English Version

মুন্সিগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১, পরিবারের অভিযোগ হত্যা

প্রকাশিতঃ এপ্রিল ২৬, ২০১৮, ৬:১৭ অপরাহ্ণ


মুন্সিগঞ্জ সদর উপজেলায় পুলিশের পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে সাইফুল ইসলাম আরিফ ওরফে খাঁ খাঁ আরিফ নিহত হয়েছেন। তবে নিহত আরিফের পরিবার অভিযোগ করেছে, তাঁকে পুলিশ হত্যা করেছে। যদিও পুলিশ এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

আরিফ ডাকাতি, অস্ত্র, মাদকসহ ১২ মামলার আসামি বলে জানায় পুলিশ। গতকাল বুধবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার চরহায়দ্রাবাদ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আরিফের বাড়ি সদর উপজেলার পঞ্চসার ইউনিয়নের কালিখোলা এলাকায়।

পুলিশ সূত্র জানায়, আরিফ দীর্ঘদিন ধরে ডাকাতি, ছিনতাই, অস্ত্র ব্যবসাসহ নানা ধরনের অপকর্ম করে আসছিলেন। তাঁর বিরুদ্ধে থানায় ১২টি মামলা ছিল। গত মঙ্গলবার রাতে গোপন সূত্রে খবর পাওয়া যায়, আরিফ পঞ্চসার ইউনিয়নের দুর্গাবাড়ি এলাকায় অবস্থান করছেন। এ সময় অভিযান চালিয়ে ১১০টি ইয়াবাসহ তাঁকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাঁর স্বীকারোক্তি অনুযায়ী পুলিশ গতকাল রাত আড়াইটার দিকে আরিফকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারের জন্য উপজেলার গজারিয়াকান্দিতে রওনা হয়। পথিমধ্যে চরহায়দ্রাবাদ এলাকায় জাকির মোল্লার বাড়ির সামনে গেলে সেখানে ওত পেতে থাকা আরিফের সহযোগীরা পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এ সময় পুলিশের সঙ্গে সন্ত্রাসীদের গোলাগুলি হয়। কিছুক্ষণ পর আরিফের সহযোগীরা দৌড়ে পালায় এবং আরিফকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। এ সময় সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আসলাম ও সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আবুল কালামও আহত হন। আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আরিফকে মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশের ওই দুই কর্মকর্তা হাতপাতালে ভর্তি আছেন।

আরিফের বড় ভাই রমজান প্রথম আলোকে জানান, মঙ্গলবার রাতে আরিফ ও জিসান নামের এক ব্যক্তিকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায়। গতকাল জিসানকে আদালতে পাঠানো হলেও আরিফকে পুলিশ ক্রসফায়ারের নামে হত্যা করে পুলিশ। তবে হত্যার অভিযোগ অস্বীকার করেন মুন্সিগঞ্জ সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সালাউদ্দিন লিখন গাজী। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, নিহত ব্যক্তির মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ১টি বিদেশি পিস্তল, ৮টি গুলি, ২টি রামদা ও ১টি চাপাতি উদ্ধার করে। এ ঘটনায় অস্ত্র, খুন ও পুলিশের ওপর আক্রমণের দায়ে তিনটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।

গত বছরের মার্চ মাসে আরিফের ভায়রা মুন্সিগঞ্জের শীর্ষ সন্ত্রাসী শাহজালাল মিঝি পুলিশের গুলিতে নিহত হন। আরিফের স্ত্রী রুনু বেগম দুই মাস ধরে মাদক মামলায় জেলহাজতে আছেন।

প্রকাশকঃ
মোঃ মামুনুর হাসান (টিপু)

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক:
খন্দকার আমিনুর রহমান

৫০/এফ, ইনার সার্কুলার, (ভি আই পি) রোড- নয়া পল্টন ,ঢাকা- ১০০০।
ফোন: ০২-৯৩৩১৩৯৪, ৯৩৩১৩৯৫, নিউজ রুমঃ ০১৫৩৫৭৭৩৩১৪
ই-মেইল: khoborprotidin24.com@gmail.com, khoborprotidin24news@gmail.com

.::Developed by::.
Great IT