Logo
আজঃ Monday ০৮ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড নিখোঁজ সংবাদ প্রধানমন্ত্রীর এপিএসের আত্মীয় পরিচয়ে বদলীর নামে ঘুষ বানিজ্য

১২৫ বছরের রেকর্ড ভাঙলেন পূজারা

প্রকাশিত:Thursday ২১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ২৯৫জন দেখেছেন
Image

ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্রিকেটে রীতিমত স্বপ্নের ফর্মে রয়েছেন ভারতীয় ব্যাটার চেতেশ্বর পূজারা। বুধবার লর্ডসে সাসেক্সের হয়ে মিডলসেক্সের বিপক্ষে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট ক্যারিয়ারের ১৬তম ডাবল সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন তিনি।

লর্ডসে ১২৫ বছরের মধ্যে সাসেক্সের ইতিহাসের প্রথম ব্যাটার হিসেবে ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন পূজারা। সর্বশেষ হোম অব ক্রিকেটে এই রেকর্ডটি গড়েছিলেন তারই স্বদেশি শ্রী স্যার রঞ্জিতসিংহে ভিবাজি।

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ডাবল সেঞ্চুরিয়ানদের তালিকায় যৌথভাবে ইতিহাসের পঞ্চম পূজারা। তার সঙ্গে এই তালিকায় পঞ্চম স্থানে আছেন সিবি ফ্রাই, জ্যাক হবস এবং গ্রায়েম হিক।

তালিকার এক নম্বর অব্স্থানটি অনুমিতভাবেই অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি স্যার ডন ব্র্যাডমানের। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার ক্যারিয়ারে ডাবল সেঞ্চুরি ৩৭টি। ৩৬ ডাবল সেঞ্চুরি নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে ওয়াল্টার হ্যামন্ড, ২২ ডাবল সেঞ্চুরিতে তিন নম্বরে ইলিয়াস হেনড্রেন।

সাসেক্সের হয়ে ম্যাচটিতে ৪০৩ বল মোকাবেলায় ২১ চার আর ৩ ছক্কার সাহায্যে ২৩১ রানের চোখ ধাঁধানো ইনিংস খেলেন পূজারা। সাসেক্স অলআউট হয় ৫২৩ রানে।


আরও খবর



‘পরিস্থিতি মোকাবিলায় কিছু সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হচ্ছে সরকার’

প্রকাশিত:Sunday ০৭ August ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | জন দেখেছেন
Image

প্রধানমন্ত্রীর সব সিদ্ধান্তের পেছনে দূরদর্শী পরিকল্পনা থাকে উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, জ্বালানিসহ কিছু পণ্যের দাম বাড়ানো হচ্ছে। চলমান বৈশ্বিক পরিস্থিতি মোকাবিলায় কিছু সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হচ্ছে সরকার। তবে শিগগির সরকারের এসব সিদ্ধান্তের সুফল পাবে দেশ।

রোববার (৭ আগস্ট) এফবিসিসিআই কার্যালয়ে ‘বঙ্গবন্ধুর অর্থনীতি ও বাণিজ্য ভাবনা’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, পাকিস্তান সৃষ্টির পরপরই বঙ্গবন্ধু বুঝতে পেরেছিলেন পশ্চিম পাকিস্তানের শোষণ-বঞ্চনার কৌশল। শুধু রাজনৈতিক মুক্তিই নয়, অর্থনৈতিক মুক্তি অর্জনের লক্ষ্যও ছিল বঙ্গবন্ধুর। তাই তার ঘোষিত ছয় দফার মধ্যে তিনটিই ছিল অর্থনীতি বিষয়ক।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর এনে দেওয়া স্বাধীন বাংলাদেশে অর্থনৈতিক মুক্তি আনার লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন তারই সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী সাধারণ মানুষকে কষ্ট দেওয়ার জন্য কোনো কাজ করেন না। তবে দেশবিরোধীরা এখনও সক্রিয়। নানাভাবে দেশের ক্ষতি করার চেষ্টা করছে। এ ব্যাপারে দেশবাসীকে সতর্ক থাকতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেন, বঙ্গবন্ধুর সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনার কারণে দেশের রপ্তানিখাতে বৈচিত্র্য এসেছে। সদ্যস্বাধীন দেশে আমদানি-রপ্তানিতে বার্টার প্রথা চালু করেছিলেন বঙ্গবন্ধু। বেসরকারিখাতে এই পদ্ধতিতে ৪০ শতাংশ অপ্রচলিত পণ্য রপ্তানি করার শর্ত দিয়েছিলেন তিনি। ওই সিদ্ধান্তের কারণেই রপ্তানিখাতে চিংড়ি ও চা যুক্ত হয়েছিল। পরে সরকারি বার্টারেও বিদেশি দেশগুলোকে এসব অপ্রচলিত পণ্য কিনতে বাধ্য করেছিলেন।

তিনি আরও বলেন, পরিত্যক্ত শিল্প রাষ্ট্রীয়করণ না করলে, স্থিতিশীলতা আসতো না। রাষ্ট্রীয়করণ করলেও, প্রশাসনিক দায়িত্ব ছিল ব্যক্তিখাতে। ১৯৭৫ সালে বিরাষ্ট্রীকরণের নির্দেশও দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তা বাস্তবায়নের আগেই তাকে হত্যা করা হয়।

স্বাগত বক্তব্যে এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন বলেন, বাংলাদেশের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট, কৃষি উন্নয়ন, শিল্প ও বাণিজ্য সম্প্রসারণ, সংস্কৃতি, নারী জাগরণ, গ্রামীন প্রান্তিক মানুষের উন্নয়নসহ প্রতিটি ক্ষেত্রে বঙ্গবন্ধুর দর্শনকে ধারণ করে বাংলাদেশ একটি উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে। সমৃদ্ধ অর্থনীতি গড়তে বাণিজ্য খাতে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছিলেন বঙ্গবন্ধু। এরই অংশ হিসেবে বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ দেশগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, কারিগরি ও আন্তর্জাতিক বাণিজ্য সম্পর্ক গড়ে তোলেন।

তিনি বলেন, দেশের বর্তমান অর্থনৈতিক অগ্রগতিতে সরকারের পাশাপাশি ব্যাক্তিখাতেরও ব্যাপক অবদান রয়েছে। করোনা মহামারি ও ইউক্রেন সংকটের কিছুটা নেতিবাচক প্রভাব দেশের অর্থনীতিতে পড়েছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়ীদের জন্য সবসময়ের মতো অনুকূল পরিবেশ তৈরি ও সহযোগিতা দিলে, এ সংকট শিগগির কাটিয়ে ওঠা যাবে।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান। যুদ্ধোত্তর বাস্তবতার নিরিখে সীমিত সম্পদের সর্বোচ্চ সদ্ব্যবহার, প্রথম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়নে আপসহীন অভিযাত্রা, রাষ্ট্রনির্ভরতা থেকে ব্যক্তিখাতের বিকাশসহ বিভিন্ন দিকে বঙ্গবন্ধুর অবদান তুলে ধরেন ড. আতিউর রহমান।

মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ ও স্বাধীনতার আগে বাঙ্গালীদের ব্যবসা করার ক্ষেত্রে নানা প্রতিবন্ধকতার কথা তুলে ধরে সংসদ সদস্য মোরশেদ আলম বলেন, পাকিস্তান আমলে পাট, চা ও চামড়া রপ্তানি হতো, কিন্তু সবগুলোই ছিল অবাঙালিদের হাতে। বঙ্গবন্ধুর শাসনামলে বাংলাদেশের অগ্রগতি সহ্য হয়নি দেশবিরোধী চক্রান্তদের। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আবারও সঠিক পথে এগিয়ে যাচ্ছে। মহাকাশে স্যাটেলাইট, নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতু, মেট্রোরেল, অসংখ্য ব্রীজ কালভার্ট নির্মাণ হয়েছে। মানুষের ক্রয়ক্ষমতা বাড়ছে। চলমান সাময়িক ইউক্রেন সংকটে সবাইকে সাশ্রয়ী হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, বঙ্গবন্ধুর রক্তের মধ্যেই ছিলো মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তির চেতনা। বঙ্গবন্ধুর পরিকল্পনা অনুযায়ী তার সুযোগ্য কন্যার হাত ধরে দেশে অর্থনৈতিক মুক্তি ও সাম্য এসেছে। কৃষিনির্ভর অর্থনীতি থেকে শিল্প ও সেবাখাত নির্ভর দেশে পরিণত হয়েছে বাংলাদেশ।

এর আগে প্যানেল আলোচনায় এফবিসিসিআইয়ের প্যানেল উপদেষ্টা ও বাংলাদেশ ট্রেড ও ট্যারিফ কমিশনের সাবেক সদস্য ড. মোস্তফা আবিদ খান জানান, স্বাধীনতা পরবর্তী বৈষম্য কমাতে রাষ্ট্রীয়করণ করেছিলেন বঙ্গবন্ধু। বঙ্গবন্ধুর আমলে এলডিসিতে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার কারণেই বাংলাদেশের রপ্তানি বানিজ্য আজকের পর্যায়ে এসেছে।

ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি রিজওয়ান রহমান বলেন, প্রথম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা দেশে ব্যক্তিখাতের বিকাশের ভিত্তি তৈরি করে দিয়েছে। বঙ্গবন্ধুর বার্টার পদ্ধতির কারণেই অনেক প্রতিষ্ঠানের যাত্রা শুরু হয়েছিল।অর্থনৈতিক কূটনীতিতেও বিশাল ভূমিকা রেখেছেন বঙ্গবন্ধু।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক নির্বাহী পরিচালক এম মাহফুজুর রহমান জানান, মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে কার্যকর ভূমিকা নিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু। দেশে ফেরার ৫৪ দিন পর নতুন নোট বাজারে ছেড়েছিলেন। দেশে অবৈধ অর্থ শনাক্ত ও বিনাশ করতে ১৯৭৫ সালে ১০০ টাকার নোট বাতিলের মতো সাহসী সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু।

সেমিনারে আরও উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআইয়ের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু, সহ-সভাপতি মো. আমিন হেলালী, সালাউদ্দিন আলমগীর, মো. হাবীব উল্লাহ ডন, পরিচালক, বিভিন্ন স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান ও মহাসচিব মাহফুজুল হকসহ বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতারা।


আরও খবর



জমির অভাবে খেলার মাঠ তৈরি সম্ভব হচ্ছে না: মেয়র তাপস

প্রকাশিত:Wednesday ২৭ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
Image

রাজধানীতে খেলার মাঠ বানানোর ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় অন্তরায় জমি না পাওয়া। এজন্য পর্যাপ্ত খেলার মাঠ ও পার্ক তৈরি করা সম্ভব হচ্ছে না। এ কথা জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস।

বুধবার (২৭ জুলাই) দুপুরে ডিএসসিসির ৪ নম্বর ওয়ার্ডের বাসাবো বালুর মাঠে ‘বাসাবো সবুজ বলয়ে’র নির্মাণ কাজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ছিলেন তিনি।

এসময় মেয়র বলেন, প্রতি ওয়ার্ডেই ন্যূনতম একটি খেলার মাঠ-উদ্যান প্রতিষ্ঠা আমাদের মূল লক্ষ্য। কিন্তু এক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় অন্তরায় জমির অভাব।

তবে তিনি জানান, এসব প্রতিকূলতা অতিক্রম করে খেলার মাঠ ও উদ্যান তৈরির কাজ অব্যাহত রাখা হবে।

সবুজ বলয়ের বিষয়ে শেখ তাপস বলেন, আমরা এই বলয়কে কেন্দ্র করে ফিফার মানদণ্ড অনুযায়ী ফুটবল খেলা ও আন্তর্জাতিক ম্যাচ আয়োজনের আলাদা ব্যবস্থা রেখেছি। তেমনি এখানে দর্শকদের জন্য বসার জায়গা রয়েছে। ক্রিকেটের জন্য যেন নেট প্র্যাকটিস করতে পারে সে ব্যবস্থাও আমরা এখানে রেখেছি। এছাড়া এখানে এসে শিশুরা যেন খেলতে পারে ও অন্য খেলার সঙ্গে তাদের যেন সংঘর্ষ না হয়, সেই ব্যবস্থাও আলাদাভাবে রেখেছি।

jagonews24

‘বাসাবো সবুজ বলয়’ প্রতিষ্ঠায় নানা বাধা এসেছে উল্লেখ করে ডিএসসিসি মেয়র বলেন, আজ যে মাঠে আমরা সবুজ বলয়ের উদ্বোধন করলাম, সেই জমিটি দখলের জন্য অনেকেই চেষ্টা করছে। কিন্তু এই এলাকার সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী ও আমাদের কাউন্সিলরসহ সবার দৃঢ়তায় জমিটা রক্ষা করতে পেরেছি। এই সমস্যাটা কিন্তু প্রত্যেকটা ওয়ার্ডেই রয়েছে।

তিনি বলেন, শহরে একটি ওয়ার্ড আছে, ৪৮ নম্বর ওয়ার্ড। এখানে খেলাধুলা করার জন্য এক চিলতে জমিও নেই। আমরা সেখানে একটি জমি চিহ্নিত করেছি, ইনশাআল্লাহ সেই জমিটা আমরা দখলমুক্ত করবো। সেখানে অবৈধভাবে ট্রাকস্ট্যান্ড করে রাখা হয়েছে। তা দখলমুক্ত করে আমরা সেখানেও খেলার মাঠ তৈরির উদ্যোগ গ্রহণ করছি।

ঢাকা-৯ আসনের সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, ২০০০ সালে আমরা এখানে একটি সবুজ বলয় করার উদ্যোগ নিয়েছিলাম। তখন থেকে প্রকল্প নিয়ে কাজ করছি। রাজনৈতিক পট পরিবর্তন এবং বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে আইনি জটিলতা তৈরির চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু শেষপর্যন্ত সত্যের জয় হলো। সেই জয়ে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রেখেছেন আমাদের মেয়র। তিনি এই প্রকল্প গ্রহণ করেছেন এবং এই প্রকল্পে অর্থায়নের ব্যবস্থা করেছেন।


আরও খবর



কবির খানের পরিচালনায় বিগ বাজেটের সিনেমায় কার্তিক

প্রকাশিত:Monday ১৮ July ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | ৫৭জন দেখেছেন
Image

বলিউড অভিনেতা কার্তিক আরিয়ান। যিনি সম্প্রতি 'ভুল ভুলাইয়া ২' ছবিতে সাফল্যের জন্য প্রশংসায় ভাসছেন। কার্তিক এই মূহুর্তে হিন্দি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম এক অভিনেতা হয়ে উঠেছেন। তার অভিনয়ে মুগ্ধ ভক্তরা।

এবার অভিনেতা তার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বিগ বাজেটের সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। পরিচালক কবির খান এ ছবিটি পরিচালনা করবেন। এটি প্রযোজনা করবেন সাজিদ নাদিয়াদওয়ালা।

বলিউড হাঙ্গামা থেকে জানা যায়, কার্তিক, কবির এবং সাজিদ তারা তিনজনই খুব উত্তেজিত নতুন সিনেমাটি নিয়ে। এটি পরের বছরের জন্য বৃহত্তম এনজিই প্রকল্পগুলোর মধ্যে একটি হবে।

সালমান খানের সিনেমা ‘এক থা টাইগার’র পর কবির খান কার্তিককে নিয়ে ছবিটির শুটিং শুরু করবেন।

তবে এ সিনেমার নাম ও অভিনেত্রী এখনও ঠিক হয়নি।

এর আগে কবির এনজিই ব্যানারে রণভীর সিংয়ের সঙ্গে একটি চলচ্চিত্র নির্মাণের পরিকল্পনা করেছিলেন, কিন্তু ‘৮৩’-র পরে, এই জুটি সিনেমা থেকে আলাদা হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।


আরও খবর



দুটি গেমসের জন্য প্রস্তুত হচ্ছেন বাংলাদেশের দ্রুততম মানব

প্রকাশিত:Saturday ২৩ July ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | ৩৩জন দেখেছেন
Image

যুক্তরাষ্ট্রের ওরিগনে দুর্ভাগ্য ভর করেছিল দেশের দ্রুততম মানব ইমরানুর রহমানের ওপর। ওয়ার্ল্ড অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নিশপের প্রথম রাউন্ডে জাতীয় রেকর্ড ভঙ্গ করে দ্বিতীয় রাউন্ড বা মূল হিটে কোয়ালিফাই করলেও সেখানে দৌড়াতে পারেননি তিনি। ওয়ার্মআপের সময় কুঁচকিতে টান লাগলে ডাক্তারের পরামর্শে আর ট্র্যাকেই নামেননি ইমরানুর।

কুঁচকিতে টান নিয়ে খেললে বড় ইনজুরিতে পড়তে পারতেন ইমরানুর। সেটা হলে তার অংশ নেওয়া অনিশ্চিত হয়ে পড়তো কমনওয়েলথ ও ইসলামী সলিডারিটি গেমসে। যুক্তরাষ্ট্র থেকে লন্ডন ফিরে ইমরানুর এখন প্রস্তুতি নিচ্ছেন সামনের দুটি গেমসে। ২৮ জুলাই যুক্তরাজ্যের বার্মিংহামে শুরু হবে কমনওয়েলথ গেমস এবং ৯ আগস্ট তুরস্কের কনিয়ায় শুরু হবে ইসলামী সলিডারিটি গেমস।

এই দুটি গেমসে বাংলাদেশের ৭ জন অ্যাথলেট অংশ নেবেন। এর মধ্যে ইমরানুর রহমান ও হাই জাম্পার উম্মে হাফসা রুমকী থাকছেন দুই গেমসেই। কমনওয়েলথ গেমসের অন্য তিন অ্যাথলেট হচ্ছেন দেশের দ্রুততম মানবী সুমাইয়া দেওয়ান, হাই জাম্পার মাহফুজুর রহমান ও রকিবুল হাসান। ইসলামী সলিডারিটি গেমসে ইমরানুর রহমান ও রুমকীর সঙ্গে থাকবেন হাই জাম্পার রিতু আক্তার।

জানুয়ারিতে নিজের করা জাতীয় রেকর্ড ভাঙ্গা ইমরানুর রহমান সামনের দুটি গেমসে আরো ভাল টাইমিং করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন। লন্ডন থেকে ইমরানুর রহমান জাগো নিউজকে বলছিলেন, ‘ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে যে ইনজুরিতে পড়েছিলাম সেটা এখন অনেক ভাল অবস্থায়। অনেক ইমপ্রুভ হয়েছে। আগামী দুটি গেমসের জন্য প্রস্তুত হচ্ছি ইনশাল্লাহ। আমি দুটি গেমসেই নিজের সেরাটা দিয়ে ভালো পারফরম্যান্স করার চেষ্টা করবো।’


আরও খবর



সরকারের সময় ফুরিয়ে এসেছে: রিজভী

প্রকাশিত:Saturday ৩০ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৪৩জন দেখেছেন
Image

গুম-খুন ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনায় সরকার বিশ্বব্যাপী ধিক্কৃত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

শনিবার (৩০ জুলাই) রাতে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা এলাকায় এশিয়ান হাইওয়েতে মশাল মিছিল শেষে এ মন্তব্য করেন তিনি।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে সাজা দেওয়া ও লোডশেডিংয়ের প্রতিবাদে এ মশাল মিছিল হয়।

মিছিল শেষে রুহুল কবির রিজভী বলেন, সরকারের লুটপাট ও দুর্নীতির কারণে দেশের বিদ্যুৎ ব্যবস্থা ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। ভেঙ্গে পড়েছে অর্থনৈতিক অবস্থা। এখন সরকারের মন্ত্রীরা দেশের এই টালমাটাল অবস্থা আড়াল করতে বিরোধীদলের সমালোচনাকে গুজব বলে মন্তব্য করছেন।

তিনি আরও বলেন, মিথ্যা গল্প সাজিয়ে আর প্রকৃত ঘটনা আড়াল করা যাবে না। দেশের মানুষকে বোকা বানানো যাবে না। সরকারের সময় ফুরিয়ে এসেছে। ফুঁসে উঠছে জনগণ। অচিরেই এ সরকারের বিদায় ঘণ্টা বেজে উঠবে।

মিছিলে আরও উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সদস্য ও রূপগঞ্জ উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক এনপি নেতা শরীফ আহমেদ টুটুল, জেলা যুবদল নেতা আমিরুল ইসলাম ইমন, ছাত্রদল নেতা সুলতান মাহমুদ প্রমুখ।


আরও খবর