English Version

এমন কিছু শেষ ঘটেছিল ১১৬ বছর আগে

প্রকাশিতঃ জানুয়ারি ১৪, ২০১৮, ৬:৪৯ অপরাহ্ণ


মরনে মরকেল আউট হওয়ার জন্য খুব বাজে সময় বেছে নিয়েছেন। মধ্যাহ্ন বিরতির একটু আগে এমন সময়ে ক্যাচ তুললেন যে এক ওভারের জন্য হলেও ব্যাটিংয়ে নামতে হলো ভারতকে। মাত্র এক ওভারের জন্য পেসারদের বিরক্ত করতে ইচ্ছে হলো না ফাফ ডু প্লেসির। তাই বলটা তুলে দিলেন কেশব মহারাজের হাতে। তাতেই হয়ে গেল ইতিহাস। এক শ বছর পর দক্ষিণ আফ্রিকান কোনো স্পিনার নিজেদের প্রথম ইনিংসে বোলিং উদ্বোধন করলেন। সে ওভারে ৪ রান তুলে লাঞ্চে গেছে দুই দল। এর আগে সেঞ্চুরিয়ন টেস্টের দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশনে দক্ষিণ আফ্রিকা অলআউট হয়েছে ৩৩৫ রানে।

মহারাজের ইনিংসের শুরুতে বল করাটা কত বড় ঘটনা, সেটা ভেবে দেখার জন্য কিছু তথ্য দেওয়া যাক। দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে ৪২০ টেস্টে কোনো স্পিনারের প্রথম ওভার করার ঘটনাই আছে মাত্র ৯টি। বোলারের সংখ্যা তো আরও কম, মাত্র ৫। অবশ্য দক্ষিণ আফ্রিকার মতো দলে ফাস্ট বোলার কিংবা পেসারদের ডিঙিয়ে চকচকে লাল চেরিটা হাতে নেওয়ার সাহস করাটাও তো কঠিন। সর্বশেষ যে বোলার এমন সাহস দেখিয়েছেন তিনি পল অ্যাডামস। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে কেপটাউনে প্রথম ওভারেই বল তুলে দেওয়া হয়েছিল এই চায়নাম্যানের হাতে। কিন্তু সেটা ছিল দ্বিতীয় ইনিংসে।

দলের প্রথম ইনিংসেই বল হাতে নেওয়ার ঘটনাটি ১৯১২ সালের। আরেক লেগি অব্রে ফকনার অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বল হাতে নিয়েছিলেন ম্যাচের একদম প্রথম ইনিংসেই। অবশ্য ফকনার কোনো উইকেট না পাওয়ায় জুয়াটা সেবার কাজে লাগেনি। আর ম্যাচটা দক্ষিণ আফ্রিকাতেও হয়নি। ম্যানচেস্টারে আতিথ্য নিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়া দুই দলই।

নিজেদের মাঠে প্রথম ইনিংসে প্রথম বল হাতে নেওয়ার একমাত্র কীর্তিটা এত দিন শুধু একজনেরই ছিল। জর্জ রোয়ে, মহারাজের মতোই আরেক বাঁহাতি স্পিনার। মাত্র পাঁচ টেস্ট খেললেও অনন্য এক রেকর্ড তাঁর। যে ৮ ইনিংসে বল করেছেন, হয় একে কিংবা দুইয়ে বল করেছেন! ১৮৯৬ জোহানেসবার্গে নিজের অভিষেকেই প্রথম ওভার করার সৌভাগ্য হয়েছিল। ১৯০২ সালে সেই জোহানেসবার্গেই ক্যারিয়ারের শেষ টেস্ট খেলেছিলেন। সেই টেস্টেও প্রথমে বল হাতে নিয়েছেন রোয়ে। এটাই ছিল ঘরের মাঠে কোনো প্রোটিয়া স্পিনারের প্রথম ইনিংসেই বোলিং উদ্বোধন করার শেষ কীর্তি।

ও, আজ তো মহারাজ এ কথাটা বলার আর উপায় রাখলেন না! যদিও ডু প্লেসির ফাটকাটা কাজে লাগেনি শেষ পর্যন্ত। এর আগে লোয়ার অর্ডার নিয়ে প্রোটিয়া অধিনায়কের নিঃসঙ্গ লড়াইয়ে আগের দিনের সঙ্গে ৬৬ রান যোগ করে শেষ ৪ উইকেট হারিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার আগে ৬৩ রান করেছেন ডু প্লেসি। এই উইকেটে স্পিনারদের জন্য যে কিছু আছে, অশ্বিনের ৪ উইকেট সেটাই বলছে। ভারতীয় অফ স্পিনার অবশ্য ১১৩ রান খরচ করেছেন এর জন্য। তবে অশ্বিনের বলে লম্বা লম্বা টার্ন দেখেই হয়তো ডু প্লেসির মনে ফাটকাটা খেলার উৎসাহ দেখা গেছে।

প্রকাশকঃ
মোঃ মামুনুর হাসান (টিপু)

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক:
খন্দকার আমিনুর রহমান

৫০/এফ, ইনার সার্কুলার, (ভি আই পি) রোড- নয়া পল্টন ,ঢাকা- ১০০০।
ফোন: ০২-৯৩৩১৩৯৪, ৯৩৩১৩৯৫, নিউজ রুমঃ ০১৫৩৫৭৭৩৩১৪
ই-মেইল: khoborprotidin24.com@gmail.com, khoborprotidin24news@gmail.com

.::Developed by::.
Great IT