পারি।

এনামুল হক বিজয় আর নাজমুল হোসেন শান্ত জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে রান পাননি। তা নিয়ে অধিনায়ক হিসেবে তার ব্যাখ্যা কী? সোহানের কথা, ‘টি-টোয়েন্টিতে সবাই যে প্রতিদিন রান করবে এমন না। খেলোয়াড়দের খারাপ সময় ভালো সময় দুটাই যায়। কারও ভালো হচ্ছে বা খারাপ হচ্ছে এভাবে মন্তব্য করার চেয়ে আমার মনে হয় যার ভালো যাচ্ছে তাকে সমর্থন করা এবং যার খারাপ যাচ্ছে তার পাশে থাকা জরুরি।’

সোহান মনে করেন টি টোয়েন্টি সিরিজে না পারলেও ওয়ানডে সিরিজে টাইগারদের সম্ভাবনা যথেষ্ঠ। সোহান মনে করেন ওয়ানডেতে বাংলাদেশ তুলনামুলক বেটার দল। আমরা টি-টোয়েন্টির তুলনায় ওয়ানডেতে অনেক ভালো। ইনশাআল্লাহ ওয়ানডেতে আমরা খুব ভালো কিছু করব।’


আরও খবর