Logo
আজঃ Wednesday ২৬ January ২০২২
শিরোনাম
অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে সহ-শিল্পীদের নগ্ন ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। বিদেশের মাটিতে কৃষিপণ্য সরবরাহ বাড়াণোর লক্ষ্যে : ইরান রাজনৈতিক কঠিন চাপে রয়েছেন মেয়র আরিফুল স্বপ্নের মেট্রোরেল রওনা হলো আগারগাঁওয়ের উদ্দেশে ওমিক্রনের সংক্রমণে ভারতে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত নিয়মিত আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ মুরাদ হাসান এমিরেটসের ফ্লাইটে কানাডা গেলেন সাময়িক বরখাস্ত হয়েছেন রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলী মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ আগামী বিশ্বকাপে ব্যাটসম্যানদের উন্নতি দেখতে চান করোনাভাইরাসে আরও ছয়জনের মৃত্যু বিশ্বের ৪৩তম ক্ষমতাধর নারী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

আগামী ৫ দিন যেমন থাকবে আবহাওয়া

প্রকাশিত:Thursday ২৩ December ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ২৩৪জন দেখেছেন
Image

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় কয়েক দিন ধরেই বেশ শীত পড়ছে। চলতি সপ্তাহে কয়েকটি জেলার তাপমাত্রা শৈত্যপ্রবাহের পর্যায়েও নেমে যায়। যদিও দেশে আগামী পাঁচ দিন আবহাওয়া পরিবর্তনের কোনো সম্ভাবনা নেই। তবে চলতি মাসের শেষ দিকে তাপমাত্রা কিছুটা বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আবহাওয়াবিদ ওমর ফারুক বলেন, বৃহস্পতিবার (২৩ ডিসেম্বর) ও শুক্রবার (২৪ ডিসেম্বর) তাপমাত্রা সামান্য কিছুটা কমতে অথবা বাড়তে পারে। বৃষ্টির সম্ভাবনাও কম। তবে আগামী আগামী পাঁচ দিন আবহাওয়া পরিস্থিতিতে তেমন কোনো পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই।

বুধবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানা গেছে, দেশের ব্রাহ্মণবাড়িয়া, কিশোরগঞ্জ জেলা এবং সিলেট ও ময়মনসিংহ বিভাগে হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ীভাবে আকাশ মেঘলা থাকতে পারে। কোথাও কোথাও কুয়াশা পড়তে পারে। দিনে ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকবে। এ মাসে নতুন করে শৈত্যপ্রবাহের আশঙ্কা নেই বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

এদিকে, গতকাল বুধবার দেশে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল টেকনাফে ২৬ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল তেঁতুলিয়ায় ৮ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় গতকাল বুধবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।


আরও খবর



বালু নদে নাব্যতা সংকটে আটকে আছে অসংখ্য বালুবাহী বালুভর্তি বাল্কহেড, কোটি কোটি টাকার লোকসান।

প্রকাশিত:Saturday ১৫ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ৯৪জন দেখেছেন
Image


মো. বজলুর রহমানঃ

রাজধানীর কোলঘেষা বালু নদে নাব্যতা সংকট দেখা দিয়েছে চরম আকারে। এ কারণে প্রতিনিয়ত ওই নদে আটকে যাচ্ছে বালুবাহী মাঝারি ও বড় বালুভর্তি বাল্কহেড। গত ৫ দিন ধরে ঢাকার ভাটারা থানাধীন বালু নদের বেরাইদ এলাকায় মক্কা মদিনা ৫, টিউলিপ ও অঞ্জুমান-২ নামে ২৬ হাজার ফুটের ৩ টি বড় বড় বাল্কহেড নাব্যতা সংকটে আটকে যাওয়ায় দীর্ঘ প্রায় ২ কিলোমিটার  বাল্কহেড যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।


আর শুস্ক মৌসুমে প্রায়ই এ ধরণের ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ রয়েছে। এতে শীতকালে শত শত কোটি টাকার বাল্কহেড বিনিয়োগকারীদের কোটি কোটি টাকার লোকসান গুণতে হয় বলেও অভিযোগ রয়েছে। একই সঙ্গে বাল্কহেড শ্রমিকের মজুরিতেও চরম ভাটা পড়ে বলে পারিবারিকভাবে তারা অনাহারে অর্ধাহারে দিন কাটায়। এদিকে আটকে পড়া বাল্কহেডের লাখো শ্রমিকরা বিগত করোনাকালীন পরিস্থিতি মোকাবেলায় এখনো ঋণের বোঝা বইছেন বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।


সরজমিন দেখা গেছে,শুক্রবার বিকেলেও বেরাইদ বাজার এলকায় নাব্যতা সংকটে বালু নদের পানি কম থাকায় ৪ দিন ধরে আটকে আছে বালুভর্তি ৩ টি বড় বাল্কহেড। এতে করে অন্যান্য শতাধিক বাল্কহেড ওই নদে আটকে গিয়ে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে শ্রমিকরা নদের পঁচা পানির মধ্যেই বন্ধ বাল্কহেডে দিনাতিপাত করছেন। খাওয়া দাওয়া ও নামাজ পড়ছেন বাল্কহেডেই। জটে আটকা পড়ে শ্রমিকরা অলস সময় পাড় করছেন।


এ বিষয়ে রমজান আলী নামে সাদিয়া ২ নামের এক বাল্কহেড শ্রমিক বলেন, গত ৫ দিন ধরে বালু নদের পঁচা পানিতে আটকে মশার কামড় খাচ্ছি। খোরাকির টাকাও নাই হাতে।মালিক বিকাশে টাকা পাঠাচ্ছে আর খাচ্ছি কিন্তু টাকার অভাবে বাড়ির লোকেরা খাওয়ায় কষ্ট করছে। নদিটা গভীর থাকলে সমস্যায় পড়তামনা।


সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, খনন বা ড্রেজিংয়ের অভাবে গত কয়েক বছর ধরে বালু নদে ফকিরখালি, বেরাইদ, নাওড়া ও নগরপাড়া এলাকায় নাব্যতা সংকট দেখা দিয়েছে। এ সব এলাকায় অন্তত ১২ হাত পানির প্রয়োজন হয় বাল্কহেড চলাচল করতে। এক্ষেত্রে এসব এলাকায় এখন ৭ হাত পানি পাওয়া যাচ্ছে। তবে এ নদের ৩১ টি মৌজায় বিআইডাব্লিউটিএ কর্তৃক ২০১৩-১৪ সালে রক্ষণাবেক্ষণ (মেইনট্যানেন্স) ড্রেজিং করা হয়েছে। তারপর আর কোন খনন বা ড্রেজিং করা হয়নি বলে নদের তলদেশ অনেক ভরাট হয়ে গেছে। আর এ নদ দিয়ে বাল্কহেডের মাধ্যমে বালু বহন করে শহরের নি¤œাঞ্চলগুলো ভরাট করে আধুনিক নগরে রূপান্তর করা হচ্ছে। অথচ নাব্যতা সংকটে তা ব্যহত হচ্ছে চরমভাবে। তবে শুস্ক মৌসুমে নাব্যতা সংকটে এ নদ দিয়ে ১২শ’ থেকে ১৬শ’ ফুটের বেশি বড় বাল্কহেড চলাচল করতে পারেনা।  

 

সরেজমিন দেখা গেছে, ঢাকার ক্ষিলগাঁও থানাধীন বালু নদের ইটাখোলা থেকে ইদারকান্দি, ফকিরখালি ও ভাটারা থানাধীন বেরাইদ বাজার এলাকা পর্যন্ত বালুভর্তি বাল্কহেডের দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। আর নাব্যতা সংকটেই গত ৪ দিন ধরে এ যানজট সৃষ্টি হয়েছে বলে তা অপসারণ করা যাচ্ছেনা। এক্ষেত্রে জোয়ারের পানির অপেক্ষায় রয়েছে দীর্ঘ প্রায় দুই মাইলের বাল্কহেড যানজট। তাছাড়া প্রতিবছরই ঢাকার বালুরপাড়, ফকিরখালি, ইদারকান্দি, বেরাইদসহ বালু নদের অধিকাংশ এলাকায় নাব্যতা সংকট দেখা দেয়। নদের তলদেশ ইতিমধ্যে ভরাট হয়ে গেছে।


এ বিষয়ে বেরাইদ বাজার এলাকার বাল্কহেড ব্যবসায়ী আকবর হোসেন বলেন, বড় ৩ টি বাল্কহেড বালু নদে প্রবেশ করায় এ দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। তারা জানা সত্বেও কেন এত বড় লোড জাহাজ এ নদ দিয়ে আনল বুঝলামনা। এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন।


এ বিষয়ে বেসরকারি সংগঠন বাংলাদেশ পরিবেশ ও নদী রক্ষা উন্নয়ন ফাউন্ডেশন (ইআরপিডিএফ) প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান  এইচ এম সুমন বলেন, বালু নদে নাব্যতা ফিরিয়ে আনতে বৃহৎপরিকল্পনা প্রয়োজন যা নিয়ে আমরা কাজ শুরু করেছি। একই সঙ্গে নদী বাঁচাতে জলাবায়ু ঝুঁকি রাশের লক্ষ্যেও কাজ করছি। সরকারের একার পক্ষে সম্ভব নয় বলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষদের নিয়ে দ্রুত জরুরী এসব কাজ সমাধানে সবার এগিয়ে আসতে হবে।


এ বিষয়ে ঘটনাস্থলে টঙ্গী নদী বন্দরের সহকারী সমন্বয় কর্মকর্তা সমর কৃষ্ণ সরকার বলেন, নাব্যতা সংকট বালু নদে চরম। জরুরী ভিত্তিতে খনন প্রয়োজন, প্রয়োজন বৃহৎ পরিকল্পনারও। এত বড় বাল্কহেড যানজট লাগার একমাত্র কারণই হচ্ছে নাব্যতা সংকট।

আর জোয়ারের পানি না আসা পর্যন্ত এ যানজট নিরসন সম্ভব নয়। রোইদ এলাকায় অনেকভাবে চেষ্টা করা হচ্ছে যানজট নিরসনে। এখানে ১২ হাত গভীর পানির প্রয়োজন,অথচ পাওয়া যাচ্ছে ৭ হাত।


আরও খবর



দেশের উন্নয়ন ও মানবসেবায় অবদান রাখতে সবাইকে চেয়ারম্যান-মেম্বার হতে হয় না: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

দেশের উন্নয়ন ও মানবসেবায় অবদান রাখতে সবাইকে চেয়ারম্যান-মেম্বার হতে হয় না: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

প্রকাশিত:Friday ০৭ January ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৫ January ২০২২ | ১৩১জন দেখেছেন
Image


নিজস্ব প্রতিবেদক 

মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখতে এবং দেশকে উন্নত-সমৃদ্ধকরণে অবদান রাখতে সবাইকে মেম্বার-চেয়ারম্যান হতে হয় না বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম।


মেম্বার-চেয়ারম্যান না হলে কারো জীবন ব্যর্থ হয়ে যাবে এমনটি ভাবা ঠিক নয়। জনপ্রতিনিধি না হয়েও মানসিকতা এবং দেশপ্রেম থাকলে দেশের উন্নয়নে অবদান রাখা যায় বলেও মন্তব্য করেন মন্ত্রী।


আজ রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে কুমিল্লা সাংবাদিক ফোরাম ঢাকার (সিজেএফডি) দ্বি বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।


মন্ত্রী বলেন, আমাদের মধ্যে শ্রেণীভেদ আছে, পেশার ভিন্নতা, ধর্মীয় ও বর্ণের পার্থক্য আছে।  ভিন্নতা থাকতে পারে কিন্তু আমরা মানুষ। যার যা প্রাপ্য সম্মান তাকে দিতে হবে। সকল পেশার প্রতি সম্মানবোধ রাখা উচিত। দেশের উন্নয়নে কাউকে হেয় করার সুযোগ নেই। কাউকে বাদ দিয়ে উন্নত দেশ গড়া সম্ভব নয়। তাই সব ভেদাভেদ ভুলে দেশের উন্নয়নে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।


তিনি জানান, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহকে শক্তিশালী এবং যুগোপযোগী করতে জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা এবং সিটি কর্পোরেশনের আইনে সংশোধন আনা হচ্ছে। ইতোমধ্যে জেলা পরিষদ এবং পৌরসভার খসড়া সংশোধনী মন্ত্রিপরিষদে পাশ হয়েছে।

তিনি আরও জানান, পৌরসভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা-সিইও নিয়োগ প্রদান নিয়ে সমালোচনা হলেও এই নিয়োগের ফলে নিয়োগকৃত পৌরসভায় রাজস্ব আদায়ে ব্যাপক পরিবর্তন আসছে। মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব গ্রহণের মাত্র ৩৮ টি পৌরসভা কর্মচারীর বেতন দিতে পারতো উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন উদ্যোগের ফলে এখন অধিকাংশ পৌরসভা কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করছে।


ঢাকার চারপাশে নদীর দখলমুক্ত, দূষণরোধে এবং নাব্যতা ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে গঠিত মন্ত্রিসভা কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালনের কথা উল্লেখ করে মোঃ তাজুল ইসলাম জানান, ঢাকা শহরে অনেক নদী ও খাল বেদখল হয়ে গেছে। সেগুলো উদ্ধারে দুই সিটি কর্পোরেশন এবং বিআইডব্লিউটিএ অভিযান চালাচ্ছে। অনেক উদ্ধারও করা হয়েছে।


এপ্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, কল্যাণপুরে ওয়াটার রিটেনশন পন্ডের জন্য রাখা ১ শো ৭৩ একর জায়গার মধ্যে মাত্র সাড়ে তিন একর জায়গা ছাড়া বাকি সব দখল করে ঘর বাড়ি তৈরি করা হয়েছে। এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে জায়গা দখল মুক্ত করার জন্য সিটি করপোরেশনকে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। 


ড্যাপ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ২০২১ সালের প্রথম দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে ডিটেইল এরিয়া প্ল্যান (ড্যাপ) এর আহ্বায়ক করেন। গত এক বছর করোনার সংকটেও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের সঙ্গে সেমিনার ও মতবিনিময় করেছি। নানান সমস্যা সমধান করে সর্বশেষ ৩০ ডিসেম্বর মন্ত্রিসভা কমিটি চুড়ান্ত করে। এখন গ্যাজেটের অপেক্ষায় রয়েছে।


মো. তাজুল ইসলাম বলেন, সারা দেশের ন্যায় কুমিল্লাতেও ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালিত হচ্ছে। বেশ কিছু উন্নয়ন প্রকল্প নেয়া হয়েছে। এগুলো বাস্তবায়িত হলে বৃহত্তর কুমিল্লার ব্যাপক পরিবর্তন আসবে। কুমিল্লার উন্নয়নের জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিকসহ সকল শ্রেণী-পেশার মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান। কুমিল্লা শহরকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে আধুনিক ও দৃষ্টিনন্দন শহরে পরিণত করতে সবাইকে ভূমিকা রাখতেও বলেন মন্ত্রী।


তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মানুষের হৃদয়কে জয় করেছিলেন বলেই তাঁর ডাকে সাড়া দিয়ে জীবন বাজি রেখে লাখো বাঙালি এদেশের স্বাধীনতার জন্য লড়াই-সংগ্রাম করেছে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করায় তিনি তাঁর স্বপ্ন পূরণ করতে না পারলেও যোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মানে দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।



কুমিল্লা সাংবাদিক ফোরামের জন্য ঢাকায় একটি অফিস স্থাপনের সাথে একমত পোষণ করে পাশে থাকার ঘোষণা দেন মন্ত্রী। এই অফিস জ্ঞান চর্চার কেন্দ্রবিন্দু হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।


সিজেএফডির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শরীফুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মোজাফফর হোসেন পল্টু, সাংবাদিক নেতা শওকত মাহমুদ, বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজাম, একাত্তর টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোজাম্মেল বাবু, সিজেএফডির সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন,  সাবেক সভাপতি মাহমুদুর রহমান খোকন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক দিদারুল আলম।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা


আরও খবর



মানিকগঞ্জে সরকারি নির্দেশ অমান্য করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা।

প্রকাশিত:Tuesday ২৫ January ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৫ January ২০২২ | ৫০জন দেখেছেন
Image

প্রধান শিক্ষক আব্দুল রহিম

বজলুর রহমান

করোনা ভাইরাসের কারণে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে সরকার। কিন্তু সরকারি নির্দেশ অমান্য করে এবং সাস্থ ঝুঁকি নিয়ে ক্লাস নিচ্ছেন মানিকগঞ্জ জেলার হরিরামপুর থানার মানিক নগর বাজারের পদ্মা আইডিয়াল কিন্ডার গার্ডেনের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহিম। তিনি প্রতিষ্ঠান খোলা রেখে নিয়মিত ক্লাস পরিচালনা করে আসছেন। মঙ্গলবার সকালে এই দৃশ্য এলাকার অভিভাবকদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।


পরে সাংবাদিকদের উপস্থিতি টের পেয়ে দ্রুত শিক্ষার্থীদের ছুটি দিয়ে দেন প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহিম। শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা জানায় জোর করে তাদের ক্লাসে আসতে বাধ্য করছেন প্রধান শিক্ষক। তারা আরো জানায় স্কুলে অনুপস্থিত থাকলে তাদের স্কুল থেকে বের করে দেওয়া হবে। এই হুমকির মুখে তারা স্কুলে আসতে বাধ্য হচ্ছে।


স্কুলে গিয়ে দেখা যায় সকল শিক্ষক উপস্থিত। প্রধান শিক্ষক কাজে ব্যস্ত। প্রতিষ্ঠানের সামনে জাতীয় পতাকা উড়ছে। কয়েকজন শিক্ষক জানায় তারা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন কিন্তু প্রধান শিক্ষক কিছুতেই মানেন না সরকারি নির্দেশনা। প্রধান শিক্ষক বলেন সরকারি নিয়ম মানলে প্রতিষ্ঠান চালানো যাবেনা।


কয়েকজন সাংবাদিক প্রধান শিক্ষক আবদুর রহিমকে এই বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি জানান আপনারা এত খারাপ কেন। আমার প্রতিষ্ঠান খোলা রাখি আর বন্ধ রাখি সেটা আমার ব্যাপার। সরকারের সব সিদ্ধান্ত মেনে আমার প্রতিষ্ঠান চালাতে পারবো না।


এই বিষয়ে মানিকগঞ্জ হরিরামপুর সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার মাহফুজা আক্তার বলেন বিষয়টি আমি শিক্ষা অফিসার কে জানাচ্ছি এবং বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নিতে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে।


আরও খবর



নাসিরনগরে আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত- ১

প্রকাশিত:Thursday ০৬ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১৫০জন দেখেছেন
Image


মোঃ আব্দুল হান্নানঃ

নিজেদের আধিপত্য বিস্তার কে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক অরুন জ্যোতি ভট্রাচার্য্য আহত হয়ে নাসিরনগর হাসপাতালে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।


জানা গেছে সন্ধ্যা ৫ জানুয়ারী ২০২২রোজ বুধবার নাসিরনগর উপজেলা আওয়ামী লীগ অফিসে অরুণ জ্যােতি ও সাবেক উপজেলা যুবলীগ সভাপতি  অঞ্জন কুমার দেবের মাঝে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে একটি প্রস্তাবিত রাস্তা নির্মাণ নিয়ে  তুমুল বাক বিতন্ডা হয়।


জানা গেছে উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে উপস্থিত সকলের সামনে অঞ্জন কুমার দেব কে প্রকাশ্যে হুমকি প্রদান করেন অরুন জ্যোতি ভট্রাচার্য্য।এক পর্যায়ে দুই জনের মধ্যে হাতাহাতির উপক্রম হয়।ঘটনাটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে অরুণ ঘটনাস্থল থেকে চলে যান।


পরে বিষয়টি মিট করে দেয়ার কথা বলে অরুণকে ফোন দিলে আওয়ামীরীগের স্থানীয় ফোনে দলীয় নেতাদের সামনে অঞ্জন দেবের সমর্থকদের হামলার শিকার হয় আওয়ামী লীগ নেতা অরুন জ্যোতি ভট্রাচার্য্য। 


প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায় এ সময় অরুণ জ্যােতিকে বেদম মার ধর করা হয় ।অরুণের মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শীরা।অরুন কে রাতেই নাসিরনগর উপজেলা সাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে হসপিটালের আই সি ইউতে রাখা হয়েছে বলে জানা গেছে। 


এই সময় অরুনকে দেখতে হাসপাতালে যান উপজেলা চেয়ারম্যান রাফিউদ্দিন আহমেদ,নাসিরনগর সদর ইউনিয়ন পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান পুতুল রানী দাস,গুনিয়াউক ইউপির চেয়ারম্যান মোঃ জিতু মিয়া,সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান প্রদীপ কুমার রায়,ছাত্র লীগ আহবায়ক নাসিরুদ্দিন রানা, আওয়ামীলীগ নেতা হাকিম রাজা, যুব লীগ নেতা অবিদ খান সহ আরো অনেকে। এ সময় সকলেই ওই অনাকাঙ্খিত ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন।তবে সর্বশেষ খবর অনুযায়ী অরুন জ্যোতি বর্তমানে  অনেকটা সুস্থ্য আছেন বলে হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে।



আরও খবর



আসন্ন ২নং বাকশীমুল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৬নং ওয়ার্ডে মেম্বার পদপ্রার্থী রফিজুল ইসলাম টিউবওয়েল প্রতীক জনপ্রিয়তার শীর্ষে

প্রকাশিত:Sunday ২৩ January ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৫ January ২০২২ | ৭২জন দেখেছেন
Image


স্টাফ রিপোর্টারঃ 

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কুমিল্লা বুড়িচং উপজেলার ২নং বাকশীমুল ইউনিয়ন পরিষদ  ৬নং ওয়ার্ডে মেম্বার পদপ্রার্থী মোঃ রফিজুল ইসলাম টিউবওয়েল প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দীতা করছেন।এই ওয়ার্ডের প্রতিটি আনাচে কানাচে প্রতিদিন চলছে তার নির্বাচনী গনসংযোগ।ওয়ার্ডে আসন্ন নির্বাচন উপলক্ষে মেম্বার প্রার্থীদের মধ্যে জনপ্রিয়তার শীর্ষে অবস্থান সাবেক মেম্বার মোঃ রফিজুল ইসলামের। জনগণ চাচ্ছে একজন সৎ ও নীতিবান জনপ্রতিনিধি হিসেবে তিনি নির্বাচিত হোক।


যিনি মানবসেবক হয়ে ৬ নং ওয়ার্ডের জনগণের পাশে দাঁড়াবে। ঠিক তেমনি একজন যোগ্য প্রার্থী, বিশিষ্ট সমাজসেবক মোঃ রফিজুল ইসলাম।মাদক ইভটিজিংমুক্ত যুব সমাজ গড়তে তিনি  সর্বসময় সোচ্চার।৬ নং ওয়ার্ডের জনগণের দুঃখ-দুর্দশা নিরসনের জন্য আসন্ন নির্বাচনে একজন মেম্বার পদপ্রার্থী মোঃ রফিজুল ইসলাম। জনগণের প্রত্যাশা অনুযায়ী সেবামূলক কার্যক্রম করার জন্য ৬ নং ওয়ার্ডের জনগণের মনোনীত মেম্বার পদপ্রার্থী।  উন্নয়নের লক্ষ্যে এই ওয়ার্ড টিকে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত করতে চান তিনি।মাদক সন্ত্রাস নির্মূলের জন্য কাজ করবেন।


পাশাপাশি যুবসমাজের জন্য সাংস্কৃতিক বিনোদন ও খেলাধুলার ব্যবস্থা করে দেবেন বলেও বিশ্বাস এলাকাবাসীর। শিক্ষার হার শতভাগ সুনিশ্চিত করার লক্ষ্যে দরিদ্র শিক্ষার্থীদের জন্য বিনামূল্যে বেতন বিহীন কিন্ডারগার্টেন ও প্রাইভেট স্কুল গুলোতে পড়াশোনা করতে পারে সেই ব্যবস্থা করবেন তিনি। ২ নং বাকশীমুল ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের সুষ্ঠু বিচার সালিশের জন্য এই ওয়ার্ডের প্রতিটি এলাকার পঞ্চায়েত কমিটির সমন্বয়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে বিচার সালিশি সম্পন্ন করবেন।বড় আনন্দপুর এলাকার মরহুম আব্দুল গফুর সরদার এর সুযোগ্য পুত্র মোঃ রফিজুল ইসলাম বলেন আমি কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী। জনগন সঠিক রায় দিলে আসন্ন নির্বাচনে টিউবওয়েল প্রতীকের জয় অবশ্যম্ভাবী।


আগামী ৭ ফেবৃুয়ারী ২০২২ ইং তারিখে অনুষ্ঠিত হবে বুড়িচং উপজেলার ২নং বাকশীমুল ইউনিয়ন পরিষদ এর ভোটগ্রহন।মোঃ রফিজুল ইসলামের বড় ভাই জহিরুল ইসলাম বলেন,এলাকায় পুর্বেও আমার ভাই মেম্বার নির্বাচিত হয়ে জনগনের পাশে থেকে কাজ করেছেন,আবার সে ভোটে নির্বাচিত হলে এলাকার উন্নয়ন করবে,আমি তার জয়ের বিষয়ে শতভাগ আশাবাদী।


-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 

আরও খবর