Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

৪ দিনে পুলিশের ওপর দুই হামলা: ইন্ধনদাতাদের খোঁজে মাঠে গোয়েন্দা

প্রকাশিত:Saturday ১১ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৩১১জন দেখেছেন
Image

রাজধানীতে মাত্র চারদিনের ব্যবধানে দুই জায়গায় পুলিশের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। থানার ওসিসহ অন্তত পাঁচ পুলিশ সদস্য এতে আহত হয়েছেন, ভাঙচুর করা হয়েছে ট্রাফিক বক্স।

এসব হামলার পেছনে ‘স্বার্থান্বেষী মহলের ইন্ধন’ রয়েছে বলে মনে করছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। ইন্ধনদাতাদের খুঁজে বের করতে গোয়েন্দারা এরইমধ্যে মাঠে নেমেছে বলে জানা গেছে।

ডিএমপি কর্মকর্তারা বলছেন, যে কোনো বাহিনীর তুলনায় পুলিশ জনগণের কাছাকাছি থাকে। যে কারণে জঙ্গি থেকে শুরু করে স্বার্থানেষী মহল সহজেই পুলিশকে টার্গেট করে। পুলিশের ওপর হামলা করে পরিস্থিতি অস্বাভাবিক করে ফায়দা লুটতে চায় স্বার্থান্বেষীরা।

এ ধরনের হামলা ঠেকাতে আরও সতর্ক থাকা এবং দক্ষতার সঙ্গে মোকাবিলার পরামর্শ দিয়েছেন পুলিশের ঊর্ধ্বতনরা।

গত মঙ্গলবার সকালে জুরাইন পুলিশ বক্সের পাশে উল্টোপথে আসা এক যাত্রীকে থামানোকে কেন্দ্র করে পুলিশের তিন সদস্যকে মারধর ও ট্রাফিক বক্স ভাঙচুর করা হয়।

এর রেশ কাটতে না কাটতেই শুক্রবার দুপুরে মোহাম্মদপুরের ঢাকা উদ্যানে মুসল্লিদের ভেতর থেকে কয়েকজন যুবক মোহাম্মদপুর থানার ওসি ও একজন এএসআইকে মারধর করে।

জুড়াইনে হামলার ঘটনায় অজ্ঞাত সাড়ে চারশো জনকে আসামি করে শ্যামপুর থানায় মামলা হয়েছে। মামলাটি তদন্ত করছে ডিবি। এ ঘটনায় শুক্রবার পর্যন্ত ২৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শুক্রবার ঢাকা উদ্যানে হামলার ঘটনায় সন্ধ্যা পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি। একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন বলে জানা গেছে।

সম্প্রতি মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় পুলিশ কর্মকর্তাদের সর্বোচ্চ সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়ে ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম বলেন, জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজনৈতিক কর্মসূচি বেড়েছে। ঢাকা মহানগর এলাকায় রাজনৈতিক কর্মসূচির নামে যেন কেউ কোনো আগুন সন্ত্রাস বা নাশকতা করতে না পারে, সে বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে।

তিনি আরও বলেন, আইনশৃঙ্খলার যেন অবনতি না ঘটে সেদিকে সবাইকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। প্রকৃত অপরাধীকে আইনের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। দায়িত্বপ্রাপ্ত সবাইকে নিজ নিজ দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করতে হবে।

পুলিশের ওপর পৃথক হামলার ঘটনায় স্বার্থান্বেষী মহলের ইন্ধন রয়েছে বলে মনে করেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার।

তিনি জাগো নিউজকে বলেন, জুরাইনে একজন উল্টোপথে মোটরসাইকেল নিয়ে এলো। আর তার কাছে কাগজ দেখতে চাওয়ায় পরিস্থিতি উত্তপ্ত করে তোলা হয়। মুহূর্তে শত শত লোক জড়ো করে পুলিশ সদস্যদের মারধর ও ট্রাফিক বক্স ভাঙচুর করা হলো। এটা স্পষ্ট স্বার্থান্বেষী মহলের ইন্ধনে হামলা হয়েছে। আমরা এই ইন্ধনদাতাদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় নিয়ে আসবো। এরইমধ্যে তাদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

ঢাকা উদ্যানে মোহাম্মদপুর থানার ওসির উপর হামলার পেছনেও অশুভশক্তির ইন্ধন থাকতে পারে বলে ধারণা ডিবিপ্রধানের।

পুলিশের ওপর হামলার বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক গোয়েন্দা বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার পদমর্যাদার একজন কর্মকর্তা জানান, একটি মহল ফায়দা লুটতে সবসময় পুলিশকে টার্গেট করে। এর আগেও দেশবাসী দেখেছে পুলিশের ওপর বোমা হামলাসহ নৃশংস হামলা হয়েছে। তবে এসব হামলায় কেউ পালিয়ে থাকতে পারেনি। অপরাধের সঙ্গে জড়িত সবাইকে আইনের আওতায় আনা হয়েছে। সম্প্রতি পুলিশের ওপর হামলার ঘটনাতেও অপরাধীদের আইনের আওতায় আনা হবে।

হামলার বিষয়ে ডিএমপি মোহাম্মদপুর জোনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) মৃত্যুঞ্জয় দে সজল জাগো নিউজকে বলেন, ঢাকা উদ্যানে স্থানীয়দের একটি সংগঠন থেকে বিক্ষোভ করার প্রস্তুতি নেয়। তখন ওসি সাহেব তাদের দ্রুত সময়ে কর্মসূচি শেষ করার কথা বলেন। চলে আসার সময় কয়েকজন যুবক তার ওপর হামলা করে। হামলাকারীদের চিহ্নিত করতে এরইমধ্যে আমরা কাজ করছি।

ডিএমপির অপরাধ বিভাগের একজন কর্মকর্তা বলেন, পুলিশ সাধারণ মানুষের সবচেয়ে কাছে থাকে, তাই সহজেই পুলিশকে টার্গেট করা হয়। পুলিশকে আক্রান্ত করে একটা মহল ফায়দা নিতে চায়। এ ধরনের হামলা প্রতিহত করতে আমাদের আরও সতর্ক এবং কৌশলী হতে হবে।


আরও খবর



নিয়োগ পরীক্ষায় প্রক্সি দেওয়ার অপরাধে ৪ জনের কারাদণ্ড

প্রকাশিত:Friday ০৩ June ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ৫৬জন দেখেছেন
Image

পটুয়াখালীতে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় অন্যজনের হয়ে অংশ নেওয়ায় (প্রক্সি) চারজনকে বিভিন্ন মেয়াদ কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শুক্রবার (৩ জুন) দুপুরে পটুয়াখালী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ও সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে থেকে তাদের আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতে নেওয়া হলে দশমিনা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মহিউদ্দিন আল হেলাল তাদের কারাদণ্ড দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত মো. পাভেল (২৬) ও মো. জাহিনুর মুন্সি জাহিদকে (২৯) এক বছর করে কারাদণ্ড এবং মো. মনোয়ার হোসেন (২৮) ও এনামুল হক ইমনকে (২৯) এক মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মহিউদ্দিন আল হেলাল জানান, নিয়োগ পরীক্ষা শুরু পর এদের সন্দেহ হলে আটক করা হয়। পরে প্রক্সির সত্যতা পাওয়া গেলে তাদের সাজা দিয়ে কারগারে পাঠানো হয়।


আরও খবর



মুদ্রার বিনিময় হার: ০৭ জুন ২০২২

প্রকাশিত:Tuesday ০৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৭৪জন দেখেছেন
Image

বাংলাদেশের এক কোটিরও বেশি মানুষ পাড়ি জমিয়েছেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। প্রবাসীদের পাঠানো কষ্টার্জিত অর্থে সচল রয়েছে দেশের অর্থনীতির চাকা। প্রবাসীদের লেনদেনের সুবিধার্থে ০৭ জুন ২০২২ মুদ্রার বিনিময় হার তুলে ধরা হলো।

মুদ্রা

ক্রয় (টাকা)

বিক্রয় (টাকা)

ইউএস ডলার

৯২.০০

৯৩.০০

পাউন্ড

১২০.১৮

১২২.৫৮

ইউরো

১০২.৩৭

১০৪.৭০

জাপানি ইয়েন

০.৭৩

০.৭৪

অস্ট্রেলিয়ান ডলার

৬৬.০৮

৬৭.৮২

হংকং ডলার

১১.৭৩

১১.৮৫

সিঙ্গাপুর ডলার

৭২.৩৫

৭১.১১

কানাডিয়ান ডলার

৭৩.১০

৭৩.৮৭

ইন্ডিয়ান রুপি

১.১৫

১.২০

সৌদি রিয়েল

২৪.৪৮

২৪.৭৯

মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত

২০.৮৮

২১.১৬


আরও খবর



ছয় দফা ছিল শোষিত-বঞ্চিত মানুষের মুক্তির সনদ: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:Tuesday ০৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৭২জন দেখেছেন
Image

ঐতিহাসিক ছয় দফা দেশের শোষিত-বঞ্চিত মানুষের মুক্তির সনদ ছিল বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে ৭ জুন এক অবিস্মরণীয় ও তাৎপর্যপূর্ণ দিন। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঘোষিত ছয় দফা আন্দোলন ১৯৬৬ সালের ৭ জুন নতুন মাত্রা পায়।

মঙ্গলবার (৭ জুন) ঐতিহাসিক ‘ছয় দফা দিবস’ উপলক্ষে দেওয়া বাণীতে একথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, বাঙালির মুক্তির সনদ ছয় দফা আদায়ের লক্ষ্যে এ দিন আওয়ামী লীগের ডাকে হরতাল চলাকালে নিরস্ত্র জনতার ওপর পুলিশ ও তৎকালীন ইপিআর গুলিবর্ষণ করে। এতে ঢাকা এবং নারায়ণগঞ্জে মনু মিয়া, আবুল হোসেন, সফিক ও শামসুল হকসহ ১১ জন শহীদ হন। আজকের এই দিনে আমি ঐতিহাসিক ৭ জুনসহ স্বাধীনতা সংগ্রামের সব শহীদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানাই।

তিনি বলেন, পাকিস্তানি শাসন-শোষণ-বঞ্চনা থেকে মুক্তির লক্ষ্যে আইয়ুব খান সরকারের বিরুদ্ধে নিখিল পাকিস্তান আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে লাহোরে তৎকালীন পূর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তানের সব বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোকে নিয়ে বিরোধীদলীয় এক জাতীয় সম্মেলন আহ্বান করা হয়। জাতির পিতা ১৯৬৬ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি সেখানে ঐতিহাসিক ছয় দফা প্রস্তাব পেশ করেন। প্রস্তাব গৃহীত হয় না। পূর্ব বাংলার ফরিদ আহমদও প্রস্তাবের বিরোধিতা করেন। ৬ ফেব্রুয়ারি পশ্চিম পাকিস্তানের কয়েকটি পত্রিকা এ দাবি সম্পর্কে উল্লেখ করে বলে যে পাকিস্তানের দুটি অংশ বিচ্ছিন্ন করার জন্যই ছয় দফা দাবি আনা হয়েছে। ১০ ফেব্রুয়ারি বঙ্গবন্ধু সাংবাদিক সম্মেলন করে এর জবাব দেন। ১১ ফেব্রুয়ারি দেশে ফিরে তিনি ছয় দফার পক্ষে দেশব্যাপী প্রচারাভিযান শুরু করেন। বাংলার জনমানুষ স্বতঃস্ফূর্তভাবে ছয় দফার প্রতি সমর্থন জানায়। ছয় দফা হয়ে উঠে দেশের শোষিত ও বঞ্চিত মানুষের মুক্তির সনদ।

শেখ হাসিনা বলেন, ছয় দফার প্রতি ব্যাপক জনসমর্থন এবং বঙ্গবন্ধুর জনপ্রিয়তায় ভীত হয়ে স্বৈরাচারী আইয়ুব সরকার ৮ মে বঙ্গবন্ধুকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠায়। কিন্তু ছয় দফা বাঙালির প্রাণের দাবিতে পরিণত হয়। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে ছয় দফার প্রতি বাঙালির অকুণ্ঠ সমর্থনে রচিত হয় স্বাধীনতার রূপরেখা। জাতির পিতার ২৩ বছরের দীর্ঘ আন্দোলন-সংগ্রাম ও রক্তক্ষয়ী মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে স্বাধীন হয় বাংলাদেশ।

তিনি বলেন, ঐতিহাসিক ৭ জুনসহ সব গণতান্ত্রিক আন্দোলন ও সংগ্রামের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশের মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার অক্ষুন্ন রাখতে আওয়ামী লীগ সরকার বদ্ধপরিকর। আমরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। আমরা দেশের প্রতিটি মানুষের কাছে স্বাধীনতার সুফল পৌঁছে দিতে কাজ করছি। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করছি ও বিচারের রায় কার্যকর করা হচ্ছে। গত ১৩ বছরে আমরা দেশের অভূতপূর্ব উন্নয়ন করেছি। মানুষের জীবনমান উন্নয়ন করেছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ এখন স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা লাভ করেছে। বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল। বাংলাদেশ বিশ্বের ৩১তম বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ। আমাদের অর্থনীতির আকার ৪৬৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ও মাথাপিছু আয় দুই হাজার ৮২৪ মার্কিন ডলারে উন্নীত হয়েছে। দেশের শতভাগ মানুষ এখন বিদ্যুৎ সুবিধা পাচ্ছে। আমরা ডিজিটাল প্রযুক্তির সুবিধা প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়ে দিয়েছি। গ্রামের মানুষ সব নাগরিক সুবিধা পাচ্ছে। দেশের কেউ যাতে গৃহহীন না থাকে সেজন্য আমরা গৃহহীনদের জন্য বাড়ি নির্মাণ করে দিচ্ছি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বে মাথা উঁচু করে চলবে। ইনশাল্লাহ, ২০৪১ সালের মধ্যে বিশ্বে বাংলাদেশ হবে উন্নত, সমৃদ্ধ ও আধুনিক রাষ্ট্র। ৭ জুনের শহীদদের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করে বিনির্মাণ করবো জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ।


আরও খবর



দুদকের তফসিলভুক্ত অপরাধের মামলা সরাসরি করা যাবে না বিধান নিয়ে রুল

প্রকাশিত:Sunday ১২ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৭৪জন দেখেছেন
Image

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) তফসিলভুক্ত অপরাধ নিয়ে সরাসরি আদালতে মামলা করা যাবে না সংক্রান্ত যে বিধান রয়েছে সেটি কেন অবৈধ ও বেআইনি ঘোষণা করা হবে না জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ১০ দিনের মধ্যে সংশ্লিষ্টদের এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

রোববার (১২ জুন) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতে আজ রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট সুবীর নন্দী দাস। রুলের বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেন তিনি।

এর আগে ২০১৯ সালে যেকোনো দুর্নীতির বিষয়ে মামলা বা এফআইআর করার ক্ষেত্রে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) নিজ কার্যালয়ে এজাহার দাখিল ও ওই এজাহারের ভিত্তিতে তদন্ত করার ক্ষমতা চ্যালেঞ্জ করে রিট করা হয়। ওই রিটের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্টের জারি করা রুলের সঙ্গে গত বৃহস্পতিবার (৯ জুন) সম্পূরক আবেদন করা হয়। ওই আবেদন শুনানি নিয়ে এই রুল জারি করলেন আদালত।


আরও খবর



নওয়াজের ঘূর্ণিতে পাকিস্তানের টানা ‘দশ’

প্রকাশিত:Saturday ১১ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৪৬জন দেখেছেন
Image

পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ মানেই যেনো ওয়েস্ট ইন্ডিজের অসহায় আত্মসমর্পণ। অন্তত গত ৩১ বছর ধরে তা-ই হয়ে আসছে দুই দলের সিরিজে। ব্যতিক্রম ঘটলো না মুলতানে চলতি সিরিজেও। এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ নিশ্চিত করে ফেলেছে স্বাগতিক পাকিস্তান।

শুক্রবার সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে টপঅর্ডারের ব্যাটিংয়ে জয়ের আশা জাগিয়েছিল ক্যারিবীয়রা। কিন্তু বাঁহাতি স্পিনার মোহাম্মদ নওয়াজের জাদুকরী ১০ ওভারের স্পেলে সব সম্ভাবনা শেষ হয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের। পাকিস্তানের ২৭৫ রানের জবাবে তারা গুটিয়ে যায় মাত্র ১৫৫ রানে।

ফলে ১২০ রানের বড় জয়ে সিরিজ জিতে নেয় বাবর আজমের দল। এ নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টানা দশম ওয়ানডে সিরিজ জিতলো পাকিস্তান। সবশেষ ১৯৯১ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে কোনো ওয়ানডে সিরিজ জিতেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। গত ৩১ বছরে আর সেই স্বাদ পায়নি তারা।

মুলতানে ২৭৬ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ইনিংসের ১৮তম ওভারের মধ্যে শতরান পূরণ করে ফেলেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে তিন উইকেট হারানোয় ঠিক স্বস্তি ছিল না তাদের। এরপরই ঘূর্ণি জাদু দেখান নওয়াজ। টানা ১০ ওভারের স্পেলে মাত্র ১৯ রান খরচায় ৪টি উইকেট নেন তিনি।

নওয়াজের ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে ৩ উইকেটে ১০২ থেকে ৭ উইকেটে ১২০ রানের দলে পরিণত হয় ক্যারিবীয়রা। তখনই মূলত শেষ হয়ে যায় তাদের জয়ের আশা। এরপর লেজের সারির ব্যাটাররা মিলে কোনোমতে দেড়শোর ঘর পার করান দলকে। শেষ পর্যন্ত ৩২.২ ওভারে অলআউট হয় তারা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে ব্যাট হাতে সর্বোচ্চ ৪২ রান করেছেন শামার ব্রুকস। এছাড়া কাইল মায়ারস ৩৩ ও অধিনায়ক নিকোলাস পুরানের ব্যাট থেকে আসে ২৫ রান। নওয়াজের ৪ উইকেট ছাড়াও ওয়াসিম জুনিয়র ৩ ও শাদাব খান নিয়েছেন ২ উইকেট।

এর আগে মুলতানে দিবারাত্রির সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং বেছে নেয় পাকিস্তান। ফাখর জামান (১৭) অল্প রানে ফিরে গেলেও পরে ইমাম আর বাবর ১২৮ বলে ১২০ রানের জুটি গড়েন।

৭২ বলে ৬ বাউন্ডারিতে ৭২ রান করা ইমাম রানআউট হয়ে ফিরলে ভাঙে এই জুটি। এরপর বাবরও আউট হন সত্তরের ঘরে (৯৩ বলে ৫ চার আর ১ ছক্কায় ৭৭)। হঠাৎ বড় ধাক্কা খায় পাকিস্তান। ২০ রানে হারিয়ে বসে ৪টি উইকেট।

২ উইকেটে ১৮৭ থেকে ৬ উইকেটে ২০৭ রানে পরিণত হয় স্বাগতিকরা। লড়াকু পুঁজি পাওয়াও কঠিন হয়ে গিয়েছিল। সেখান থেকে লোয়ার অর্ডারের দারুণ ব্যাটিং।

শাদাব খান (২৩ বলে ২২), খুশদিল শাহ (৩১ বলে ২২), মোহাম্মদ ওয়াসিম (১৩ বলে অপরাজিত ১৭) আর শাহিন শাহ আফ্রিদি (৬ বলে ১৫) দলকে ২৭৫ পর্যন্ত নিয়ে যান।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের আকিল হোসেন ৩টি, অ্যান্ডারসন ফিলিপ আর আলজেরি জোসেফ নেন দুটি করে উইকেট।


আরও খবর