Logo
আজঃ বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

আইজিপি কাপ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ২০২৪

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৯১জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টার : শুরু হয়েছে আইজিপি কাপ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ২০২৪। বৃহস্পতিবার সকালে জাকজমক  অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে পুলিশ ক্রিকেট ক্লাব মাঠ মিরপুর স্টাফ  কলেজে শুরু হয়েছে।

এ সময় প্রধান অতিথি  হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশের চিফ অতিরিক্ত আইজিপি মাহবুবুর রহমান। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন, মিরপুর জোনের উপ- পুলিশ কমিশনার (ডিসি) জসিম উদ্দিন মোল্লা,এডিসি মিরপুর জোন মাসুক মিয়া পিপিএমসহ পুলিশের উদ্ধতন  কর্মকর্তারা। 

 ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশের চিফ অতিরিক্ত আইজিপি মাহবুবুর রহমান তার বক্তব্য বলেন বাংলাদেশের অগ্রযাত্রার সাথে সাথে বাংলাদেশ পুলিশ ও এগিয়ে যাচ্ছে। এর অংশ হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশ ক্রিকেট টিম বর্তমানে ফার্স্ট ডিভিশনে খেলছে. খেলাধুলা বিশেষ করে ক্রিকেট বাংলাদেশ পুলিশের ভাবমূর্তি উন্নয়নের কাজ করছে।

এর আগে বাংলাদেশ ক্রিকেট ক্লাবের সেক্রেটারি মিরপুর ডিভিশনের ডিসি  জসীম উদ্দীন  মোল্লা বলেন বাংলাদেশ পুলিশ ক্রিকেট টিমের যাত্রা শুরু হয়েছে ২০০৮ সাল থেকে এবং  ২০১৮ সালের বাংলাদেশ পুলিশ ক্রিকেট টিম দ্বিতীয় বিভাগে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে। ২০২৩ সাল পুলিশ ক্রিকেট টিম প্রথম বিভাগে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। 
এই টুর্নামেন্ট এ মোট ২৩ টিম ৪ টি বিভাগে ভাগ হয়ে খেলবে।

আরও খবর



প্রথমবারের মতো রঙিন ফুলকপি চাষ করে সফল হয়েছে কৃষক গোলাম মোস্তফা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬৬জন দেখেছেন

Image

মাসুদুল হক রুবেল,হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি;প্রথমবারের মতো দিনাজপুরের সীমান্তবর্তী হাকিমপুর উপজেলায় রঙিন ফুলকপি চাষ করে সাড়া ফেলেছেন গোলম মোস্তফা নামের এক কৃষক। কম খরচে অধিক লাভ ও পুষ্টিগুন সম্পন্ন হওয়ায় আগ্রহ দেখাচ্ছে অন্যান্য কৃষকেরাও। কৃষি বিভাগ বলছেন, পুষ্টিগুন সমৃদ্ধ নতুন জাতের এ ফুলকপির আবাদ বাড়াতে সবধরণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আগামীতে ব্যপক হারে এই বেগুনি রঙিন কপির আবাদ ছড়িয়ে দিতে মাঠ প্রদর্শণীসহ নানা ভাবে প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন উপজেলা কৃষি বিভাগ।

দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার খট্রামাধবপাড়া ইউনিয়নের বলরামপুর গ্রামে উপজেলা কৃষি বিভাগের পরামর্শে ২০ শতক জমিতে রঙিন প্রজাতির ফুলকপি ভ্যালেনটিনা চাষে আগ্রহ প্রকাশ করেন উপজেলার কৃষক গোলাম মোস্তফা। এরপর থেকেই একজন কৃষি ইউনিয়ন ব্লক সুপার ভাইজারের সার্বক্ষণিক তত্বাবধানে তিনি এই রঙিন ফুলকপির চাষাবাদ করেন। নতুন জাতের এই দৃষ্টিনন্দন ফুলকপি দেখতে ভিড় জমাচ্ছেন স্থানীয়রা। নতুন জাতের এই ফুলকপি আবাদ করে ভাগ্য বদলের স্বপ্ন দেখছেন তারা। এ ফুলকপি বাজারজাত শুরু হওয়ার পর থেকেই অনেকে আসছেন কিনতে। সেই সাথে এই ফুলকপিতে

এন্টিঅক্সিডেন্টের উপস্থিতি বেশি পরিমাণে থাকায় ক্যান্সার বিরোধী। তাই এ সবজির আবাদ বাড়াতে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সচেতনাতার পাশাপাশি দিয়ে যাচ্ছেন প্রণোদণা। আগামীতে একটি পৌরসভা ও তিনটি ইউনিয়নে এই রঙিন ফুলকপি চাষাবাদ বৃদ্ধি করার লক্ষে উপজেলা কৃষি অফিসা সবধরণের সহযোগিতা দিয়ে যাবে। রঙিন ফুলকপি চাষী গোলাম মোস্তফা বলেন,উপজেলা কৃষি অফিস থেকে বিনামূল্য বীজ সার দিয়েছে। ২০ শতক জমিতে প্রতি পিস ফুলকপি উৎপাদনে খরচে হয়েছে ১০ টাকা। এখন বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা কেজি দরে।

হাকিমপুর উপজেলা নিবার্হী অফিসার অমিত রায় বলেন,এ উপজেলায় প্রদর্শণী খামারের মাধ্যমে প্রথম বারের মতো রঙিন ফুলকপি চাষ করা হচ্ছে। রঙিন হওয়ায় বাজারে এর দামও যেমন রয়েছে। বাজারে এর চাহিদায়ও বেশি। এ উপজেলায় রঙিন ফুলকপি চাষ বৃদ্ধি ও কৃষকদের উৎসাহীৎ করার লক্ষে উপজেলা প্রশাসন থেকে কৃষকদের সব ধরনের সহযোগিতা দেওয়া হবে।

হাকিমপুর উপজেলা কৃষি অফিসার আরজেনা বেগম বলেন,দিনাজপুর অঞ্চলে টেকসই কৃষি উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় প্রথম বারের মতো হাকিমপুর উপজেলার খট্টামাধবপাড়া এলাকার বলরামপুর গ্রামে বেগুনি রঙিন ফুলকপির একটি প্রদর্শনী স্থাপন করা হয়েছে।এই ফুলকপিতে এন্টিঅক্সিডেন্টের উপস্থিতি বেশি পরিমাণে থাকায় ক্যান্সার বিরোধী।

অত্যন্ত পুষ্টি সমৃদ্ধ, রঙিন বিদেশি সবজি,বাজারে এর চাহিদা বেশি। চাষাবাদে কম পরিমাণ কীটনাশক প্রয়োগ করা হয়। এই ফুলকপির আবাদ সম্প্রসারণ করা গেলে কৃষকরা লাভবান হবে। সাধারণ ভোক্তার নিটক পুষ্টি পুষ্টি সমৃদ্ধ সবজি সহজলভ্য হবে ও পুষ্টি নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে এটাই আমাদের প্রত্যাশা।


আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




নবীনগর বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৯৩জন দেখেছেন

Image

মোহাম্মদ হেদায়েতুল্লাহ  নবীনগর(ব্রাহ্মণবাড়িয়া)প্রতিনিধি:ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার বিটঘর রাধানাথ উচ্চবিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।বুধবার সকাল ১১ থেকে দিনব্যাপ অত্র বিদ্যালয় মাঠে অত্র এলাকার মান্যবর ব্যাক্তিবর্গগণের উপস্থিতিতে পবিত্র কুরআন তেলাওয়াতের ও গীতা পাঠের মাধ্যমে এই বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান এক মনোরম পরিবেশ  অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এসময় বিটঘর রাধানাথ উচ্চবিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম এর সভাপতিত্বে ,ও অত্র উচ্চবিদ্যালয় সিনিয়র শিক্ষক মোঃ জাকারিয়ার সঞ্চালনায় অত্র বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে, প্রধান অতিথি ছিলেন বিটঘর দানবীর মহেশ চন্দ্র ভট্রাচার্য বিদ্যাপীঠ কলেজ প্রতিষ্ঠাতা বিটঘর রাধানাথ উচ্চবিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদ সভাপতি মুনতাসীর মহিউদ্দিন অপু।এছাড়াও বিশেষ অতিথি ছিলেন বিটঘর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মেহেদী জাফর দস্তগীর, নবীনগর উপজেলা আওয়ামীলীগ যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মস্তোফা জামাল।

পুলিশ কর্মকর্তা বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী সাজেদুল ইসলাম পলাশ, বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী সুধীর চন্দ্র সাহা, বিটঘর রাধানাথ উচ্চবিদ্যালয় দাতা সদস্য মোঃ রহমত উল্লাহ, অভিভাক সদস্য মোঃ খলিলুর রহমান মাষ্টার, অভিভাবক সদস্য মোঃ মহসিন খন্দকার, অভিভাবক সদস্য মোঃ রহমত উল্লাহ, অভিভাবক সদস্য মোঃ হানিফ ছোটন), বিটঘর ইউনিয়ন পরিষদ  সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল কাইয়ুম, বিটঘর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ শফিকুল ইসলাম, বিশিষ্ট সমাজ সেবক কবির আহমেদ চৌধুরী, বিটঘর রাধানাথ উচ্চবিদ্যালয় কো-আপ্ট সদস্য খালেদ মোশারফ দীপু।

মহিলা সদস্য শিউলি আক্তার, শিক্ষক প্রতিনিধি মোঃ জসিম উদ্দিন,মহিলা শিক্ষক প্রতিনিধি নাজমা পারভী,পুলিশ উপ-পরিদর্ক মোঃ নোমান মুন্সী, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ শানু মিয়া,বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ মোবারক ভূইঁয়া সহ এলাকার গন্য মান্য ব্যাক্তি বর্গ উপস্হিত ছিলেন।এ সময় বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আকর্ষণীয় ডিসপ্লে ও , দৌড় প্রতিযোগিতা, দীর্ঘ লাফ, বিস্কুট দৌড়, দড়ি লাফ, আবৃত্তি, নৃত্য ও যেমন খুশি তেমন সাজসহ বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ কারি সকল বিজয়ীদের কে,অনুষ্ঠান শেষে বিজয়ী পুরস্কার তুলে দেন সকল অতিথিগণ ।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




যুক্তরাষ্ট্র প্রতিশোধ নিতে ইরানে সিরিজ হামলা, নিহত ১৮

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৫০জন দেখেছেন

Image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:যুক্তরাষ্ট্র বিমান হামলা চালিয়েছে ইরাক ও সিরিয়ায় থাকা ইরানের বিভিন্ন স্থাপনায়।এতে কমপক্ষে ১৮ ইরানপন্থী যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (২ ফেব্রুয়ারি) রাতে এসব হামলা চালানো হয়। মার্কিন কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মার্কিন সামরিক বাহিনী শুক্রবার ইরাক ও সিরিয়ায় ইরানি বাহিনী এবং তেহরান সমর্থিত মিলিশিয়া গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে প্রতিশোধমূলক বিমান হামলা চালিয়েছে।

গত রোববার (৩ জানুয়ারি) সিরিয়ার সীমান্তের কাছে জর্ডানে যুক্তরাষ্ট্রের একটি সামরিক ঘাঁটিতে ড্রোন হামলায় প্রতিক্রিয়া হিসেবে দেখা হচ্ছে। সামরিক ঘাঁটিতে ওই হামলায় তিন মার্কিন সেনা নিহত হন এবং আহত হন ৪১ জন।

ওই হামলার জন্য ইরান–সমর্থিত একটি সশস্ত্র গ্রুপকে দায়ী করে আসছিল ওয়াশিংটন। এর জবাবে সিরিয়া ও ইরাকে অবস্থিত ইরানের বিভিন্ন স্থাপনায় ধারাবাহিকভাবে হামলা চালানোর পরিকল্পনায় অনুমোদন দেয় যুক্তরাষ্ট্র। কবে থেকে হামলা শুরু করা হবে, তা স্পষ্ট করে না জানালেও একাধিক মার্কিন কর্মকর্তা বলেছিলেন, বেশ কয়েক দিন ধরে হামলা চালানো হবে। বিষয়টি আবহাওয়া পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করবে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘আমাদের প্রতিক্রিয়া আজ থেকে শুরু হয়েছে। এটি (প্রতিক্রিয়া) আমাদের পছন্দের সময় এবং জায়গায় চলতে থাকবে।

তিনি আরও বলেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র মধ্যপ্রাচ্য বা বিশ্বের অন্য কোথাও সংঘাত চায় না। তবে যারা আমাদের ক্ষতি করতে চায় তাদের সবাইকে এটি জানাতে হবে, আপনি যদি একজন আমেরিকানকেও ক্ষতি করেন তবে আমরা জবাব দেব।’

এএফপি বলছে, উত্তেজনার সাম্প্রতিক বৃদ্ধির পরও ওয়াশিংটন এবং তেহরান উভয়ই সর্বাত্মক যুদ্ধ এড়াতে চেয়েছে। আর তাই নিজেদের ওপর আরও হামলা এড়াতে পাল্টা হামলা চালানোর সময় তেহরানের সাথে সরাসরি সংঘর্ষ এড়াতে ইরানের ভূখণ্ডে আঘাত করেনি যুক্তরাষ্ট্র।

ইরাক ও সিরিয়ায় হামলা নিয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিং করেছেন মার্কিন জেনারেল ডগলাস সিমস। তিনি জানান, কয়েক দিন ধরে মেঘাচ্ছন্ন আবহাওয়ার কারণে বিমান হামলা চালানো কঠিন ছিল। গতকাল শুক্রবার পরিস্থিতি বদলে যায়। যেসব লক্ষ্যে আঘাত হানা হয়েছে, সেগুলো নিয়ে খুব আত্মবিশ্বাসী তিনি।

এদিকে এ ধরনের হামলার তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে ইরাকের সেনাবাহিনী। দেশটির সার্বভৌমত্বের লঙ্ঘনের অভিযোগ তোলা হয়েছে। এর ফলে বাগদাদ ও ওয়াশিংটনের মধ্যকার সম্পর্কে টানাপোড়েন দেখা দিতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন ইরাকের সেনাবাহিনীর মুখপাত্র ইয়াহইয়া রসুল।


আরও খবর



রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ২৮

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১১৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে রাজধানীতে ২৮ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) ভোর ৬টা থেকে রোববার (৪ ফেব্রুয়ারি) ভোর ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) কে এন রায় নিয়তি জানান, এ সময় তাদের কাছ থেকে ২০৬ ইয়াবা, ১২৯.৪ গ্রাম হেরোইন ও ১৪ কেজি ৯৭০ গ্রাম গাঁজা জব্দ করা হয়েছে।

তাদের নামে ডিএমপির বিভিন্ন থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ২১টি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।


আরও খবর



আজ বইমেলা শুরু হচ্ছে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১২৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আজ (১ ফেব্রুয়ারি) থেকে শুরু হচ্ছে বাঙালির প্রাণের বইমেলা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেলা ৩টায় মাসব্যাপী এ মেলার উদ্বোধন করবেন। এবারের বইমেলায় থাকছে ৬৩৫টি প্রতিষ্ঠানের মোট ৯৩৭টি স্টল। কোনো তৃতীয় মাধ্যম ছাড়াই এবারের বইমেলার সার্বিক দায়িত্বে আছে বাংলা একাডেমি।

বইমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বাংলা একাডেমি প্রকাশিত ‘কালেক্টেড ওয়ার্কস অব শেখ মুজিবুর রহমান: ভলিউম-২’ সহ কয়েকটি গ্রন্থ-উন্মোচন করবেন। সেই সঙ্গে বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার-২০২৩ বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ করবেন।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে প্রায় সাড়ে ১১ লাখ বর্গফুট এলাকাজুড়ে হচ্ছে বইমেলা। বাংলা একাডেমি মাঠে ১২০টি প্রতিষ্ঠানকে ১৭৩টি এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ৫১৫টি প্রতিষ্ঠানকে ৭৬৪টি স্টল বরাদ্দ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এ বছর প্যাভিলিয়ন থাকছে ৩৭টি। বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে ১টি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে ৩৬টি।

মেলায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও মাসব্যাপী সেমিনারের পাশাপাশি শিশু-কিশোরদের জন্য ছবি আঁকা, সংগীত ও আবৃত্তি প্রতিযোগিতার ব্যবস্থা থাকবে। প্রতি শুক্র ও শনিবার মেলায় বেলা ১১টা থেকে ১টা পর্যন্ত ‘শিশুপ্রহর’ থাকবে। প্রথমবারের মতো শিক্ষার্থীদের জন্য ৫ শতাংশ ছাড়ের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। পরিচয়পত্র দেখালেই মিলবে এ সুযোগ।

প্রতি কর্মদিবসে বইমেলা বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত এবং সরকারি ছুটির দিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে এবং দুপুরের খাবার ও নামাজের জন্য এক ঘণ্টা বিরতি থাকবে মেলায়।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কোথায় কী থাকবে: মেলার মূল মঞ্চ থাকবে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে। বইয়ের মোড়ক উন্মোচন ও ‘লেখক বলছি’ মঞ্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যান প্রাঙ্গণে স্থাপন করা হয়েছে। গত বছরের মতো রমনা কালী মন্দির গেটে প্রবেশের ঠিক ডান দিকে বড় পরিসরে রাখা হয়েছে শিশুচত্বর। লিটল ম্যাগাজিন চত্বর স্থানান্তরিত হয়েছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের উন্মুক্ত মঞ্চের কাছাকাছি গাছতলায়। সেখানে প্রায় ১৭০টি লিটলম্যাগকে স্টল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। অন্যান্যবারের মতো খাবারের স্টলগুলো এলোমেলো না রেখে ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশন অংশে বিন্যস্ত করা হয়েছে। নামাজের স্থান এবং ওয়াশরুম থাকবে ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশনের পাশে।

মেলার প্রবেশপথ: এবারের মেলায় প্রবেশদ্বার মোট চারটি। মেট্রোরেল স্টেশনের অবস্থানগত কারণে গতবারের মূল প্রবেশপথ এবার একটু সরিয়ে বাংলা একাডেমির মূল প্রবেশপথের উলটো দিকে অর্থাৎ মন্দির গেটটি মূল প্রবেশপথ হিসেবে ব্যবহার হবে। এছাড়া টিএসসি, দোয়েল চত্বর ও ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটের (আইইবি) দিকেসহ মোট ৩টি প্রবেশপথ থাকবে।


আরও খবর