Logo
আজঃ শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪
শিরোনাম

আর্জেন্টিনার সমর্থনে নারায়ণগঞ্জে শোভাযাত্রা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২২ নভেম্বর 20২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ২৬৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক ;কাতারে ফুটবল বিশ্বকাপে আজ মঙ্গলবার বিকেলে সৌদি আরবে সঙ্গে লড়াইয়ে মাঠে নেমেছে আর্জেন্টিনা। সেই প্রিয় দলকে শুভ কামনা জানিয়ে নারায়ণগঞ্জে আনন্দ শোভাযাত্রা করেছেন সমর্থকরা।

আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টায় শহরের দেওভাগ শেখ রাসেল পার্ক থেকে শোভাযাত্রাটি বের হয়। শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে আর্জেন্টিনার জয় কামনায় উল্লাস করা হয়।

মিছিলে আর্জেন্টিনার দলের মেসি ও ডি মারিয়া খেলোয়াড়ের ছবি সংবলিত ১০ ফুট করে প্ল্যাকার্ড, ৯০ গজের আর্জেন্টিনা দলীয় পতাকা, বিশ্বকাপের গানে সাউন্ড সিস্টেম ও অর্ধশতাধিক মোটরসাইকেল।

আর্জেন্টিনা সমর্থক গোষ্ঠীর শোভাযাত্রা ছিলেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মনিরুজ্জামান মনির, শোভাযাত্রার উদ্যোক্তা স্বপন দাস, আমিনুর ইসলাম মিঠু, তাপস সাহা, সেলিম হাসান দিনার প্রমুখ। আরও ছিলেন শহরের গলাচিপায় নিজের বাড়ি ও প্রাচীর নিজের হাতে আর্জেন্টিনার পতাকা রঙে রাঙানো আফজাল মুন্সী।

শোভযাত্রায় উদ্যোক্তারা কাতার বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা দলের সফলতা কামনা করে বিশ্বকাপ ট্রফি প্রত্যাশা করেন।

আনন্দ শোভাযাত্রার আগে স্বপন দাস বলেন, আজ মঙ্গলবার বিকেলে বিশ্বকাপ ফুটবলে আর্জেন্টিনার প্রথম খেলা। এ জন্যই শুভ কামনায় সকালে সমর্থকদের নিয়ে আনন্দ শোভাযাত্রা আয়োজন করা হয়েছে। মিছিলে সমর্থকরা প্রিয় দলের জার্সি ও বিভিন্ন সেজে এসেছেন। আর্জেন্টিনা সমর্থকরা দলের প্রিয় খেলোয়াড় মেসি, ডি-মারিয়ার ১০ ফুট করে প্ল্যাকার্ড নিয়ে হাজির হয়েছেন।

উদ্যোক্তা তাপস সাহা বলেন, শোভাযাত্রায় শহর ও আশেপাশে বিভিন্ন এলাকা থেকে শত শত সমর্থকরা হাজির হন। অর্ধশতাধিক আর্জেন্টিনা পতাকা নিয়ে মোটরসাইকেল যোগ দিয়েছেন।

আমিনুর ইসলাম মিঠু ও সেলিম হাসান দিনার বলেন, এইচএসসি পরীক্ষা থাকায় শোভাযাত্রা অনেক সমর্থকরা আসতে পারেনি। এর মধ্যে অনেকে কাজে চলে গেছেন। তারপরও বিভিন্ন গানের মাধ্যমের মিছিলটি আনন্দময় করে তুলেছে সবাই।


আরও খবর



জয়পুরহাটে হত্যা ও মাদক মামলায় ৫ জনের যাবজ্জীবন

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০০জন দেখেছেন

Image
এস এম শফিকুল  ইসলাম,জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃজয়পুরহাটে হত্যা মামলায় ৪ জনের যাবজ্জীবন ও মাদক মামলায় একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার দুপুরে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-২ আদালতের বিচারক আব্বাস উদ্দীন এ রায় দেন।

হত্যা মামলায় দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, পাঁচবিবি উপজেলার রতনপুর এলাকার জাইবর আলীর ছেলে সোহাগ, মৃত তৈমুদ্দিনের ছেলে রায়হান, নিজাম উদ্দিনের ছেলে আমিনুল ইসলাম ও লোকমানের ছেলে হারুনুর রশীদ। এছাড়া মাদক মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত সুজন সরদার একই উপজেলার গোপালপুর গ্রামের সোলাইমান সরদারের ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, জয়পুরহাটের খনজনপুর এলাকার বাদল প্রামাণিকের ছেলে সাহাদুল ইসলাম শহরের স্টেশনরোড এলাকায় কম্পিউটারের দোকান করতেন। সে দোকানে ব্যবসায়ীক লেনদেনের কারণে আসামীদের কাছে তার ৬০ হাজার টাকা পাওনা হয়। এ নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া বিবাদ হয়। এরই জেরে ২০১০ সালের ৬ জানুয়ারি সাহাদুল রতনপুর এলাকার এক বন্ধুর বাড়ি থেকে বেড়িয়ে জয়পুরহাটে আসার পথে বাগুয়ান এলাকায় আসামীরা লাঠি ও গাছের ডাল দিয়ে সাহাদুলের মাথায় আঘাত করলে সে গুরুতর আহত হয়। পরে একই দিন বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়।
অন্যদিকে ২০২০ সালের ১৪ নভেম্বর পাঁচবিবির উত্তর গোপালপুর গ্রাম থেকে ১১৯ বোতল ফেনসিডিল সহ সুজন সরদারকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব।

আরও খবর



নির্বাচন কোথায় সুষ্ঠু হয়নি, দেখাতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৮৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:কিছু দেশীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায় থেকে বলা হচ্ছে যে, নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হয়নি। তাদের দেখাতে হবে, কোথায় সুষ্ঠু নির্বাচন হয়নি, বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ।

শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকালে গণভবনে আয়োজিত বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

সদ্য সমাপ্ত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, নির্বাচন যাতে প্রশ্নবিদ্ধ না হয়, তার জন্য নির্বাচন উন্মুক্ত করে দিয়েছিলাম। এই নির্বাচনকে কেউ প্রশ্নবিদ্ধ করতে পারেনি। কিন্তু কিছু দেশীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায় থেকে বলা হচ্ছে যে, নির্বাচন হয়েছে ঠিক, কিন্তু অবাধ ও সুষ্ঠু হয়নি।

তিনি বলেন, তাদের দেখাতে হবে কোথায় সুষ্ঠু নির্বাচন হয়নি। আমরা তো এতটুকু বলতে পারি, নির্বাচন অত্যন্ত অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে হয়েছে।

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী বলেন, ৮১টা সংস্কার প্রস্তাব কার্যকর করে নির্বাচন কমিশনকে স্বাধীন করে দিয়েছি। নির্বাচন কমিশন যাতে নিরপেক্ষভাবে কাজ করতে পারে, সে ব্যবস্থা করেছি। এই সাহস আওয়ামী লীগেরই আছে। যার কারণে নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হয়েছে।

নির্বাচন যাতে না হয়, সেজন্য ‌বিরাট চক্রান্ত-ষড়যন্ত্র ছিল মন্তব্য করে শেখ হাসিনা বলেন, নির্বাচন যাতে না হয় অর্থাৎ নির্বাচন হলে বাংলাদেশের মানুষের যে আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন হচ্ছে, সেটি অনেকের সহ্য হয়নি, তাই এমন একটি চক্রান্ত ছিল।

তিনি বলেন, ‌বিএন‌পি নির্বাচনে না এসে নির্বাচন বানচাল করার জন্য জ্বালাও-পোড়াও, অগ্নিসংযোগ শুরু করল। কারণ তারা জানত, জনগণের জন্য কাজ করে আওয়ামী লীগ জনগণের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করেছে।

আওয়ামী লীগ প্রধান বলেন, নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করবে। এজন্যই তারা নির্বাচন বানচাল করার ষড়যন্ত্র করেছে। এই কাজে উৎসাহ যুগিয়েছিল তাদের কিছু প্রভু।

শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা আন্দোলন করে জনগণের ভোট ও ভাতের অধিকার তাদের হাতে ফিরিয়ে দিয়েছে। আমরা জনগণের কল্যাণে কাজ করেছি। তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছি।

তিনি বলেন, আমাদের উন্নয়ন তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত। সমাজের প্রত্যেকটা স্তরের মানুষ কেউ যাতে অবহেলিত না থাকে, সে অনুযায়ী আমরা পরিকল্পনা নিয়েছি এবং বাস্তবায়ন করেছি। জনগণের আস্থা, বিশ্বাস অর্জন করতে সক্ষম হয়েছি।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, জনগণই আমাদের একমাত্র শক্তি। জনগণের সংগঠন যদি বাংলাদেশে একটি থাকে, সেটি আওয়ামী লীগ। তাই সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় নিজেদের মধ্যে কোনো সংঘাত যেন না হয় এবং একে অপরের দোষ না খুঁজতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

সভায় আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটি, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, জেলা, মহানগর ও উপজেলা, থানা, পৌর (জেলা সদরে অবস্থিত পৌরসভা) কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, জাতীয় সংসদের দলীয় ও স্বতন্ত্র সদস্য, জেলা পরিষদ ও উপজেলা পরিষদের দলীয় চেয়ারম্যান অংশ নেন।


আরও খবর



শবে বরাত কবে জানা গেল

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৯২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:দেশের আকাশে ১৪৪৫ হিজরি সনের পবিত্র শাবান মাসের চাঁদ দেখা গেছে। ফলে আগামী ২৫ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাতে সারাদেশে পবিত্র শবে বরাত পালিত হবে।

রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় শাবান মাসের চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

এতে সভাপতিত্ব করেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান। সভায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক ড. বশিরুল আলমসহ সরকারের বিভিন্ন সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও আলেম উলামারা উপস্থিত ছিলেন।

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক বলেন, বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর এবং মহাকাশ গবেষণা হতে প্রাপ্ত তথ্য নিয়ে পর্যালোচনা করে চাদঁ দেখার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ফারসি ‘শব’ শব্দের অর্থ রাত আর ‘বরাত’ শব্দের অর্থ সৌভাগ্য। আরবিতে বলে ‘লাইলাতুল বরাত’, অর্থাৎ সৌভাগ্যের রাত। মহিমান্বিত এই রাতে ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা পরম করুণাময় মহান আল্লাহর অনুগ্রহ লাভের আশায় নফল নামাজ পড়েন। এছাড়া এদিন রাতে ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা কুরআন তেলওয়াত করেন এবং জিকিরে মগ্ন থাকেন।


আরও খবর



এক্সক্লুসিভ ওয়ার্ল্ড ক্রেডিট কার্ড নিয়ে এলো ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:[ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২৪] ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক পিএলসি (ইউসিবি) এবং মাস্টারকার্ডের সেবার তালিকায় যুক্ত হয়েছে আরো কিছু নতুন ও উদ্ভাবনী আর্থিক পণ্য। গ্রাহকদের প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে আজ (১৫ ফেব্রুয়ারি) এই কার্ড উন্মোচন করা হয়, যার মাধ্যমে দেশের ব্যাংকিং খাতে সূচনা হলো এক নতুন অধ্যায়ের। ভ্রমণ, খাওয়াদাওয়া ও স্বাস্থ্যসেবাসহ জীবনযাত্রার বিভিন্ন প্রয়োজনে গ্রাহকরা ইউসিবি মাস্টারকার্ড ওয়ার্ল্ড ক্রেডিট কার্ডের দারুণ সব সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন।

ইউসিবি মাস্টারকার্ড ওয়ার্ল্ড ক্রেডিট কার্ড সেবার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ইউসিবি ও মাস্টারকার্ডের সফল অংশীদারত্বের কথা উল্লেখ করে ইউসিবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী আরিফ কাদরী বলেন, ‘গ্রাহকদের জন্য এমন একটি চমৎকার পণ্য নিয়ে আসার ক্ষেত্রে মাস্টারকার্ডের সঙ্গে অংশীদারত্ব করতে পেরে আমরা আনন্দিত। এ অংশীদারত্ব গ্রাহকদেরকে প্রতিনিয়ত আরো প্রিমিয়াম পণ্য ও সেবাদানে আমাদের প্রতিশ্রুতিরই প্রমাণ।’

পণ্য ও সেবার মান উন্নত করে তোলার গুরুত্ব প্রসঙ্গে মাস্টারকার্ড বাংলাদেশের কান্ট্রি ব্যবস্থাপক সৈয়দ মোহাম্মদ কামাল বলেন, ‘কার্ড গ্রহীতাদের আর্থিক লেনদেনের অভিজ্ঞতাকে আরো সমৃদ্ধ করতে মাস্টারকার্ড কার্যকর অংশীদারত্ব সৃষ্টিতে সচেষ্ট রয়েছে। ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক পিএলসির সঙ্গে আমাদের অংশীদারত্ব এ প্রচেষ্টারই অনন্য উদাহরণ। বাংলাদেশের কার্ড গ্রহীতাদের জন্য বিশেষ সব সুবিধা নিয়ে আসতে পেরে আমরা আনন্দিত।’

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ইউসিবি’র অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক এটিএম তাহমিদুজ্জামানসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

কার্ড গ্রহীতাদের অনন্য সব সুবিধা ও রিওয়ার্ড প্রদানের পাশাপাশি আর্থিক লেনদেন ও সেবা গ্রহণকে আরো স্বাচ্ছন্দ্যময় ও উপভোগ্য করে তুলে তাদের ক্ষমতায়নে ভূমিকা রাখবে ইউসিবি মাস্টারকার্ড ওয়ার্ল্ড ক্রেডিট কার্ড। এ কার্ড উন্মোচনের মাধ্যমে দেশে গ্রাহকদের আর্থিক সেবাদানের ক্ষেত্রে উৎকর্ষ অর্জনে নতুন মানদণ্ড স্থাপন করল ইউসিবি ও মাস্টারকার্ড।   

কার্যকরী ও সহজ উপায়ে সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলা আধুনিক গ্রাহকদের বিভিন্ন প্রয়োজন মেটাতে উন্মোচন করা হয়েছে ইউসিবি মাস্টারকার্ড ওয়ার্ল্ড ক্রেডিট কার্ড। ইউসিবি মাস্টারকার্ড ওয়ার্ল্ড ক্রেডিট কার্ডে দেশের শীর্ষ পাঁচ তারকা হোটেলে কমপ্লিমেন্টারি নাইট-স্টেসহ (এক রাত) থাকছে বিশ্বের ১৪ শরও বেশি এয়ারপোর্ট লাউঞ্জ সেবা (সঙ্গে ইউসিবি ইন্টারন্যাশনাল ও ডোমেস্টিক ইম্পেরিয়াল এয়ারপোর্ট লাউঞ্জে কমপ্লিমেন্টারি এন্ট্রি)। কার্ড গ্রহীতারা কার্ডের মাধ্যমে লেনদেনের ওপর নির্ভর করে পাবেন গিফট ভাউচার এবং আন্তর্জাতিক লেনদেনের ক্ষেত্রে উপভোগ করবেন ১ শতাংশ ক্যাশব্যাক সুবিধা।

কার্ড গ্রহীতারা আরো উপভোগ করবেন বিভিন্ন রেস্টুরেন্টে ১০ শতাংশ ক্যাশব্যাক এবং দেশের নির্দিষ্ট কিছু পাঁচ তারকা হোটেলে বাই-ওয়ান-গেট-ওয়ান অফার, দেশের শীর্ষ ১৬টি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে বিশেষ হেলথ চেক-আপ প্রোগ্রাম এবং ১৮টি জটিল রোগের চিকিৎসায় ৩ লাখ টাকা পর্যন্ত বিমা কাভারেজসহ আরো বিভিন্ন সুবিধা ।


আরও খবর

আজ রংপুরের স্থপতি আফিফার সাথে ফারাজের বিয়ে

শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানা পরিদর্শন করলেন রেলমন্ত্রী জিল্লুল হাকিম

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৭৯জন দেখেছেন

Image

খোকন সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:রেলমন্ত্রী জিল্লুর হাকিম বলেছেন, স্মার্ট বাংলাদেশের ন্যায় রেলওয়েতেও স্মার্ট ও দক্ষ জনশক্তির প্রয়োজন। অতি শিগগিরই এ কারখানায় জনবল নিয়োগের পর তাদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে।মন্ত্রী বলেন, সৈয়দপুর রেলের অনেক জমি বেহাত হয়ে গেছে। এ কাজে জড়িত রয়েছে অনেকেই। দখলদারদের কাছ থেকে এসব জমি দখলমুক্ত করে রেলওয়ে কারখানার আধুনিকায়ন করা হবে ।  

শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) বেলা সারে ১১টায় দেশের বৃহত্তম সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।মন্ত্রী বলেন, সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানায় জনবল দিনদিন কমে আসছে। ১৮৭০ সালে আসাম বেঙ্গল রেলওয়ের বিশাল কারখানাটির শুরুর দিকে জনবল ছিল প্রায় ১০ হাজার।এরপর ১৯৮৬ সাল থেকে  শ্রমিক ছাটাইয়ে হয় ২৮৫৯ জন। কিন্তু বর্তমানে  ৮৬০ জন কর্মরত রয়েছেন।

মন্ত্রী বলেন, বিশ্বে রেলওয়ে অনেক উন্নত হয়েছে । আমাদেরও সেই তালে এগিয়ে যেতে হবে। নতুন নতুন রেলপথ স্থাপন ও সেবার মান বৃদ্ধি করে রেলওয়ে যাত্রীবান্ধব করতে হবে।

এরপর কারখানার ২৯টি শপ (উপ-কারখানা) ঘুরে ঘুরে দেখেন এবং শ্রমিক-কর্মচারীদের সঙ্গে কথা বলেন মন্ত্রী।  

বর্তমান সরকারের রেলপথ মন্ত্রী হিসেবে এটিই প্রথম সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানা পরিদর্শন। তিনি রেলওয়ে কারখানায় এসে পৌঁছলে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান, কারখানার বিভাগীয় তত্ত্বাবধায়ক (ডিএস) সাদেকুর রহমান। এরপর মন্ত্রী মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের স্মরণে কারখানায় স্থাপিত অদম্য স্বাধীনতায় শহীদদের স্মরণে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন।  

এসময় মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন নীলফামারী-৪ আসনের সংসদ সদস্য সিদ্দিকুল আলম সিদ্দিক। এছাড়াও রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মো. হুমায়ুন কবীর, মহাপরিচালক (ডিজি) কামরুল হাসান, পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক অসীম কুমার তালুকদার, প্রধান যন্ত্র প্রকৌশলী (সিএমই, পশ্চিম) মুহম্মদ কুদরত-ই খুদা, জেলা প্রশাসক পঙ্কজ ঘোষ, পুলিশ সুপার গোলাম সবুর, সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও শ্রমিকলীগ নেতা মোখছেদুল মোমিন প্রমুখ।


আরও খবর