English Version
২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং, বুধবার | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, শরৎকাল

জলাবদ্ধতা, যানজটই প্রধান সমস্যা

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৭, ১১:৪৬ পূর্বাহ্ণ


চারপাশে বহুতল আবাসিক ভবন। মাঝে ছোট্ট একটি পুকুর, নাম রমজান আলী ওস্তাগার। টাইলস করা পুকুরটির চারপাশে বসে গল্প করছে, সময় কাটাচ্ছে মহল্লার লোকজন। বড়শি দিয়ে মাছ শিকার করছে শিশু-কিশোরেরা। পুকুরটিতে গোসল করার জন্য আছে ঘাট। সাঁতার শেখার জন্যও আছে ব্যবস্থা।

পুরান ঢাকার হাজি ওসমান গনি রোডে (আলুবাজার) আছে আঠারো কাঠা আয়তনের এমন একটি দৃষ্টিনন্দন পুকুর। তবে মাসখানেক ধরে এই পুকুরের পানি কালচে রং ধারণ করেছে। এতে পুকুরটিতে গোসল ও সাঁতার শেখায় ব্যাঘাত ঘটছে। তাই পানি সেচ দিয়ে নতুন পানির ব্যবস্থা করার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। এই পুকুরটি রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি)।

আদি ঢাকাবাসী ফোরামের সদস্যসচিব জাভেদ জাহান বলেন, ঘনবসতিপূর্ণ পুরান ঢাকার এই পুকুরে মহল্লার অসংখ্য শিশু-কিশোর সাঁতার শেখে এবং গোসল করে। কিন্তু সঠিকভাবে রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে পুকুরের পানি গোসলের অনুপযোগী হয়ে পড়ছে। চারপাশে লোহার বেড়ার কয়েকটি স্থানও ভেঙে গেছে। তাই পুকুরের পানি আবার ব্যবহারের উপযোগী করতে ডিএসসিসিকে উদ্যোগ নিতে হবে।

হাজি ওসমান গনি রোডটি ডিএসসিসির ৩৪ নম্বর ওয়ার্ডের আওতাধীন। সিদ্দিক বাজার, টেকের হাট লেন, নবাবপুর রোড (হোল্ডিং নম্বর ১৪৪-২২২), হাজি ওসমান গনি রোড (হোল্ডিং নম্বর ১ থেকে ১৬৫), নাজিরা বাজার লেন, মিষ্টির গলি, সুবেদার ঘাট লেন, বাংলা দুয়ার লেন, লুৎফর রহমান লেন, কাজী আবদুল হামিদ লেন, কাজী আলাউদ্দিন রোড, ফুলবাড়িয়া (পুরান রেলওয়ে স্টেশন), নর্থ সাউথ রোড নিয়ে এই ওয়ার্ড গঠিত।

এই এলাকাগুলোতে চার লক্ষাধিক লোকের বাস। এলাকার এই ওয়ার্ডের প্রধান সমস্যা জলাবদ্ধতা। নর্থ সাউথ রোড ও নবাবপুর রোডে দিনভর লেগে থাকে যানজট। ওয়ার্ডটিতে নাগরিকদের শরীরচর্চার জন্য আছে একটি ব্যায়ামাগার। কিন্তু নেই পর্যাপ্ত উপকরণ। ১০ বছরের বেশি সময় ধরে বন্ধ আছে মেয়র মোহাম্মদ হানিফ কমিউনিটি সেন্টারের নির্মাণকাজ। আছে মাদকসেবী ও মশার উপদ্রব।

জলাবদ্ধতা

সামান্য বৃষ্টিতে ওই ওয়ার্ডের সব রাস্তাঘাটে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয় বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। এর মধ্যে হাজি ওসমান গনি রোড, নাজিরা বাজার লেন, কাজী আবুদল হামিদ লেন এবং কাজী আলাউদ্দিন রোডে জলাবদ্ধতার পরিমাণ বেশি।

কাজী আলাউদ্দিন রোডের বাসিন্দা হুমায়ুন কবির বলেন, টানা ৩০ মিনিট বৃষ্টি হলে এই এলাকার প্রায় প্রতিটি সড়কে হাঁটুপানি জমে যায়। এর মধ্যে কাজী আলাউদ্দিন রোডের দক্ষিণ অংশে বেশি পানি জমে। এই রোডের আশপাশের বাসাবাড়ি, দোকানপাটেও পানি ঢুকে যায়। এই পানি সরতে ৫ থেকে ৬ ঘণ্টা সময় লাগে। কিন্তু তা সমাধানে সরকারের সংশ্লিষ্ট কোনো সংস্থাই কাজ করছে না।

যানজট

ওয়ার্ডের সিদ্দিক বাজার, আলুবাজার, কাজী আলাউদ্দিন রোড, নর্থ সাউথ রোড ও নবাবপুর রোডে দিনভর যানজট লেগে থাকে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। গতকাল দুপুরে দেখা যায়, বংশাল চৌরাস্তা থেকে ফুলবাড়িয়া কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল পর্যন্ত নর্থ সাউথ রোডে তীব্র যানজট। এই সড়কে রিকশা, ভ্যান, ঠেলাগাড়ি, ঘোড়ার গাড়ি, পিকআপ, যাত্রীবাহী বাসসহ সব ধরনের যানবাহন চলছে। যানজট নিয়ন্ত্রণে হিমশিম খাচ্ছেন ট্রাফিক পুলিশ সদস্যরা। নবাবপুর রোডে প্রায় একই চিত্র দেখা গেছে।

নবাবপুর রোডের বাসিন্দা মো. নিজাম উদ্দিন বলেন, বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলোর সামনের সড়কে ভ্যান, পিকআপে মালামাল ওঠানো হয়। এতেই সড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। এ ছাড়া দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে মানুষ পণ্য কিনতে আসায় এই এলাকাগুলোতে যানবাহনের চাপ বেশি থাকে। এতে নাগরিকদের ভোগান্তি পোহাতে হয়।

ব্যায়ামাগার

নাজিরা বাজার মাতৃসদন-সংলগ্ন একটি ভবনের নিচতলায় আছে ডিএসসিসির ব্যায়ামাগার। গতকাল দুপুর ১২টায় এই ব্যায়ামাগার তালাবদ্ধ দেখা গেছে।

নাজিরা বাজারের বাসিন্দা আরমান আলী বলেন, প্রতিদিন বিকেলে এই ব্যায়ামাগার খোলে। মহল্লার কিছু তরুণ সেখানে নিয়মিত শরীরচর্চা করেন। কিন্তু ব্যায়ামাগারটিতে পর্যাপ্ত ও আধুনিক উপকরণ নেই। ফলে তরুণদের সংখ্যা দিনে দিনে কমছে। এর মধ্যে বংশালে ব্যক্তিমালিকানাধীন একটি আধুনিক ব্যায়ামাগার গড়ে উঠেছে।

প্রকাশকঃ
মোঃ মামুনুর হাসান (টিপু)

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক:
খন্দকার আমিনুর রহমান

৫০/এফ, ইনার সার্কুলার, (ভি আই পি) রোড- নয়া পল্টন ,ঢাকা- ১০০০।
ফোন: ০২-৯৩৩১৩৯৪, ৯৩৩১৩৯৫, নিউজ রুমঃ ০১৫৩৫৭৭৩৩১৪
ই-মেইল: khoborprotidin24.com@gmail.com, khoborprotidin24news@gmail.com

.::Developed by::.
Great IT