Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

৪ উপকরণে তৈরি করুন কাঁঠালের বীজের সন্দেশ

প্রকাশিত:Saturday ১৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৬৭জন দেখেছেন
Image

কাঁঠালের বীজের স্বাস্থ্য উপকারিতা অনেক। অনেকে কাঁঠালের বীজ দিয়ে তরকারি রান্না করেন। আবার কেউ ভেজে স্ন্যাকস হিসেবেও খান।

কাঁঠালের বীজ দিয়ে আরও বিভিন্ন পদ তৈরি করা যায় যেমন- কাবাব, কাটলেট, ক্ষীর, মিল্কশেক, পুডিং ইত্যাদি। এর আরও এক সুস্বাদু পদ হলো সন্দেশ।

মাত্র ২০ মিনিটে ৪ উপকরণেই তৈরি করা যায় জিভে জল আনা এই মিষ্টান্ন। জেনে নিন কাঁঠালের বীজ তৈরির সহজ রেসিপি-

উপকরণ

১. কাঁঠালের বীজ ১০০ গ্রাম
২. গুঁড়া দুধ ৫ চা চামচ (২৫ গ্রাম)
৩. চিনি ৫ চা চামচ (২৫ গ্রাম)
৪. এলাচি গুঁড়া এক চিমটি

পদ্ধতি

কাঁঠালের বীজের খোসা ছাড়িয়ে নিন। তারপর প্রেসার কুকারে কাঁঠালের বীজ ১০ মিনিটের জন্য সেদ্ধ করুন। নামিয়ে ঠান্ডা করে গায়ের লাল অংশ সরিয়ে নিন।

এরপর বীজ চটকে নিয়ে এর সঙ্গে গুঁড়া দুধ মিশিয়ে নিন। একটি ননস্টিক প্যানে সামান্য ঘি গরম করে এতে চটকে ভর্তা করে নেওয়া কাঁঠালের বীজ মিশিয়ে দিন। তারপর মিশিয়ে দিন চিনি।

১০ মিনিট রান্না করুন। তারপর দেখবেন মিশ্রণটি প্যানের গা ছেড়ে উঠে আসছে। তারপর চুলা বন্ধ করে সবশেষে এক চিমটি এলাচ গুঁড়া উপরে ছড়িয়ে দিন। ভালো করে সন্দেশের মিশ্রণটি নেড়েচেড়ে নিতে হবে।

এরপর অন্য একটি পাত্রে নামিয়ে উপরে সমান করে দিতে হবে। মিশ্রণটি ঠান্ডা হয়ে গেলে সন্দেশের আকারে কেটে নিন। উপরে বাদাম কুচি ছড়িয়ে দিতে পারেন। পুষ্টিকর এই সন্দেশ ফ্রিজে ৪-৫ দিন রাখতে পারবেন।

খুবই সুস্বাদু এই সন্দেশ ডায়াবেটিস রোগীরাও এটি খেতে পারেন। সেক্ষেত্রে এতে কোনো চিনি যোগ করবেন না।


আরও খবর



সিনহার বিরুদ্ধে মামলা, নাজমুল হুদার বিষয়ে আদেশ মঙ্গলবার

প্রকাশিত:Monday ০৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৭২জন দেখেছেন
Image

সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এস কে) সিনহার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করেছিলেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী নাজমুল হুদা। এ নিয়ে তার বিরুদ্ধে করা মামলা বাতিল চেয়ে আবেদনের শুনানি শেষ করেছেন হাইকোর্ট। এ বিষয়ে আদেশ দেওয়ার জন্যে মঙ্গলবার (৭ জুন) দিন ঠিক করেছেন আদালত।

সোমবার (৬ জুন) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদেশের বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক।

আদালতে আজ রাষ্ট্রপক্ষ শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল আন্না খানম কলী। আর দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান।


আরও খবর



পদ্মা সেতুর প্রকৃত ব্যয় বাড়েনি: পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:Saturday ১৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ২৬জন দেখেছেন
Image

পদ্মা সেতুর প্রকৃত ব্যয় যেভাবে শুরু করা হয়েছে সেটি দিয়েই নির্মাণ হয়েছে। এখানে অতিরিক্ত কোনো ব্যয় হয়নি বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. সামসুল আলম।

তিনি বলেছেন, আমরা ব্যয় বাড়ার কথা বলি, কিন্তু ২০১৫ সালে আমরা যে ব্যয় ধরেছি তার সঙ্গে যদি মূল্যস্ফীতিটা ধরা হয় তাহলে হিসাব করলে ২৪ হাজার কোটি টাকা ব্যয় হয়ে যায়। বাকি ব্যয়টা বেড়েছে নদী শাসনের ফলে। ১২ কিলোমিটার নদী শাসন করার কথা ছিল, সেটা হয়েছে ১৪ কিলোমিটার। এছাড়া মাঝের দুইটি পিলার করতে গিয়ে দেখা গেছে তলদেশ পাওয়া যাচ্ছে না। ফলে সেটাতে আরও বাড়তি ব্যয় হয়েছে। আরেকটি বিষয় ছিল তিনগুণ দামে জমিগুলো নিতে হয়েছে। এতে ৩০ হাজার কোটিতে গিয়ে দাঁড়িয়েছে সেতুর ব্যয়।

শনিবার (১৮ জুন) বেলা ১১টায় রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ‘শেখ হাসিনার পদ্মা সেতু নির্মাণ: বিশ্ব ব্যবস্থায় বাংলাদেশ তথা উন্নয়নশীল দেশসমূহের এক যুগান্তকারী বিজয়’ শীর্ষক জাতীয় সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন। এ সেমিনারের আয়োজন করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক উপ-কমিটি।

ড. সামসুল আলম বলেন, ২০০১ সালের ৪ জুলাই প্রধানমন্ত্রী মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করেন। তারপর কোনো কাজ হয়নি। ২০০৭ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকার একটি ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট তৈরি করেন। সেখানে এটা বাস্তবায়নের মেয়াদ ছিল ২০১৪-১৫ অর্থবছর। ২০০৭ সালে এর ব্যয় ধরা হয়েছিল ১০ হাজার ১৬১ দশমিক ৫১ মিলিয়ন টাকা। সে সময় ডলারের দাম ছিল প্রতি ডলারের ৭০ টাকা। তারা তখন কিছু করে যেতে পারেননি। ২০০৯ সালে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ক্ষমতায় এসে প্রথমবার এটির ব্যয় ২০০৯ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত বাস্তবায়নের জন্য ১৮ লাখ ৭৯ হাজার ৭৩৮ কোটি টাকা ব্যয় নির্ধারণ করেন। সর্বশেষ খরচ হয়েছে ৩০ হাজার ১৫৪ কোটি ৩৯ লাখ টাকা। এটা বলার অর্থ কীভাবে টাকার পরিমাণটা বেড়েছে।

‘অর্থনৈতিক লাভ কী হবে সেটি প্রথম বলা হয়েছিল এক দশমিক ২৩ শতাংশ জিডিপিতে যুক্ত হবে। আর দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১টি জেলায় জিডিপি হবে ২ দশমিক ৪ শতাংশ। তখন কিন্তু আমাদের পায়রা সমুদ্রবন্দর হয়নি, মংলা বন্দরও এত আধুনিকায়ন হয়নি। আমাদের পায়রা বিদ্যুৎ কেন্দ্র ও রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রও ছিল না। এই যে পর্যাপ্ত বিদ্যুতের সুবিধা এখন। আগে সেটি ছিল না। তখন জিডিপির প্রবৃদ্ধি যে ধরা হয়েছিল সেটি কম ধরা হয়েছে। সবগুলো মিলিয়ে দেখলে আমাদের প্রবৃদ্ধির হার বাড়বে।’

তিনি বলেন, পদ্মা সেতুর প্রকল্প শুরুর সময়ে বলা হয়েছিল, দারিদ্র্যের হার কমবে বছরে দশমিক ৮৪ শতাংশ। পদ্মা সেতু চালু হওয়ার পর প্রতি বছর টোল আদায় হবে এক হাজার ৬০৪ কোটি টাকা। সরকার ৩৫ বছরে সুদসহ ৩৬ হাজার কোটি টাকা পাবে। সরকারের কাছ থেকে সেতু কর্তৃপক্ষ ঋণ নিয়ে সেতু করেছে। সেতুর প্রতিফল আমরা এই সময়ে পেতে শুরু করবো।

পদ্মা সেতু নির্মাণের পেছনে নানা ষড়যন্ত্রের কথা উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আর্থিক কোনো কারণে বিশ্বব্যাংক পদ্মা সেতুর অর্থায়ন বন্ধ করেনি, যা ছিল সেটি একটি রাজনৈতিক কারণে। পাক-বাঙালি জিন্দাবাদ বলতে যারা ভালোবাসে তাদের ষড়যন্ত্রের অংশও ছিল পদ্মা সেতু।

সাবেক প্রধান তথ্য কমিশনার ড. গোলাম রহমান বলেন, বাংলাদেশের পদ্মা সেতু প্রকল্প বাংলাদেশের মর্যাদা বাড়িয়েছে। পদ্মা নদীর দৈর্ঘ্য কম হলেও খর স্রোতের দিক থেকে নির্মাণশৈলীর দিক থেকে বিশ্বের অন্যতম সেতু এটি। এর ফলে দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থা এবং অর্থনৈতিক যে উন্নয়ন করবে সেটা বলে বোঝানো যাবে না। ওই অঞ্চলের মানুষের যে দুর্ভোগ ছিল সেটি পরিমাপ করা যাবে না। প্রধানমন্ত্রী অদম্য শক্তি কারণেই বাংলাদেশের এত বড় প্রকল্প গ্রহণ করা সম্ভব হয়েছে। পদ্মা সেতু আমাদের জয়যাত্রার উদাহরণস্বরূপ।

প্রধানমন্ত্রীর অর্থ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমানের সভাপতিত্বে সেমিনারে অংশ নেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, সাবেক প্রধান তথ্য কমিশনার ড. গোলাম রহমান, পানি সম্পদ ও জলবায়ু বিষয়ক আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞ এবং ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. আইনুন নিশাত, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ।


আরও খবর



গেম খেলতে না দেওয়ায় মাকে গুলি করে হত্যা

প্রকাশিত:Wednesday ০৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৫৭জন দেখেছেন
Image

মোবাইলে গেম খেলতে না দেওয়ায় মাকে গুলি করে হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে ১৬ বছরের এক কিশোরের বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয়, সে তার মাকে হত্যা করে দুই দিন ধরে সেই মরদেহ বাড়িতে লুকিয়ে রেখেছিল। এই ঘটনা ঘটেছে ভারতের উত্তর প্রদেশের লক্ষ্ণৌতে। ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই কিশোর গত রোববার সকালের দিকে তার মাকে গুলি করে হত্যা করে। সে তার বাবার রিভলবার দিয়ে তার মাকে গুলি করেছে। মোবাইলে তার গেম খেলায় আসক্তি ছিল। মায়ের সঙ্গে এ নিয়ে দ্বন্দ্বের জের ধরেই এমন ঘটনা ঘটেছে। মাথায় গুলি লাগায় অল্প সময়ের মধ্যেই ওই নারী নিহত হন।

পরে ওই কিশোর তার মায়ের মরদেহ একটি রুমের মধ্যে লুকিয়ে রাখে এবং তার নয় বছরের বোনকে নিয়ে দুই দিন ধরেই বাড়িতেই অবস্থান করে। পুলিশ জানিয়েছে, মরদেহ গন্ধ যেন ছড়িয়ে না পড়ে সেজন্য সে রুমের মধ্যে এয়ার ফ্রেশনার ব্যবহার করেছে।

ওই কিশোরের বোন পুলিশকে জানিয়েছে যে, কাউকে কিছু জানালে তাকেও হত্যার হুমকি দেয় তার ভাই। মঙ্গলবার যখন ওই নারীর পচে যাওয়া মরদেহ থেকে যখন ভয়াবহ দুর্গন্ধ ছড়াতে শুরু করে তখন ওই কিশোর তার বাবাকে ফোন করে মায়ের মৃত্যুর কথা জানায়। তার বাবা তখন প্রতিবেশীদের বিষয়টি জানালে তারা পুলিশকে ফোন করে।

ওই কিশোরের বাবা সেনাবাহিনীতে কর্মরত রয়েছেন। বর্তমানে তিনি পশ্চিমবঙ্গে অবস্থান করছেন। বাবাকে ফোন করে ওই কিশোর মিথ্যা গল্প বলেছিল। সে জানিয়েছিল, তাদের বাড়িতে কাজ করতে আসা এক ইলেকট্রিশিয়ান তার মাকে গুলি করে হত্যা করেছে।

পুলিশকেও সে একই গল্প শুনিয়েছে। কিন্তু পুলিশ তদন্ত করে জানতে পারে যে সে মিথ্যা বলেছে। জিজ্ঞাসাবাদে ওই কিশোর তার অপরাধ স্বীকার করেছে।


আরও খবর



যশোরে শত্রুতার জেরে ছুরিকাঘাত, বিএনপি নেতাসহ আটক ৩

প্রকাশিত:Saturday ১১ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৬৯জন দেখেছেন
Image

যশোরের শার্শা উপজেলার নাভারনে মাদক ব্যবসায়ীদের ছুরিকাঘাতে মফিজুর রহমান (৪৮) নামে এক ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়েছেন। তাকে উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় শার্শা থানা বিএনপির আহ্বায়কসহ ৩ জনকে আটক করছে পুলিশ। আহত মফিজুর রহমান শার্শার দক্ষিণ বুরুজ বাগান গ্রামের মৃত গোলাম নবীর ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার রাত ৯টার দিকে শার্শার নাভারনের স্বর্ণপট্টিতে মফিজুর রহমান ব্যক্তিগত কাজে যান। এ সময় একই গ্রামের কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী ও বিএনপির তৃপ্তি গ্রুপের কর্মী মন্টু, রবি ও মাছুমসহ ৪-৫ জন পূর্ব শত্রুতার জের ধরে হাসান জহির গ্রুপের মফিজুর রহমানের ওপর রামদা ও ধারালো ছুরি নিয়ে হামলা চালিয়ে গুরুতর জখম করেন।

স্থানীয়রা তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে শার্শা উপজেলা (বুরুজবাগান) স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যান। সেখানে আহত মফিজুর রহমানের অবস্থার অবনতি হলে স্বজনরা যশোর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এ ঘটনার জেরে সঙ্গে সঙ্গে এলাকা উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। রাতে গ্রামের বিভিন্ন স্থানসহ হাসপাতালের সামনে ১০/১২টি বোমা বিস্ফোরণ হয়। ওই গ্রামে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এদিকে এ ঘটনায় শার্শা থানা বিএনপির আহ্বায়ক খায়রুজ্জামান মধু, আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আশরাফুল ইসলাম বাবু ও রবিউল ইসলামকে আটক করে থানায় নিয়ে গেছে পুলিশ।

শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন খান জানান, বোমাবাজির খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। আহত ব্যক্তিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য যশোরে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিএনপির তিন নেতাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। বর্তমানে এলাকা পুলিশের নিয়ন্ত্রণে আছে।


আরও খবর



টিভিতে আজকের খেলা

প্রকাশিত:Sunday ১২ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
Image

ক্রিকেট
পাকিস্তান-ওয়েস্ট ইন্ডিজ
তৃতীয় ওয়ানডে
বিকেল ৫.০০টা
সরাসরি সনি সিক্স

ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা
দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি
সন্ধ্যা ৭.৩০ মিনিট
সরাসরি টি স্পোর্টস

জিম্বাবুয়ে-আফগানিস্তান
দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি
বিকেল ৫.০০টা
সরাসরি টি স্পোর্টস

ফুটবল
উয়েফা নেশনস লিগ
স্পেন-চেক প্রজাতন্ত্র
রাত ১২.১৫ মিনিট
সরাসরি টেন ২

সুইজারল্যান্ড-পর্তুগাল
রাত ১২.১৫ মিনিট
সরাসরি টেন ১


আরও খবর