English Version
২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং, বুধবার | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, শরৎকাল

বিখ্যাতদের অদ্ভুত সব অভ্যাস!

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৭, ১০:৫৪ পূর্বাহ্ণ


তাঁরা কেউ শিল্পী, কেউ লেখক, কেউ আবার আবিষ্কারক। প্রত্যেকেই নিজ নিজ ক্ষেত্রে বিখ্যাত এবং প্রতিভাবান বলে স্বীকৃত। কিন্তু তাঁদের ছিল অদ্ভুত সব অভ্যাস। এগুলো কখনোই ছাড়েননি তাঁরা, আমৃত্যু চালিয়ে গেছেন অদ্ভুত অভ্যাসের চর্চা। তাই বলে প্রতিভার ধারে কিন্তু কমতি হয়নি। নিজ গুণে প্রতিষ্ঠিত করেছেন নিজেদের।

আসুন জেনে নিই এমনই কিছু বিখ্যাত মানুষের অদ্ভুত অভ্যাসের গল্প—
১. পিথাগোরাস
অঙ্ক ভালো লাগুক আর না-ই লাগুক—পিথাগোরাসের নাম শোনেননি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া ভার। গ্রিক এই গণিতবিদ শাকাহারী ছিলেন। কখনোই মাংসের ধারেকাছে যাননি। কিন্তু সারা জীবন শাকসবজি আর ফলমূল খেয়ে কাটিয়ে দিলেও মটরশুঁটি পছন্দ করতেন না তিনি। পিথাগোরাস নিজে যেমন খেতেন না, তেমনি তাঁর অনুসারীদেরও মটরশুঁটি খেতে বারণ করতেন তিনি। এমনকি মটরশুঁটি ছোঁয়াও যেত না! স্বাস্থ্যগত নাকি ধর্মীয়—কোন কারণে তিনি মটরশুঁটি খেতেন না, তা জানা যায়নি। গল্প প্রচলিত আছে, এই মটরশুঁটির কারণেই পিথাগোরাসের মৃত্যু হয়েছিল। দুর্বৃত্তরা তাঁর ওপর হামলা করার পর পালাতে চেয়েছিলেন পিথাগোরাস। কিন্তু একটি মটরশুঁটি খেতের মধ্য দিয়ে যেতে হবে বলে শেষে মৃত্যুকেই আলিঙ্গন করেন এই বিখ্যাত গণিতবিদ!
২. বিটোফেন
বিটোফেনের পুরো নাম লুডউইগ ফন বিটোফেন। জার্মানির এই বিখ্যাত সুরকার অসংখ্য কালজয়ী সুর সৃষ্টি করে গেছেন। কিন্তু সুর নিয়ে কাজ করার সময় সারা শরীরে পানি না ঢাললে চলত না তাঁর! সুর নিয়ে কাজ করার ফাঁকে ফাঁকে স্নানাগারে যেতেন তিনি। এরপর সারা শরীরে পানি ঢালতেন। এতে নাকি তাঁর কাজে গতি আসত।
৩. বালজাক
ফরাসি এই ঔপন্যাসিক ও নাট্য রচয়িতা মনে করতেন, কাজের গতি বাড়ানোর জন্য ক্যাফেইন অত্যন্ত জরুরি। প্রতিদিন কমপক্ষে ৫০ কাপ কফি পান করতেন তিনি। এই অভ্যাসের জন্য অবশ্য ভুগেছেনও বালজাক। অতিরিক্ত কফি পানের জন্য পাকস্থলীর সমস্যা, মাথাব্যথা ও উচ্চ রক্তচাপে ভুগতে হয়েছে তাঁকে।

তাঁরা কেউ শিল্পী, কেউ লেখক, কেউ আবার আবিষ্কারক। প্রত্যেকেই নিজ নিজ ক্ষেত্রে বিখ্যাত এবং প্রতিভাবান বলে স্বীকৃত। কিন্তু তাঁদের ছিল অদ্ভুত সব অভ্যাস। এগুলো কখনোই ছাড়েননি তাঁরা, আমৃত্যু চালিয়ে গেছেন অদ্ভুত অভ্যাসের চর্চা। তাই বলে প্রতিভার ধারে কিন্তু কমতি হয়নি। নিজ গুণে প্রতিষ্ঠিত করেছেন নিজেদের।

আসুন জেনে নিই এমনই কিছু বিখ্যাত মানুষের অদ্ভুত অভ্যাসের গল্প—

পিথাগোরাস। ছবি: সংগৃহীত

১. পিথাগোরাস
অঙ্ক ভালো লাগুক আর না-ই লাগুক—পিথাগোরাসের নাম শোনেননি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া ভার। গ্রিক এই গণিতবিদ শাকাহারী ছিলেন। কখনোই মাংসের ধারেকাছে যাননি। কিন্তু সারা জীবন শাকসবজি আর ফলমূল খেয়ে কাটিয়ে দিলেও মটরশুঁটি পছন্দ করতেন না তিনি। পিথাগোরাস নিজে যেমন খেতেন না, তেমনি তাঁর অনুসারীদেরও মটরশুঁটি খেতে বারণ করতেন তিনি। এমনকি মটরশুঁটি ছোঁয়াও যেত না! স্বাস্থ্যগত নাকি ধর্মীয়—কোন কারণে তিনি মটরশুঁটি খেতেন না, তা জানা যায়নি। গল্প প্রচলিত আছে, এই মটরশুঁটির কারণেই পিথাগোরাসের মৃত্যু হয়েছিল। দুর্বৃত্তরা তাঁর ওপর হামলা করার পর পালাতে চেয়েছিলেন পিথাগোরাস। কিন্তু একটি মটরশুঁটি খেতের মধ্য দিয়ে যেতে হবে বলে শেষে মৃত্যুকেই আলিঙ্গন করেন এই বিখ্যাত গণিতবিদ!

লুডউইগ ফন বিটোফেন। ছবি: বিবিসি

২. বিটোফেন
বিটোফেনের পুরো নাম লুডউইগ ফন বিটোফেন। জার্মানির এই বিখ্যাত সুরকার অসংখ্য কালজয়ী সুর সৃষ্টি করে গেছেন। কিন্তু সুর নিয়ে কাজ করার সময় সারা শরীরে পানি না ঢাললে চলত না তাঁর! সুর নিয়ে কাজ করার ফাঁকে ফাঁকে স্নানাগারে যেতেন তিনি। এরপর সারা শরীরে পানি ঢালতেন। এতে নাকি তাঁর কাজে গতি আসত।

বালজাক। ছবি: সংগৃহীত

৩. বালজাক
ফরাসি এই ঔপন্যাসিক ও নাট্য রচয়িতা মনে করতেন, কাজের গতি বাড়ানোর জন্য ক্যাফেইন অত্যন্ত জরুরি। প্রতিদিন কমপক্ষে ৫০ কাপ কফি পান করতেন তিনি। এই অভ্যাসের জন্য অবশ্য ভুগেছেনও বালজাক। অতিরিক্ত কফি পানের জন্য পাকস্থলীর সমস্যা, মাথাব্যথা ও উচ্চ রক্তচাপে ভুগতে হয়েছে তাঁকে।

এডগার অ্যালান পো। ছবি: সংগৃহীত

৪. এডগার অ্যালান পো
লেখক, সম্পাদক ও সাহিত্য সমালোচক হিসেবে বিখ্যাত ছিলেন এডগার অ্যালান পো। আমেরিকান এই লেখক ছোট ছোট কাগজের টুকরোতে লিখতেন। এরপর সেগুলো আঠা দিয়ে লাগিয়ে একটি শক্ত জিনিসে পাকিয়ে রাখতেন। যেমনটা রাখতেন আগেকার দিনের রাজারা। এডগার মনে করতেন, এভাবে রাখলে লেখার ধারাবাহিকতা রাখা সহজ এবং এতে লেখা সহজে সংরক্ষণ করা যায়। তাই স্বাভাবিক কোনো খাতা বা ডায়েরি তিনি ব্যবহার করতেন না।

প্রকাশকঃ
মোঃ মামুনুর হাসান (টিপু)

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক:
খন্দকার আমিনুর রহমান

৫০/এফ, ইনার সার্কুলার, (ভি আই পি) রোড- নয়া পল্টন ,ঢাকা- ১০০০।
ফোন: ০২-৯৩৩১৩৯৪, ৯৩৩১৩৯৫, নিউজ রুমঃ ০১৫৩৫৭৭৩৩১৪
ই-মেইল: khoborprotidin24.com@gmail.com, khoborprotidin24news@gmail.com

.::Developed by::.
Great IT