Logo
আজঃ শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪
শিরোনাম
কক্সবাজারে পাহাড় ধসে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু বন্ধ শিল্প প্রতিষ্ঠান চালুর পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে: শিল্পমন্ত্রী বাংলাদেশের হার দিয়ে সুপার এইট শুরু গোদাগাড়ীতে রাসেল ভাইপারের চিকিৎসার দাবিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রীর কাছে চিঠি দিয়েছে নাগরিক স্বার্থ-সংরক্ষণ কমিটি রূপগঞ্জে জমে উঠেছে কাঞ্চন পৌরসভা নির্বাচন যাত্রাবাড়ীতে পুলিশ কর্মকর্তার বাবা মাকে কুপিয়ে হত্যা যানজট নিরসনে সংসদ সদস্যগণের সাথে ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগের সমন্বয়সভা ভোলায় ফের দেখা মিলল রাসেল ভাইপার, জনমনে আতঙ্ক বাজেট পাস হয়নি,অনেক কিছু পুনর্বিবেচনা করা সম্ভব: অর্থমন্ত্রী দেশের সব মহৎ অর্জন আ. লীগের মাধ্যমেই হয়েছে: ওবায়দুল কাদের

আদম তমিজীকে আ.লীগ থেকে স্থায়ী বহিষ্কারের প্রস্তাব

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ | ১৮৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:ফেসবুকে লাইভে এসে দলীয় শৃঙ্খলা বিরোধী কথাবার্তা ও বাংলাদেশের পাসপোর্ট পুড়িয়ে ফেলায় আদম তমিজী হককে আওয়ামী লীগ থেকে স্থায়ী বহিষ্কারের জন্য দলের সভাপতি বরাবর চিঠি দিয়েছে ঢাকা মহানগর উত্তর শাখা। 

রোববার (১৭ সেপ্টেম্বর) ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক এসএম মান্নান কচির স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে তারা এই প্রস্তাব করেন।

একইদিন আদম তামিজী হক ইস্যুতে জরুরি বৈঠকে বসে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ। সাধারণ সম্পাদক এসএম মান্নান কচির বাসায় অনুষ্ঠিত হওয়া বৈঠকে তামিজী হককে বহিষ্কারের বিষয়ে মত দেন মহানগরের নেতারা।

এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান বলেন, তার ভিডিওটি আমাদের যথেষ্ট বিব্রত করেছে। তিনি শুধু দলীয় বিষয়ে বলেছেন সেটা নয়, তিনি বাংলাদেশের পাসপোর্ট পুড়িয়েছেন, এটা রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম মান্নান কচি বলেন, বিষয়টি সামাজিক মাধ্যমে শুনেছি। যদি সত্যি সত্যি এমন কিছু বলে থাকেন তাহলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যদি পাসপোর্ট পুড়িয়ে থাকেন তাহলে সেটা রাষ্ট্রবিরোধী কাজ হয়েছে। এটার অপমান করলে অবশ্যই দেশকে অপমান করা হয়।

শনিবার সন্ধ্যায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। যেখানে দেখা যায়, আদম তমিজী হক নিজের বাংলাদেশি পাসপোর্ট পুড়িয়ে ফেলছেন।

সেই ভিডিওতে আদম তমিজী হক বলেন, আওয়ামী লীগের একজন নেতা ছিলাম আমি। আওয়ামী লীগ আমার ১ হাজার কোটি টাকা মেরে দিয়েছে। আমাকে দেশ ছাড়া করেছে। আমাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে জেল খাটানোর চেষ্টা করছে। যে কারণে আমি বাংলাদেশের নাগরিকত্ব বর্জন করলাম। এ দেশের নাগরিকত্ব আর চাচ্ছি না। কারণ, এদেশের নাগরিক হওয়ার যোগ্যতা আমার নেই।


আরও খবর



শুল্ক ফাঁকি দিতে কোড জালিয়াতি পশুখাদ্য বলে খাবার গুড় আমদানি 

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ৯২জন দেখেছেন

Image

আব্দুস সবুর তানোর থেকে:দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে হঠাৎ ভারতীয় গুড় আমদানি বেড়ে গেছে। চলতি অর্থবছরে এ স্থলবন্দর দিয়ে গুড় এসেছে ১৩১ টন। তবে গুরুতর অভিযোগ হলো মিথ্যা ঘোষণা দিয়ে মানুষের খাওয়ার গুড়কে কাগজেকলমে পশুখাদ্য দেখিয়ে কোটি কোটি টাকার রাজস্ব ফাঁকি দেওয়া হচ্ছে। এছাড়াও কোড জালিয়াতির মাধ্যমেও দেয়া হয়েছে রাজস্ব ফাঁকি। এসব অনিয়মের তীর গোদাগাড়ী উপজেলা পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান বেলাল উদ্দিন সোহেল ও তার প্রতিনিধি জুয়েলের বিরুদ্ধে বলেও একাধিক সুত্র নিশ্চিত করেন।  

 
সংশ্লিষ্টরা এ অভিযোগ অস্বীকার করলেও গুড় আমদানি বেড়ে যাওয়ায় কিছুটা অবাক কাস্টমস কর্মকর্তারাও। তারা বলছেন, এর আগের বছরগুলোয় এ স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে গুড় আমদানির রেকর্ড নেই। অন্যদিকে গত সপ্তাহে মিথ্যা ঘোষণায় আনা ফেব্রিক্সসহ বিভিন্ন শৌখিন পণ্য ধরা পড়ায় আমদানি কারক এক প্রতিষ্ঠানকে ৪৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।  
 
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, মিথ্যা ঘোষণা দিয়ে মানুষের খাওয়ার গুড়কে পশুখাদ্য চিটাগুড় হিসাবে দেখিয়ে আমদানি করে রাজস্ব ফাঁকি দেওয়ার বিষয়ে গত বছরের শেষদিকে দুর্নীতি দমন কমিশন থেকে এনবিআর চেয়ারম্যানকে চিঠি দেওয়া হয়েছিল। দুদক কোড জালিয়াতি করে শুল্ক ফাঁকি রোধে ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করেছিল। 
 
ওই চিঠিতে বলা হয়েছিল, আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান মেসার্স এসবি ট্রেডার্স ও মেসার্স ন্যাশনাল কনসালটেন্ট অ্যান্ড কনস্ট্রাকশন যোগসাজশে মিথ্যা তথ্য ও ঘোষণা দিয়ে কোটি কোটি টাকার রাজস্ব ফাঁকি দিচ্ছে। দুদক প্রাথমিক অনুসন্ধানেও এমন অভিযোগের সত্যতা পায়।
 
এদিকে সোনামসজিদ কাস্টমসের রাজস্ব কর্মকর্তা ইব্রাহিম হোসেন দাবি করেছেন, ভারত থেকে প্রচুর পরিমাণে লিকুইড গুড় মানুষের খাওয়ার যোগ্য হিসাবে যথাযথ ঘোষণা দিয়ে আমদানি করা হয়। মিথ্যা ঘোষণায় আমদানির বিষয়টি তার জানা নেই। তবে এ ধরনের অভিযোগ ওঠার পর কাস্টমসের পক্ষ থেকে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে গুড়ের নমুনা পাঠানো হয়েছিল। তারা জানিয়েছেন, এগুলো মানুষের খাওয়ার উপযোগী। কিন্তু আমদানিকারক চিটাগুড়ের শুল্ক দিয়েছেন বলে জানা গেছে। যাকে বলে শুভঙ্করের ফাঁকি।  
 
জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যানকে দেওয়া দুদকের ওই চিঠিতে আরও বলা হয়েছে, গত বছরের ১৮ জানুয়ারি সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে ২ হাজার ৬১০ কার্টন গুড় আমদানি করে মেসার্স এসবি ট্রেডার্স। যার শুল্কায়ন মূল্য প্রতি টন ৩১০ ডলার। ওই বছরেরই ২১ জানুয়ারি আরেকটি বিল অব এন্ট্রির মাধ্যমে ২ হাজার ৭৬০ কার্টন গুড় আমদানি করে মেসার্স ন্যাশনাল কনসালটেন্ট অ্যান্ড কনস্ট্রাকশন। যার শুল্কায়ন মূল্য টনপ্রতি ধরা হয় ২০০ ডলার। তবে যে কোডে শুল্কায়ন করে গুড় খালাস করা হয়, তা পশুখাদ্য চিটাগুড়ের কোড। এত বড় জালিয়াতি হলেও রহস্য জনক ভাবে কর্তৃপক্ষ নিরব ভূমিকায়।  
 
উল্লেখ্য,  চিটাগুড় আমদানিতে টনপ্রতি শুল্ক দিতে হয় ২০০ মার্কিন ডলার। আর মানুষের খাওয়ার গুড় টনপ্রতি শুল্কের পরিমাণ ৪৫০ ডলার। এভাবেই কোড জালিয়াতি করে গুড় আমদানি করার ফলে টনপ্রতি ২৫০ ডলার বা ৩০ হাজার টাকা শুল্ক ফাঁকি দেওয়া হয়েছে। এ গুড় আমদানির সঙ্গে একটি শক্তিশালী চক্র জড়িত বলে অভিযোগ উঠেছে। 
 
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক আমদানিকারক বলেছেন, গোদাগাড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান বেলাল উদ্দিন সোহেল ও তার এক ভাই বিভিন্ন আমদানিকারকের লাইন্সেস ব্যবহার করে নামে-বেনামে বিপুল পরিমাণে বিভিন্ন পণ্য আমদানি করছেন। তারা সোনামসজিদ ছাড়াও বেনাপোল বন্দরও ব্যবহার করেন এবং শুল্ক ফাঁকি দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে নানা ধরনের পণ্য বিশেষ করে কোড জালিয়াতি করে এক পণ্যকে আরেক পণ্য দেখিয়ে আনছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। আবার বেশি পণ্য এনে কম ঘোষণা দিয়েও তারা বিপুল রাজস্ব ফাঁকির সঙ্গে জড়িত। এমনকি ঢাকার ইসলামপুরের বিভিন্ন ব্যবসায়ীর নামেও তারা ফেব্রিক্সসহ বিভিন্ন দামি বস্ত্রসামগ্রী আমদানি করেন। সোহেল-জুয়েল ভাইদের দাপটে অনেকটা অসহায় সাধারণ আমদানিকারকরা। এ চক্রের সঙ্গে শুল্ক বিভাগের কতিপয় কর্মকর্তার রয়েছে অলিখিত গভীর সম্পর্ক। যার কারনে দাপটের সাথে কোড জালিয়াতি করে এধরণের পণ্য আমদানি করে কোটি কোটি টাকার রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছেন চক্রটি। 
 
সোনামসজিদ আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশিদ বলেন, এ স্থলবন্দর দিয়ে অনেকেই নামে-বেনামে ব্যবসা করেন বলে জানি। হঠাৎ কেন গুড়ের আমদানি বেড়েছে বোঝা যাচ্ছে না।
 
এদিকে জানা যায়, কয়েকদিন আগে মিথ্যা ঘোষণায় অতিরিক্ত পণ্য আমদানির অভিযোগে পরিমা ইন্টারন্যাশনাল নামের একটি প্রতিষ্ঠানকে প্রায় অর্ধকোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছে। রাজশাহী বিভাগীয় কাস্টমসের যুগ্ম কমিশনার মাহবুব হাসান ওই প্রতিষ্ঠানটিকে ৪৫ লাখ টাকা জরিমানা করেন। পণ্যগুলোর সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট হিসাবে কাজ করেছে সানিট্রান্স ইন্টারন্যাশনাল। তবে অভিযোগ রয়েছে, গোদাগাড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান ও তার ভাই জুয়েল মিথ্যা ঘোষণা দিয়ে শুল্ক ফাঁকি দেওয়ার উদ্দেশ্যে অতিরিক্ত পণ্য আমদানি করে আসছেন। কিন্তু ওজন স্কেলে ধরা পড়ায় তারাই তড়িঘড়ি করে জরিমানা পরিশোধ করে ঘটনাটি ধামাচাপা দেন। চেয়ারম্যান সোহেলের প্রতিনিধি জুয়েল যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তার দাবি, তারা এই চালানের সঙ্গে জড়িত নন।

আরও খবর



নতুন সেনাপ্রধান ওয়াকার-উজ-জামান

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ৮৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান সেনাবাহিনী প্রধান হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন।

মঙ্গলবার (১১ জুন) আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, আগামী ২৩ জুন অপরাহ্ন থেকে বিএ-২৯০২ লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান, ওএসপি, এসজিপি, পিএসসি, চিফ অব জেনারেল স্টাফ (সিজিএস)-কে জেনারেল পদবিতে পদোন্নতি প্রদানপূর্বক ওই তারিখ অপরাহ্ন থেকে ৩ বছরের জন্য সেনাবাহিনী প্রধান পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, প্রতিরক্ষা বাহিনীগুলোর প্রধানদের (নিয়োগ, বেতন, ভাতা এবং অন্যান্য সুবিধা) আইন, ২০১৮ অনুযায়ী তিনি বেতনভাতা পাবেন।



আরও খবর



আত্রাইয়ে বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | ৯৮জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি:করবো ভূমি পুনরুদ্ধার, রুখবো মরুময়তা, অর্জন করতে হবে মোদের খরা সহনশীলতা, এই প্রতিপাদ্যে নওগাঁর আত্রাইয়ে উপজেলা বিএমজেড এবং নেট্জ বাংলাদেশের সহযোগিতায় ডাসকো ফাউন্ডেশনের পরিবেশ প্রকল্পের আয়োজনে বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালন করা হয়েছে।

বুধবার ৫ জুন উপজেলার সাহাগোলা ইউনিয়নের ভবানীপুর জিএস উচ্চ বিদ্যালয় থেকে একটি র‌্যালি বের হয়ে ভবানীপুর বাজার পদক্ষিণ করে পুণরায় স্কুলে এসে হলরুমে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সেইসাথে প্লাস্টিক ও পলিথিনের ব্যবহারের ফলে সুন্দর পৃথিবী ও সবুজ শ্যামল জন্মভূমি রক্ষার প্রতিজ্ঞা করে বক্তব্য রাখেন পরিবেশ প্রকল্পের আত্রাই উপজেলা সমন্বয়কারী আবু হেনা মোহাম্মদ ফিরোজ, ভবানীপুর জিএস উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মাহাবুবুর রহমান, এ্যাডভোকেসী এ্যাসিস্ট্যান্ড গোলাম রাব্বানী, স্টুডেন্ট ফোরামের সদস্য মোছাঃ নিশাত। পরে পরিবেসের ভারসাম্য রক্ষায় বৃক্ষের চারা রোপণের শুভ উদ্বোধন করা হয়।


আরও খবর



এক হাটের গরু অন্য হাটে নেওয়া যাবে না : ডিএমপি কমিশনার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ | ১৩২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:ঢাকায় এক হাটের গরু অন্য হাটে নেওয়া যাবে না। কেউ যদি অন্য হাটে গরু নামিয়ে নেয় তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনে ছিনতাই মামলা দেওয়া হবে, বলেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার হাবিবুর রহমান।

মঙ্গলবার (৪ জুন) দুপুরে ডিএমপি সদরদপ্তরের হাট ইজারাদাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে এ কথা বলেন তিনি।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, গরু কোন হাটে যাবে সেটা ব্যবসায়ীরা আগে থেকেই ট্রাকের সামনে ব্যানারে লিখে রাখবেন। প্রয়োজনে ব্যানারে হাটের ইজারাদারের মোবাইল নাম্বার লিখে রাখবেন। এমন কোনো ঘটনা ঘটলে পুলিশ কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

তিনি বলেন, যেখানে গরুর হাট নয় সেখানে যেন হাট না বসে সেটা ব্যবসায়ী এবং সংশ্লিষ্ট পুলিশরা দেখবেন। নদীপথে নৌকা বা ট্রলারে গরু আসলে সেগুলো নৌ পুলিশ দেখভাল করবে। এক্ষেত্রে ডিএমপি নৌ পুলিশ কাজ করবে।

হাবিবুর রহমান বলেন, ম্যাজিস্ট্রেট, স্থানীয় পুলিশ ও হাটের ইজারাদারগণ সমন্বয় করে কাজ করবেন। হাট পরিচালনা কমিটি হাটে স্থানীয় পুলিশের নাম্বার প্রদর্শন করে ব্যানার টানাবেন। প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট সকলকে নিয়ে একটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ খুলবেন।

তিনি আরও বলেন, রাস্তায় যাতে যান চলাচলে অসুবিধা না হয় এজন্য ইজারাদারগণ ব্যারিকেড দিয়ে হাটের সীমানা নির্ধারণ করে দিবেন। জাল নোট সনাক্তকরণে পুলিশ সহায়তা করবে। অজ্ঞান পার্টি মলম পার্টি প্রতিরোধে পর্যাপ্ত পুলিশ থাকবে। ইজারাদারগণ মাইকিং করে সবাইকে সচেতন করবেন।

এ সভায় আসন্ন পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে কোরবানির পশুর হাট সমূহের নিরাপত্তা, মানি এস্কর্ট ও জালনোট সনাক্তকরণ, সার্বিক আইনশৃঙ্খলা রক্ষা এবং ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।


আরও খবর



দুমকিতে দু'চেয়ারম্যান প্রার্থীর ৮ কর্মীর কারাদণ্ড

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | ১০৪জন দেখেছেন

Image

(পটুয়াখালী) প্রতিনিধিঃ রাসেল হোসেন "নিরব"

 পটুয়াখালীর দুমকিতে নির্বাচনী প্রচারণায় বাঁধা দেয়া, উত্তেজনা ও গোলযোগ সৃষ্টির দায়ে  চেয়ারম্যান প্রার্থী  হারুন রশিদ হাওলাদার ও কাওসার আমিন হাওলাদারের ৮ কর্মী-সমর্থকের প্রত্যেককে ৭দিনের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। 

নির্বাচনী দায়িত্বরত নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ জিয়াউল হাসান গত রবিবার রাত সাড়ে ১১টায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচার বসিয়ে আটককৃত ৮ কর্মী-সমর্থকের প্রত্যেককে ৭দিনের কারাদন্ডাদেশ প্রদান করেন।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, সাতানী গ্রামের মৃত- আনোয়ার হোসেনের ছেলে মোঃ শহীদুল ইসলাম (২০), বাহেরচর গ্রামের বজলুর রহমান মাঝির ছেলে সোহাগ (২৪), একই গ্রামের ইউসুব সিকদারের ছেলে রাকিব শিকদার (২২), আইয়ুব আলী মোল্লার ছেলে রিয়াজ মোল্লা (২২), দুমকি গ্রামের আবুল কালামের ছেলে সাইদুল হক (২৫), সাতানী গ্রামের হাবিব হাং এর ছেলে ইমরান হাওলাদার (২৫), দুমকি গ্রামের আঃ লতিফ মৃধার ছেলে হাবিবুর রহমান (খোকন) (৪৩), ঝাটরা গ্রামের মান্নান খানের (কন্ট্রাক্টর) ছেলে সায়েম খান (৩৪)। দন্ডিতদেরকে দুমকি থানা হাজত থেকে আজ সোমবার সকালে জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত রবিবার (২ জুন) রাত সাড়ে ন'টার দিকে আঙ্গারিয়া ইউনিয়নের রূপাশিয়া গ্রামের তালুকদার পাড়ায় জনৈক এসএম ফজলুল হকের অসুস্থ শশুরকে দেখতে যান কাপ পিরিচ মার্কার চেয়াম্যান প্রার্থী কাওসার আমীন হাওলাদার।

খবরপেয়ে মোটর সাইকেল মার্কার শতাধিক কর্মী-সমর্থক ওই বাড়ির সামনে অবস্থান নিয়ে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে নানা উস্কানী মূলক শ্লোগান দেয়। এতে দু'প্রার্থীর কর্মী সমর্থকের মধ্যে তীব্র উত্তেজনা দেখা দেয়। অবস্থা বেগতিক দেখে চেয়ারম্যান প্রার্থী কাওসার আমীন হাওলাদার ওই বাড়ি থেকে বেড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে দু'পক্ষের উত্তেজিত কর্মী সমর্থকদের সাথে হাতাহাতি, ধাক্কাধাক্কি হয়। 

এসময় নির্বাচনী দায়িত্বরত নির্বাহী মেজিষ্ট্রেট জিয়াউল হাসান ঘটনাস্থলে পৌছে দু'পক্ষের অন্ততঃ ১১জনকে আটক করেন। পরে রাত সাড়ে ১১টায় ইউএনও কার্যালয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচার বসিয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় বাঁধা প্রদান, গোলযোগ ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির দায়ে ৮জনের প্রত্যেককে ৭দিনের কারাদন্ডাদেশ দেন।

অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় ৩ কিশোর নয়ন গাজী (১৪), শাহাদত মৃধা (১৫) ও জায়েদ মৃধা (১৪)কে মুচলেকায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে। দন্ডপ্রাপ্তদের ৩জন কাপ পিরিচ ও ৫জন মোটর সাইকেল প্রতীকের কর্মী সমর্থক বলে জানা গেছে।

দুমকি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মোঃ সফিউর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিৎ করে দন্ডপ্রাপ্ত আসামীদের জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে বলে জানান।


আরও খবর